ওকাপিয়া ইনফিনিটি এক্স এর পর্যালোচনা : ব্যাটারি লাইফ সবার সেরা

Share

ওকাপিয়ার উদ্দেশ্য হচ্ছে তার গ্রাহকদের জন্য সাশ্রয়ী মূল্যে মানসম্মত ও উন্নতমানের স্মার্টফোন প্রদান করা। আমরা গভীরভাবে লক্ষ্য করছি ওকাপিয়ারইনফিনিটি এক্স হ্যান্ডসেটটির প্রধান বৈশিষ্ট্য হল ৫,০০০ এমএএইচ (মিলি অ্যাম্পিয়ার আওয়ার) এর বিশালব্যাটারি। যা দীর্ঘ সময় ধরে স্থায়ী থাকবে। ডিভাইসটির খুচরা মূল্য ৮,৬৯০ টাকা (আট হাজার ৬৯০ টাকা) এবং Bikroy.com থেকে সরাসরিও কেনা যাবে।ডিভাইসটির বিষয়ে আমাদেরচিন্তাধারা এবং মতামত পড়ুন যা নিচে তুলে ধরা হয়েছে।

 

ডিসপ্লে

20160328_172658
৫৪০*৯৬০ পিক্সেলের রেজ্যুলুশন, ৫ ইঞ্চি আইপিএস ডিসপ্লের ইনফিনিটি এক্স ফোনটি যে কোন পুরস্কার পেতে পারে। ২৪০ পিপিআই (পিক্সেল পার ইঞ্চি)ঘনত্বের ডিসপ্লেটিতে যখন সাধারণ দুরত্বে দেখা হবে তখন আপনি এতে কিছু পিক্সেলেশন দেখতে পাবেন এবং মানের দিক দিয়ে এটি খুবই ভালো। এ্যাঙ্গেলবা কোণা থেকে ডিসপ্লেটিতে দেখলে ভালোই দেখতে পাওয়া যায় এবং প্যানেলও (সমতল উপকরণ) খুব ভালো উজ্জ্বল দেখায়। বাইরের  দৃশ্যমান বিষয়নিয়ে এখানে কোন আলোচনা করার প্রয়োজন নাই। অন্যদিকে ওকাপিয়ার স্ক্রিনটি দেখতে চোখের কোন সমস্যা হবে না এবং তেমন অস্পষ্টও দেখাবে না।এছাড়া এটি অন্ধকারেও পর্যাপ্ত আলো প্রদান করবে। ওকাপিয়ার ইনফিনিটি এক্স-এ  প্লাস্টিক স্ক্রিন প্রটেক্টর ইনস্টল করা হয়েছে যা সব সময় গ্রাহকদেরজন্য একটি প্লাস পয়েন্ট হিসেবে গণ্য হবে।

ডিজাইন এবং হার্ডওয়্যার
ইনফিনিটি এক্স ডিভাইসটি দেখতে অন্যান্য ফোনগুলোর মতো সাধারণই মনে হবে। কারণ এটির চারপাশ উজ্জ্বল ও চকচকে প্লাস্টিক দিয়ে সুবিন্যাস্তভাবে তৈরি করা হয়েছে। যা এটিকে অনেক বেশি আকর্ষণীয় হিসেবে উপস্থাপন করেছে। পেছনের সাইডটি রিমোভেবল এবং ম্যাট ফিনিশ। আপনি যদি খুব কাছ থেকে দেখেন, তাহলে ফোনটিতে ফেইন্ট ক্রাইসিস-ক্রস প্যাটার্ন লক্ষ্য করবেন। পেছনে মাঝ বরাবর উপরের দিকে এর ক্যামেরা রয়েছে এবং পেছনের সাইডটিও একই রকম প্লাস্টিকের ফিনিসিং করা। মোবাইলটির বাম দিকে রয়েছে চকচকে প্লাস্টিকের তৈরি পাওয়ার এবং ভলিউম এর বাটন। এই বাটনগুলো কার্যকরী একইসাথে ব্যবহারের সময় কিছুটা নরম মনে হবে। এছাড়া এগুলোতে হাতের আঙুলও খুব সহজেই পৌঁছায়। ক্যাপাসিটিভ কী (চাবি) ডিসপ্লের নিচের দিকে রয়েছে। এটির উপরে আস্তরনের ব্যবহার করার কারণে আলো থাকে না।

যদিও আপনি ডিভাইসটির পেছনের প্লাস্টিকের কাভারটি খুলে ফেলতে পারবেন, তবে এর ৫,০০০ এমএএইচ ব্যাটারিটি সিল করা এবং এটি রিমভেবল নয়। ব্যাটারির নিচেই রয়েছে স্পিকার, যা পর্যাপ্ত উচ্চ শব্দে ব্যবহার করা যাবে। পেছনের দিকে কাভার খোলার পর উপরের দিকে আপনি ডুয়েল সিম কার্ড স্লট পাবেন। একই সাথে রয়েছে মাইক্রো এসডি কার্ড স্লটও।

20160328_172932

ইনফিনিটি এক্স এর ব্যাটারিটি বড় হওয়ার কারণে ডিভাইসটি ১০.৩ মিলি মিটার পুরু। পুরুত্বের কারণে ফোনটি হাতে ধরতে কখনই অস্বস্তিকর বা খারাপ মনে হবে না। প্রকৃত পক্ষে ডিভাইসটি বেশ ভারসাম্যজনক ওজনে তৈরি করা এবং এটি অনেক মজবুত ও টেকসইও হবে।

এই মোবাইল বক্সটির বাইরেও ওকাপিয়া একটি ফ্লিপ কাভার এবং একটি ওটিজি (ইউএসবি সাপোর্ট ওন দ্যা গো) ক্যাবল দিচ্ছে। ওটিজি ক্যাবেল মাধ্যমে আপনি আপনার ইনফিনিটি এক্স ডিভাইসটি অন্য যেকোন স্মার্টফোনের সাথে কানেক্ট করে চার্জ দিতে পারবেন। ফ্লিপ কাভারটি এর সাথে লাগানো বা ইনস্টল করা (প্লাস্টিকের কাভারটি খুলে ফেলে তার স্থলে ফ্লিপ কাভারটি স্থাপন করা) খুব সহজ এবং দেখতেও দারুন চমৎকার লাগে। ডান দিকের নিচে ওকাপিয়া লোগোটির ফিনিশিং ভালো হওয়ার কারণে টার্চ করতেও ভালো লাগে। ফ্লিপ কাভারের ফিনিশিং অনেকটা চামড়ার মতো মসৃণ হয়েছে। ডিভাইসটি পর্যালোচনার সময় এটি সম্পূর্ণরূপে ব্যবহার করা হয় এবং বেশ ভালোই মনে হয়েছে।

20160328_173105


পারফর্মেন্স বা সক্ষমতা

ইনফিনিটি এক্স ফোনটিতে ১জিবি র‌্যামের কারণে আমরা এটিতে খুব বেশি কিছু আশা করিনি। কিন্তু তারপরও ইনফিনিটি এক্স আমাদের বিস্মৃত করেছে। এতে ১ জিবি র‌্যামের সাথে একটি এমটি৬৫৮২ এম জিপিইউ এবং একটি ১.৩ গিগাহার্টজ কোয়াড-কোর প্রসেসর রয়েছে। আপনি ফোনটিতে ৮জিবি (গিগাবাইট) স্টোরেজ পাচ্ছেন এবং মাইক্রো এসডি কার্ডের মাধ্যমে এই মেমোরি আরও বৃদ্ধি করা যাবে।

ইনফিনিটি এক্স-এ আমরা অন্যান্য ফোনগুলোর মতোই গেইম ব্যবহার করেছি তা হচ্ছে মডার্ন কমব্যাট ৫, অ্যাসফাল্ট৮, এয়ারবোর্নে, ব্যাডলন্ড এবং অ্যাল্টো। আমরা অ্যাল্টো এবং ব্যাডল্যান্ড গেইম দিয়েই শুরু করেছি। এগুলো ইনফিনিটি এক্স স্বাচ্ছন্দ্যে নিয়ন্ত্রণ করতে পারে। আমরা কিছুটা বিচলিতভাবেই আধুনিক কমব্যাট ৫ গেইমটিতে মুভ করেছি এবং গেইমটির ফ্রেইম ড্রপ খুব সামান্যই মোকাবেলা করতে পেরেছি, ফলে তখন এটির অবনতি হয়েছে। আমরা আমাদের বিগত ব্লগ পোস্টগুলোতে যেমনটি বলতে চেয়েছি এটির ক্ষেত্রেই আসলে একই রকম বিষয় হয়েছে। এসব ব্লগ পোস্টে আমরা মিডরেঞ্জ, এমনকি দামি স্মার্টফোনের ক্ষেত্রেও বলেছি, তারা এটি হ্যান্ডল করতে পারে। যদিও ব্যয়বহুল ফ্ল্যাগশিপও এটি হ্যান্ডল করতে পারে তারপরও কিছুটা সতর্কীকরণ বার্তা রয়েছে।
Screenshot_2016-03-28-18-00-46

ইনফিনিটি এক্স হ্যান্ডসেটটির প্রধান এবং মূল আকর্ষণই হচ্ছে এর ৫০০০ এমএএইচ ব্যাটারি। আপনি এই ব্যাটারির মাধ্যমে খুব সহজেই দেড় দিন (পুরো এক দিন এবং অর্ধেক দিন) অবিরাম আপনার সেটটি ব্যবহার করতে পারবেন। এমনকি চার্জ কিছুটা সংরক্ষণ করতে পারলে এই ব্যাটারি দিয়ে আড়াই দিন (দুই দিন এবং অর্ধেক দিন) ব্যবহার করতে পারবেন। ওকাপিয়া ওটিজি ক্যাবলের মাধ্যমে যে বিপরীত একটা চার্জিং সক্ষমতার পথ দেখিয়েছে এ কারণেও আমরা আনন্দিত।


সফটওয়্যার
Screenshot_2016-03-28-18-00-19 Screenshot_2016-03-28-17-59-37 Screenshot_2016-03-28-18-01-20

ওকাপিয়া ইনফিনিটি এক্স ফোনটি পরিচালিত হয় অ্যান্ড্রয়েড ৪.৪.২ কিটক্যাট পদ্ধতিতে। তারপরও আমরা অ্যান্ড্রয়েড এন এর আসার অপেক্ষায় আছি। কিটক্যাটই তার নান্দনিক সৌন্দর্য্য ও কারুকার্যের জন্য সর্বাধুনিক মনে হয়। অন্যদিকে কিটক্যাটই অ্যান্ড্রয়েড ভার্সনের জন্য ছিল সবচেয়ে বেশি স্থায়ী এবং নির্ভরযোগ্য অ্যান্ড্রয়েড ভার্সন এবং সব সময় এটির ব্যবহারও ছিল আনন্দদায়ক। ওকাপিয়া নোটিফিকেশন, সেটিংস এবং কুইক টগল এর জন্য সামান্য স্কিন বাস্তবায়ন করেছে। কিন্তু এর বাইরে বাকি সবকিছুই একেবারে অ্যান্ড্রয়েড। বোনাস হিসেবে আপনি একটি মাল্টিটাস্কিং টগল ব্যবহারের জন্য একটি অপশন পাচ্ছেন। যার মাধ্যমে আপনি ভিডিও দেখতে পারবেন, মিউজিক পছন্দ করা, দ্রুত নোট লেখা অথবা ইমেইল চেক করার জন্য আপনার কারেন্ট এক্টিভিটির সাথে উপরের দিকে একটি ছোট উইন্ডো পাবেন। দুইবার আলতোভাবে চাপ দিলে এটি দারুন একটি বিষয়ের আবির্ভাব হবে।


ক্যামেরা
IMG_20160316_111646

ইনফিনিটি এক্স এর প্রধান ক্যামেরাটিতে ৫ মেগাপিক্সেল বিএসআই সেন্সর এর সাথে অটোফোকাস এবং পাশেই একটি সিঙ্গেল এলইডি ফ্লাশ রয়েছে। এর ফ্রন্ট বা সামনের দিকের ক্যামেরাটি ২ মেগাপিক্সেল ইউনিটের। মূল ক্যামেরা দিয়ে দিনের সুন্দর আলোতে ছবি তুললে প্রকৃতপক্ষে ছবিটি দারুন পরিণত এবং প্রতিটি বস্তুতে রংয়ের পুনঃব্যবহার হয়। আর যদি ছোট বা অল্প আলোতে ছবি তোলা হয় তাহলে বস্তুর প্রতিচ্ছবিগুলোও থাকে অস্পষ্ট। সামনের দিকের ক্যামেরা দিয়ে ছবি তোলার ক্ষেত্রেও একই রকম কথা বলা যেতে পারে।

IMG_20160316_111533 IMG_20160316_111731


ফলাফল

সাশ্রয়ী মূলে (৮ হাজার ৬৯০ টাকা) ওকাপিয়া ইনফিনিটি এক্স একটি নির্ভরযোগ্য স্মার্টফোন। এটি খুব সাধারণ হলেও বিস্ময়কর বিরাটাকৃতির ব্যাটারির কারণে অনেক বেশি শক্তিশালী। যখন কেউ দেশের বাইরে যাবেন তখন এই ডিভাইসটির ব্যবহার এবং ব্যাটারির দীর্ঘ স্থায়ীত্ব আমাদের চাপমুক্ত থাকতে সাহায্য করবে। এছাড়া ফ্লিপ কেইস এবং ওটিজি ক্যাবল ওকাপিয়ার দারুন সংযোজন। ওকাপিয়া এখানে যেসব বিষয় গুরুত্ব দিচ্ছে বা ফোকাস করছে তার চেয়ে আরও ভালো এইচডি ডিসপ্লে এবং কিছুটা ভালো ক্যামেরা এবং ব্যাটারি পাওয়া যাবে এই দামের চেয়ে আরও বেশি দামের ওকাপিয়া ফোন কিনলে। উপরের বিষয়গুলো থেকে বলা যায়, ইনফিনিটি এক্স সাপ্তাহান্তের প্রতিদ্বন্ধিতায় অথবা সেকেন্ডারি ফোনের ক্ষেত্রে একটি চমৎকার ফোন।

প্রধান বৈশিষ্ট্য
অপারেটিং সিস্টেম: অ্যান্ড্রয়েড ৪.৪.২
সিপিইউ: কোয়াড কোর ১.৩ গিগাহার্টজ
চিপসেট: এমটি৬৫৮২ এম
মেমোরি: র‌্যাম ১ গিগাহার্টজ
স্টোরেজ: রোম ৮গিগাহার্টজ
ক্যামেরা: রেয়ার ৫ মেগাপিক্সেল অটো ফোকাস সাথে এলইডি ফ্লাশ, বিএসআই
ফ্রন্ট ক্যামেরা: ২ মেগাপিক্সেল সাথে ফেইস বিউটি মুড
ডিসপ্লে:৫.০ ইঞ্চি কিউ এইচডি আইপিএস
ডিসপ্লে: রেজ্যুলুশন ১২৮০*৭২০
ডাইমেনশন: ১৪৪*৭২*১০.৩ এম
কানেক্টিভিটি: ৩জি, ওয়াই-ফাই সাথে হটস্পট, বিটি, ওটিজি
ব্যাটারি: লি-পলিমার ৫০০০ এমএএইচ

অন্যান্য বৈশিষ্ট্য
সেন্সর: এল-সেন্সর, পি-সেন্সর, জি-সেন্সর
মাল্টিমিডিয়া: এমপি৪/এভিআই/এমকেভি/ডব্লিওএমভি/এইচ.২৬৪/এইচ.২৬৩ প্লেয়ার
এমপি৩/ডব্লিউএভি/ইএএসি+/ফ্লাশ প্লেয়ার
অডিও জ্যাক: ৩.৫ এমএম
ইউএসবি স্টোরেজ: হ্যাঁ
ওটিজি সাপোর্ট: হ্যাঁ
ইউএসবি মোডেম: হ্যাঁ
এমএমএস: হ্যাঁ
ইমেইল: হ্যাঁ
ইউএসপি: ইন্ডিকেটর লাইট, ওটিজি, রিভার্স চার্জিং

আমাদের পহেলা বৈশাখ কন্টেস্টে অংশগ্রহন করে, আপনিও জিতে নিতে পারেন এই মোবাইল ফোনটি

সাবস্ক্রাইব করুন

No spam guarantee.

Comments

comments