আমাদের দেশে সেলসের চাকরি পেতে যা প্রয়োজন

Share

এমন অনেকেই আছেন যারা সেলসের চাকরি করার সিদ্ধান্ত নেন। তাঁরা বুঝতে পেরেছেন যে তাঁদের যোগাযোগের দক্ষতা অনেক ভালো এবং মানুষের সাথে কিভাবে মিশতে হয় তা তাঁরা ভালো করেই জানেন, এবং তাঁদের হয়তো পছন্দের নির্দিষ্ট কোনো বাজার রয়েছে যেখানে তাঁরা পণ্য বিক্রি করতে পারবেন। যখন আপনার এরকম ইচ্ছাশক্তি থাকবে তখন আপনি রিয়েল এস্টেট থেকে গাড়ীর ডিলারশিপ পর্যন্ত বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে চাকরি দেখতে পারেন।

রিয়েল এস্টেট এজেন্টের পদসমূহ

আবাসন খাতে সেলসের চাকরি দারুণ সম্ভাবনাময়, কারণ বাজারে প্রতিনিয়তই নতুন নতুন বাড়ী তৈরি হচ্ছে এবং তা বিক্রি হয়ে যাচ্ছে। সাধারণত, এই ক্ষেত্রটিতে কোনো পদে চাকরি পেতে হলে আপনার ন্যুনতম শিক্ষাগত যোগ্যতা থাকতে হবে এবং প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ নিতে হবে। এছাড়াও, এই ক্ষেত্রটি সম্পর্কে এবং সাম্প্রতিককালের বিক্রি সম্পর্কে, এমনকি কোনো স্ট্রীট বা এভিনিউতে কি পরিমাণ বিক্রি হয়েছে সেই সম্পর্কেও জানতে হবে। যদিও আপনি কোনো এলাকার ক্লায়েন্টকে আপনার ব্যক্তিগত মতামত জানাতে যাবেন না, কিন্তু আপনি তাঁদেরকে এমনভাবে দিক নির্দেশনা দেবেন যেন তাঁরা অন্যদের কাছ থেকে মতামত পেতে পারেন।

টেলিফোন সেলস

মানুষকে ফোন করে তাঁদেরকে কোনো পণ্য ক্রয়ে রাজি করানো দারুণ একটি দক্ষতা। সবারই অপরিচিত মানুষের সাথে কোনো পণ্য নিয়ে যুক্তি তর্কে অংশগ্রহণ করার মতো ক্ষমতা থাকে না। তাই, আপনি যদি অন্যদের সাথে কথা বলতে পারদর্শী হন তবে এই চাকরি আপনার জন্য উপযুক্ত হতে পারে। আপনাকে শুধু মানুষের সাথে এক ধরণের বন্ধন তৈরি করলেই চলবে না বরং আপনাকে তাঁদের সকল জিজ্ঞাসার তৎক্ষণাৎ উত্তর দিতে হবে। তাই, টেলিসেলসের চাকরির ক্ষেত্রে আপনার পণ্য বা পরিষেবা সম্পর্কে ভালোভাবে জানা অত্যন্ত জরুরী।

রিটেইল সেলস

বিভিন্ন ধরণের রিটেইল শপ রয়েছে। আপনার যদি ফ্যাশন সম্পর্কে প্রবল আগ্রহ থাকে তবে আপনি কোনো ভালো কাপড়ের দোকানে চাকরির আবেদন করতে পারেন। এছাড়াও আপনি জুতার বা গহনার দোকানে সেলসের চাকরি নিতে পারেন যেখানে মানুষের কাছে চমৎকার সব পণ্য বিক্রি করা হয়। আপনি খেলনার দোকান বা বইয়ের দোকানেও কাজ করতে পারেন। এ ক্ষেত্রেও আপনাকে আপনার পণ্য সম্পর্কে ভালোভাবে জানতে হবে, যাতে আপনি ক্রেতাকে সহায়তা করতে পারেন, কিন্তু আপনাকে দোকানের বিন্যাস সম্পর্কেও ভালোভাবে শিখতে হবে। যাদের স্মৃতিশক্তি ভালো তাঁরা এই ধরণের কাজে আগ্রহী হতে পারেন।

গাড়ীর ডিলারশিপ

গাড়ীর ডিলারশিপ হচ্ছে আরেকটি পদ যেখানে মানুষ কাজ পেতে পারে। সাধারণত, এই কাজের জন্য আপনার গাড়ী সম্পর্কে ভালো জ্ঞান থাকতে হবে বা অন্তত শেখার আগ্রহ থাকতে হবে। শুধুমাত্র বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের ও মডেলের গাড়ী সম্পর্কে জানলেই চলবে না বরং গাড়ীর বিভিন্ন ফিচার সম্পর্কে ধারণা থাকতে হবে, কেননা এ সম্পর্কে মানুষ জানতে চাইবে। যেমন ধরুন, কেউ যদি জানতে চায় সব গাড়ীর মধ্যে কোন গাড়ীর নিরাপত্তা রেটিং সবচেয়ে ভালো, তখন আপনাকে আত্মবিশ্বাসের সাথে সেই প্রশ্নের জবাব দিতে হবে। অন্যথায়, আপনার বিক্রি কমে যাবে।

মার্কেটিং সেলস

যখন আপনি আপনার কলেজ ডিগ্রী কাজে লাগাতে চান এবং সেলসের মাধ্যমে আপনার ক্যারিয়ার গড়তে চান তখন আপনি নিশ্চয়ই কোনো মার্কেটিং টিমের কোনো একটি পদে কাজ করতে চাইবেন। সকল ধরণের ব্যবসায়ই মার্কেটিং টিম রয়েছে, তাই আপনার পছন্দ অনুযায়ী আপনার উপযুক্ত পদে চাকরির জন্য আবেদন করতে পারবেন। এই কাজগুলো আপনাকে সহকারী অ্যাসিস্ট্যান্ট বা সেলস ম্যানেজার হওয়ার পথে এগিয়ে নিয়ে যাবে, বিশেষ করে যারা নির্দিষ্ট ক্রেতাশ্রেণীর চাহিদা পূরণে মার্কেটিং টিমের সাথে নিবিড়ভাবে কাজ করেন।

মেডিকেল সেলস

আপনি এখানে এমন একটি ক্ষেত্রে কাজ করার সুযোগ পাবেন যেটি মানুষের বেঁচে থাকার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। বস্তুত, এটি সম্ভবত বাংলাদেশে মধ্যে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সেলসের চাকরি। এই ধরণের কাজে আপনাকে বিভিন্ন মেডিকেল অফিসে যেয়ে তাঁদেরকে আপনার বিভিন্ন পণ্য সরবরাহ করতে হবে। আপনার চিকিৎসা বিজ্ঞান সম্পর্কে ভালো জ্ঞান থাকতে হবে যাতে আপনি মেডিকেল পণ্য ব্যবসায়ীর কাছে সঠিক পণ্যটির বিজ্ঞাপন করতে পারেন। এই পণ্যের বিপণন সাধারণ ডাক্তার বা এমনকি দাঁতের ডাক্তারের কাছেও হতে পারে।

খাদ্যসামগ্রী বিপণন

আপনি যদি ঢাকার মধ্যে চাকরি খুঁজে থাকেন, বিশেষ করে সেলসের চাকরি খুঁজে থাকেন তবে আপনি খাদ্য ও পানীয় শিল্পে খোঁজ করে দেখতে পারেন। এই ক্ষেত্রটিতে কাজের অনেক বৈচিত্র্য রয়েছে। আপনি কোনো পাইকারি বিক্রির স্থাপনা বা খামার থেকে শুরু করে বিভিন্ন স্থানীয় দোকানে খাদ্যদ্রব্য বিপণনের কাজ করতে পারবেন। অপরদিকে, আপনি বড় কোনো ক্যাটারিং প্রতিষ্ঠানের প্রচারণার দায়িত্ব পালন করতে পারেন এবং বিভিন্ন অনুষ্ঠানে রান্না, খাবার সরবরাহ করার সুযোগ লুফে নিতে পারেন। আপনি বাড়ি বাড়ি গিয়ে বা অনলাইন প্ল্যাটফর্মে মানুষের কাছে খাদ্য সামগ্রী বিক্রি করতে পারেন।

সেলসের চাকরির সবচেয়ে বড় সুবিধা এই যে আপনি আপনার পছন্দের ক্ষেত্রে কাজ করতে পারবেন। আপনি যে কেবল মানুষের কাছে বাজারের পণ্য নিয়েই যেতে পারবেন তা নয় বরং আপনি আপনার জ্ঞানের নির্দিষ্ট পরিসরের মধ্যে সেটি করতে পারবেন।

সাবস্ক্রাইব করুন

No spam guarantee.

Comments

comments