সেরা কর্মকর্তা খুঁজে পেতে যেভাবে Bikroy.com-কে কাজে লাগাবেন!

Share

কোনো একটি প্রতিষ্ঠানে অ্যাকাউন্টিং ও ফিন্যান্সের চাকরির পদ পূরণ করা সবচেয়ে কঠিন কাজ কিন্তু এই পদগুলো সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। আর্থিক উপদেষ্টা বা হিসাবরক্ষক ছাড়া একটি প্রতিষ্ঠান খুব বেশীদিন ভালোভাবে চলতে পারে না। উদ্যোক্তা নিজেই হয়তো হিসাব-নিকাষ রাখতে পারবেন, কিন্তু তা বেশীদিন চললে প্রতিষ্ঠানে ধ্বস নামতে পারে। ঢাকা বা বাংলাদেশের যে কোনো জায়গায় চাকরীতে পেশাদার লোক নিয়োগ দেওয়ার জন্য Bikroy.com একটি উত্তম পন্থা, কিন্তু সর্বপ্রথম আপনাকে বুঝতে হবে কী করে কোনো একটি পদে সেরা লোক নিয়োগ করবেন, যা আসলেই কঠিন একটি কাজ।

পদের মূল্যায়ন করুন

আপনি যদি নিজে পদ সম্পর্কে বিস্তারিত না জানেন, তবে এমন কাউকে খুঁজে বের করুন যিনি এই সম্পর্কে জানেন, যেমন, সেই ডিপার্টমেন্টের অন্য কেউ বা হিসাবরক্ষক বা আর্থিক উপদেষ্টা, যিনি এই পদের প্রাত্যহিক বিভিন্ন কাজ এবং সাধারণ জ্ঞান সম্পর্কে আপনাকে পরামর্শ দিতে পারবেন। এই ধরণের কাজে কী রকম দক্ষতার প্রয়োজন তা জানা গুরুত্বপূর্ণ যাতে আপনি সবচেয়ে দক্ষ লোকটিকে নিয়োগ দিতে পারেন। কিছু পদে অ্যাকাউন্টিং সম্পর্কে সাধারণ জ্ঞান ও ডাটা এন্ট্রির দক্ষতা থাকলেই চলে, কিন্তু আরও গুরুত্বপূর্ণ পদে ফিন্যান্সিয়াল স্টেটমেন্ট বা আর্থিক প্রতিবেদনের মূল্যায়ন এবং ভবিষ্যতের জন্য রূপরেখা তৈরি করতে জানতে হবে।

শূন্য পদের জন্য বিজ্ঞাপন

ফিন্যান্স ও অ্যাকাউন্টেন্সির পেশাদার লোকেরা জানেন চাকরির বাজারে তাঁদের অনেক চাহিদা রয়েছে। তাই তাঁরা চাকরি পছন্দের ক্ষেত্রে অনেক খুঁতখুঁতে হতে পারেন। সঠিক ভাষা ও বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে আপনি আপনার পদগুলোতে যোগ্যতাসম্পন্ন প্রার্থীদের আকৃষ্ট করতে চাইবেন, যা কেবল সেরাদেরই প্রলুব্ধ করবে। আপনার বিজ্ঞাপনটি এমনভাবে লিখুন যাতে অযোগ্য ব্যক্তিরা শুরুতেই বাদ পড়ে যায়। আপনি যেই ধরণের প্রার্থীর সাক্ষাৎকার নিতে চান তেমন প্রার্থী চেয়ে বিজ্ঞাপন দেবেন, কিন্তু ব্যক্তিগত গুনাগুণের কথা উল্লেখ করবেন না। এ ব্যাপারে আপনি আগেই কোনো ধারণা না দিলে সাক্ষাৎকারের সময় যাচাই করা আপনার জন্য সহজ হবে, কেননা আপনি সেগুলোর উল্লেখ করলে অসাধু প্রার্থীরা সেইসব গুণাবলীর অধিকারী হিসেবে ভান করতে পারে।

গুরুত্বপূর্ণ প্রাথমিক দক্ষতা

অ্যাকাউন্টেন্সির চাকরির ক্ষেত্রে হিসাবরক্ষণের প্রাথমিক দক্ষতা থাকা প্রয়োজন। একটি প্রাথমিক পদের জন্য একজন ভালো প্রার্থীর জানতে হবে কী করে ব্যাল্যান্স শিট বা স্থিতিপত্রে চার্জ বসাতে হয় এবং ক্রেডিট করতে হয়, চার্ট অফ অ্যাকাউন্টস ও ট্যাক্স সম্পর্কেও তাঁর প্রাথমিক জ্ঞান থাকা জরুরী। একজন আর্থিক উপদেষ্টা বা অ্যাকাউনটেন্টের একটি ডিগ্রী থাকতে হবে, একজন হিসারক্ষকের যেসব বিষয় জানার প্রয়োজন সেসব জানতে হবে এবং বিশ্লেষণ ও পূর্বাভাষের মাধ্যমে এই প্রক্রিয়ায় আরও এক ধাপ এগিয়ে যেতে হবে। সাক্ষাৎকারের সময় এই সম্পর্কে তাঁর প্রাথমিক জ্ঞান আছে কিনা তা যাচাইয়ের জন্য এসব প্রশ্ন করবেন।

পরীক্ষার জন্য সাক্ষাৎকার

সাধারণত, যিনি এই প্রক্রিয়ার সাথে খুব একটা পরিচিত নন তিনি একজন হিসাবরক্ষক বা অ্যাকাউন্টেন্ট নিয়োগ দেবেন। হিসাবরক্ষক বা আর্থিক উপদেষ্টা, প্রতিষ্ঠানে কোনো আর্থিক সমস্যার সৃষ্টি করে কিনা তা দেখার জন্য অপেক্ষা করতে হয়। প্রতিষ্ঠানের ভাগ্য ভালো হলে তাঁরা এমন কাউকে নিয়োগ দেবে যিনি এই পদের জন্য উপযুক্ত ও সক্ষম, কিন্তু তাঁর যোগ্যতার পরীক্ষা নেওয়া ছাড়া এটা এক ধরণের ঝুঁকি। কিছু সাধারণ নৈর্ব্যত্তিক প্রশ্নের মাধ্যমে প্রার্থীর প্রাথমিক জ্ঞান যাচাই করতে পারেন। পরীক্ষায় ডেবিট ও ক্রেডিট সম্পর্কে কিছু সাধারণ প্রশ্ন থাকবে যা সকল অ্যাকাউন্টিং প্রার্থীরই জানা উচিৎ।

শিক্ষা

একটি আর্থিক পদের জন্য ন্যুনতম শিক্ষাগত যোগ্যতা মৌলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ও কাজের অভিজ্ঞতা থেকে শুরু করে উচ্চতর ডিগ্রী পর্যন্ত হতে পারে, যেখানে অনেক বছরের পড়াশুনার প্রয়োজন হয়। অ্যাকাউন্টিং ক্লার্ক এবং হিসাবরক্ষকদের একটি ডিগ্রী থাকতে পারে কিন্তু অনেকেই আছেন যাদের অনেক বছর কাজ করার অভিজ্ঞতা রয়েছে। এক্ষেত্রে পছন্দ সম্পূর্ণরূপে ব্যক্তিগত অভিরুচির উপর নির্ভর করে। অনেক অভিজ্ঞ হিসাবরক্ষক আছেন যার কোন ডিগ্রী নেই কিন্তু কাজ করার জন্য যা প্রয়োজন চাকরির প্রশিক্ষণের মাধ্যমে তিনি তাঁর সবটাই শিখেছেন। আর্থিক উপদেষ্টা, হিসাবরক্ষক এবং আরো উন্নত আর্থিক পদের জন্য আরো বেশী শিক্ষাগত যোগ্যতার প্রয়োজন। তাঁদের অনেক বছরের শিক্ষা ও ডিগ্রীর প্রয়োজন। তাঁদের একাধিক ডিগ্রীও থাকতে পারে।

সার্টিফিকেশন

বর্তমানে জাতীয় সার্টিফিকেশনের ব্যবস্থা রয়েছে যা সব হিসাবরক্ষকদের কাছে খুব সাধারণ একটি ব্যাপার। এটি আপনার নিয়োগ প্রক্রিয়ার কোনো মানদণ্ড নাও হতে পারে, কিন্তু হওয়া উচিৎ। যদি একজন হিসাবরক্ষক এবং অর্থ উপদেষ্টা আরো উন্নত সার্টিফিকেশনে অংশগ্রহণ করেন, এর অর্থ তাঁরা সবসময় জানতে এবং তাদের দক্ষতা বাড়াতে সচেষ্ট। অ্যাকাউন্টিংয়ের ভিত্তি যেখানে কঠিন, সফটওয়্যার এবং চর্চা সেখানে তরলের মতো।

দায়বদ্ধতা ও বিশ্বাসযোগ্যতা

একটি সাক্ষাৎকারের সবচেয়ে কঠিন কাজ হচ্ছে একজন প্রার্থীর দায়বদ্ধতা এবং বিশ্বাসযোগ্যতা যাচাই করা। ইনিই সেই ব্যক্তি যিনি আপনার জীবিকা পরিচালনা করবেন। অগণিত সাক্ষাৎকার গ্রহনের পর আপনার ধারণা হয়ে যাবে আপনি কার ওপর ভরসা করতে পারবেন এবং কে আপনাকে অস্বস্তিকর পরিস্থিতিতে ফেলতে পারে। এক্ষেত্রে সম্পূর্ণরূপে আপনার সহজাত বিশ্বাসের ওপর নির্ভর করা ঠিক হবে না, যদি না আসলেই মনে হয় তাঁদের বিশ্বাস করা ভুল হবে। সেক্ষেত্রে আপনার সহজাত বিশ্বাসের উপর নির্ভর করুন।

রেফারেন্স

প্রতিটি কর্মকর্তা পদে রেফারেন্সের প্রয়োজন, কিন্তু একটি ফিন্যান্সিয়াল পদে রেফারেন্স যাচাই করা অনেক দুরূহ একটি কাজ। যেহেতু আপনাকে বিশ্বাস করতে হবে, তাই নিশ্চিত করুন যে প্রার্থীর কোনো সমস্যা নেই। আপনাকে নিশ্চিত হতে হবে যে প্রার্থীর অন্যান্য চাকরীতে কোনো সমস্যা ছিল না। নিয়োগের সিদ্ধান্ত নেওয়ার পূর্বে তাঁর সিভি-তে দেওয়া সকল তথ্য কল করে যাচাই করে নিন। প্রার্থীকে পুনরায় সাক্ষাৎকার বা পরীক্ষার জন্য ডাকতে সংকোচ বোধ করবেন না।

ফিন্যান্সিয়াল বা অ্যাকাউন্টেন্সির শূন্য পদ যত তাড়াতাড়ি সম্ভব পূরণ করা উচিৎ। এগুলো এমন সব পদ যা বেশীদিন খালি রাখা সম্ভব না, আপনি একজন যোগ্য ব্যক্তিকে সেই পদে পেতে চাইবেন। চট্টগ্রাম এবং অন্যান্য এলাকায় আপনার অ্যাকাউন্টেন্সি চাকরির বিজ্ঞাপন দিতে এবং সেই পদ পূরণে সেরা ব্যক্তিকে খুঁজে পেতে Bikroy.com একটি অসাধারণ উপায়।

সাবস্ক্রাইব করুন

No spam guarantee.

Comments

comments