প্রথমবার অল্প খরচে কীভাবে আপনার বাড়ি সাজাবেন?

Share

প্রথমবারের মতো কোনো একটি বাড়ি কেনা আপনার জন্য পরম আনন্দের বিষয়। তবে তা যত আনন্দেরই হোক না কেন, শেষ পর্যন্ত এটা এতই খরুচে একটা ব্যাপার হয়ে উঠতে পারে যে, আপনার মনমতো সব আসবাবপত্র দিয়ে এটাকে সাজাতে গিয়ে আপনি টাকার অভাবে পড়তে পারেন। যদি আগের বাসা থেকে সঙ্গে আনার মতো কোনো আসবাবপত্র আপনার না থাকে, তবে ব্যাপারটা আরও সমস্যার সৃষ্টিকরবে। সুখের বিষয় এই যে, আমাদের পরামর্শ মেনে চললে আপনাকে গৃহসজ্জা করতে গিয়ে আর্থিক সংকটে পড়তে হবে না। বরং আমাদের কাছ থেকে এমন অনেক কৌশল ও উৎস সম্পর্কে জানতে পারবেন, যা আপনার নতুন বাড়ীটিকে আপনার স্বপ্লের ঠিকানা হিসেবে গড়ে তোলার সময় আপনার খরচপত্র সীমিত রাখবে। অল্প খরচে আপনার প্রথম বাড়িটির গৃহসজ্জা করতে নিচের পরামর্শগুলো বিবেচনা করতে পারেন।
আগেভাগেই পরিকল্পনা করে নিন

আপনার নতুন বাড়ি সাজাতে গিয়ে প্রথমেই আপনাকে যে কাজটি করতে হবে তা হলো আগেভাগেই পরিকল্পনা করে নেয়া। আপনি যখন আগেই পরিকল্পনা করে রাখবেন তখন কাজটি করতে আপনার যা যা লাগবে সে সম্পর্কে আপনি অনেক ভালো ধারণা পেয়ে যাবেন, সেক্ষেত্রে আপনার প্রকৃতই যা যা দরকার সেসবের বাইরে অযথা কোনো জিনিস না কেনাটা নিশ্চিত হবে এবং আপনার অর্থ বেঁচে যাবে। শুরুতে বলা যায়, বাড়ির ডিজাইন ঠিক করার জন্য অনলাইন থেকে বিনামূল্যে কোনো সফটওয়্যার খুঁজে নেয়ার ব্যাপারটি বিবেচনা করার কথা, যা থেকে আপনি আপনার বাড়ির প্রতিটি কক্ষ কেমন হবে তা ঠিক করে নিতে পারবেন। এর ফলে যে সুবিধা হবে তা হলো, একটা জিনিস দেখে আপনার হয়ত মনে হলো যে আপনার বাড়ির জন্য তা সুন্দর মানাবে, তারপর দেখা গেল চটজলদি সেটা কিনে নিয়ে বাড়িতে আসলেন অবশেষে নিজের ভুল সিদ্ধান্তের জন্য আক্ষেপ করতে লাগলেন – এমন অবস্থা থেকে আপনি মুক্তি পাবেন।
আগবাড়িয়ে পরিকল্পনা করার সুবিধা শুধু এটাই নয় যে, কেনাকাটা করার আগেই আপনি বুঝে নিতে পারছেন বিশেষ কোনো আসবাবপত্র আপনার বাসায় কেমন মানাবে, বরং এ থেকে আপনার কোনটা প্রয়োজন আর কোনটা আপনি চান সে ব্যাপারে সিদ্ধান্তও নিতে পারবেন। মনে রাখবেন যে, আপনার মনের খেয়াল আর আপনার প্রকৃত প্রয়োজন সম্পূর্ণ ভিন্নও হতে পারে। প্রকৃতপক্ষে যখন হয়তো আপনার শোবার ঘরের আসবাবপত্র আর গৃহস্থালী সরঞ্জাম কেনা দরকার তখন হয়তো আপনি আপনার বাড়িটাকে বিদঘুটে করে তোলার জন্য আলোকসজ্জার একগাদা হাবিজাবি সরঞ্জাম কেনার চিন্তায় মেতে আছেন। আপনার বাজেটে উল্লেখ নেই এমনসব কেনাকাটা যদি আপনি সীমিত করতে পারেন তবে আপনি আপনার কাজে অগ্রগতির সাথে প্রচুর অর্থ সাশ্রয় করতে পারবেন।
সুলভমূল্যের দোকান এবং নিলামে বিক্রির জিনিস খুঁজুন

নতুন বাড়ি কেনার সাথে সাথে আপনি অবশ্যই দৃষ্টিনন্দন জিনিসপত্র কিনতে চাইবেন। তারপরও কোনো সুলভমূল্যের দোকান থেকে অথবা নিলামে বিক্রয়ের জিনিস কেনার ধারণাটি উড়িয়ে দেবেন না যেন। কিছু কিছু ক্ষেত্রে আপনি ব্যপক হ্রাসকৃত মূ্ল্যে প্রায় নতুনের মত দেখতে ব্যবহৃত জিনিস পেয়ে যাবেন। আপনি যেমন কেনার জন্য রান্নাঘরের তৈজসপত্র কিংবা শোবার ঘরের আসবাবপত্র খুঁজছেন তেমনি অনেকেই আবার কমদামে তাদের আধা-পুরাতন জিনিসগুলো ছেড়ে দিতে চাইছে, যার মানে হলো আপনার অনেকগুলো নগদ টাকা বেঁচে যাওয়া।

সুলভমূল্যের দোকান এবং নিলামে বিক্রির জিনিস থেকে আপনি অর্থসাশ্রয়ের পাশাপাশি হয়ত খুবই বিরল কোনো জিনিস, যেমন কোনো প্রত্নবস্তু অথবা প্রাচীন সৌখিনদ্রব্য পেয়ে যেতে পারেন। এসব জিনিস খোঁজা হয়তো আপনার লক্ষ্য নয় তবুও আপনার গৃহসজ্জায় কোনো প্রত্নবস্তু সজীব আবেদন সৃষ্টি করতে ও অনেক বেশি উপভোগ্য একটি আবহ সৃষ্টি করতে পারে।

বিনামূল্যের আসবাবপত্র হেলায় হারাবেন না

আপনি যদি অনলাইনে খোঁজাখুঁজি করেন তবে দেখবেন যে, লোকজন বিনামূল্যে আসবাবপত্রপত্র দিয়ে দিতে চাচ্ছেন। তাই বলে সেগুলোকে চট করেই ফালতু জিনিস ভেবে বসবেন না। ওখানে আপনি বিনামূল্যে অফিসের জন্য অনেক ব্যবহৃত আসবাবপত্র পেতে পারেন, যেগুলো এখনও বেশ ভালো অবস্থায় রয়েছে। উদাহরণস্বরূপ, আপনি হয়তো অফিসের জন্য ব্যবহৃত কোনো আসবাবপত্র পেয়ে যেতে পারেন যেটা দিয়ে আপনি আপনার বাড়িতে নিজের পড়ার ঘরটি সাজিয়ে নিতে পারবেন কিংবা আপনি পেয়ে যেতে পারেন এমন একটি মাইক্রোওয়েভ ওভেন যেটা কেউ একজনের আর প্রয়োজন নেই বলে ছেড়ে দিচ্ছে। অনেকেই স্বভাবগতভাবে প্রথমেই ধরে নেন যে, অনলাইনে যদি মুফতে কিছু পাওয়াই যায় তবে তা ফালতু মাল না হয়েই যায় না। আসলে ব্যাপার কিন্তু তা নয়; এই ফ্রি জিনিস খোঁজার চেষ্টাটি যদি আপনি বাদ না দেন তবে একসময় আপনি আশ্চর্য হয়ে দেখবেন যে গৃহসজ্জার জন্য কত কিছুই না আপনি পেয়ে গেছেন।

এক ধাক্কায় সব কিনে ফেলবেন না যেন

আপনি হয়তো আপনার বাড়িটি আসবাবপত্র দিয়ে ভরিয়ে ফেলার জন্য উদগ্রীব হয়ে আছেন, কিন্তু মনে রাখবেন আপনার আসলে একসঙ্গেই সমস্ত কিছু কেনার প্রয়োজন পড়বে না। হ্যাঁ, কিছু কিছু জিনিস আছে যা একেবারে না কিনলেই নয়, যেমন গৃহস্থালী সরঞ্জাম বা রান্নার তৈজসপত্র ইত্যাদি, তার মানে এই নয় যে আপনাকে এক্ষুণি সবকিছু কিনে ফেলতে হবে। উদাহরণস্বরূপ, আপনার বাড়িতে যদি অতিথি শোবার ঘর থাকে, যেটা আগামী কয়েক মাস আদৌ ব্যবহৃত হবে না, তবে সেটার সাজসজ্জা করতে গেলে তা আপনার বাজেট ঘাটতি হয়ে যাবে এবং মাস শেষে আপনার বিভিন্ন বিলপত্র পরিশোধে কঠিন অবস্থা দাঁড়াবে। তারচেয়ে বরং যখন যেটার প্রয়োজন দেখা দেবে কেবল তখনই সেটা কেনার চিন্তা করুন এবং আসবাবপত্র কেনার সময় সর্বদাই ভালো রকমের দরকষাকষি করার দিকে নজর রাখুন।
মূল্যহ্রাসের সুযোগে কেনাকাটা করুন

বাসা বদলের জন্য মানুষ সারা বছর ধরে অপেক্ষা করে বছরের শুরুর অথবা ফল সিমেস্টারে যখন স্কুলগুলোতে ক্লাস মাত্র শুরু হয় সেই সময়ের। একারণে, বছরের এই তিনমাস গৃহস্থালী জিনিস ও আসবাবপত্রের দাম বেশি থাকে। অন্যদিকে, আপনার বাড়ির জন্য মূল্যহ্রাসের জিনিস পেতে হলে স্প্রিং সিমেস্টারের সময়গুলোই উত্তম সময়। এই সময় অনেক ছাত্রছাত্রীই কলেজ ছাড়তে আরম্ভ করে, যার মানে হলো আপনি হ্রাসকৃত মূল্যে মাইক্রোওয়েভ ওভেন, খাট ও অন্যান্য দরকারী জিনিস পেতে পারেন। এই সময় ব্যবহৃত অফিস-আসবাবপত্র নিয়ে শুরু হওয়া মৌসুমি ব্যবসায়ীদের কাছেও আপনি খোঁজ নিয়ে দেখতে পারেন। নতুন আসবাবপত্র কেনার উত্তম সময় সম্পর্কে বুঝে নিতে পারলে আপনি অবশেষে হাজার হাজার না হোক শতশত টাকা তো বাঁচাতে পারবেন।
বিশাল বিশাল বিক্রয়কেন্দ্রগুলো এড়িয়ে চলুন

আপনার চারপাশে যেসব বিশালাকার জনপ্রিয় বিক্রয়কেন্দ্র দেখে থাকেন সেগুলোর মধ্যে কারো কারো কাছে আপনার পছন্দ করে নেয়ার মত সত্যিই অনন্য কিছু আসবাবপত্র থেকে থাকতে পারে, কিন্তু এ ধরনের জিনিস নিতে গেলে আপনাকে নিশ্চিতভাবে অনেক বেশি দাম দিতে হবে। অতএব, ঝোঁকের বশে বিশালায়তনের দোকানবিশিষ্ট কোনো বড় ব্যবসায়ীর কাছ থেকে কেনাকাটা করার লোভটি সামলিয়ে চলুন। তারচেয়ে বরং এখানে যেসব পরামর্শ দেয়া হলো সেগুলো ঠিক ঠিক মেনে চলুন তাতে আপনি টাকা বাঁচাতে ও আপনার বাজেটের মধ্যে খরচ সিমাবদ্ধ রাখতে পারবেন।
পরিশেষে কথা হলো, আপনি যদি শেষ পর্যন্ত সত্যিই অর্থসাশ্রয় করতে চান তবে জিনিস কেনার বেলায় এমন বিকল্পটিই বেছে নিন যেটাতে আপনার সারাজীবন চলে যাবে। ভবিষ্যতে যদি আপনি বাড়ি বদলও করেন, তখন আপনি সম্প্রতি যেসব আসবাবপত্র কিনেছিলেন এবং নিজের ঘরেই ব্যবহার করেছিলেন, সেসব আসবাবপত্রের অনেকগুলোই সঙ্গে নিয়ে যেতে পারবেন। যদি ঠিকভাবে করতে পারেন তবে দেখেশুনে চিরকালের জন্য জিনিস কিনলে তাতেও আপনি অনেক অর্থসাশ্রয় করতে পারবেন আর জিনিসগুলোও তাদের দামের বিচারে আপনার ব্যবহারকালীন সময়জুড়েই টেকসই থেকে যাবে।

নিউজলেটারে সাবস্ক্রাইব করুন

No spam guarantee.

Comments

comments