শুরু করুন আপনার নিজের কেটারিং ব্যবসা

Share

ব্যবসার জগতে ঝাঁপ দেওয়ার সিদ্ধান্ত অনেক লোকেই নিয়ে থাকে এবং খাবারের জগৎ তার মধ্যে একটি যেখানে বেশ কিছু উপায় রয়েছে যা পর্যালোচনা করা যেতে পারে। আপনার দক্ষতা বৃ্দ্ধি করা থেকে শুরু করে আসবাবপত্র কেনা পর্যন্ত আপনাকে বেশ কিছু ধাপ অনুসরন করতে হবে যদি আপনি ব্যবসায় দীর্ঘ মেয়াদী সফলতা নিশ্চিত করতে চান।

বিশেষজ্ঞের সহযোগীতাঃ

কেটারিং ব্যবসায় বিশেষজ্ঞ ধারনা ছাড়া বাজারে পরিচিতি পাওয়ার ক্ষেত্রে আপনি বেশ কিছু সমস্যার সম্মুক্ষীন হতে পারেন। ব্যবসা শুরুর সময় অর্থ পুঁজির পূর্বেই আপনাকে নিশ্চিত করতে হবে আপনার দলটি যেনো বিশেষজ্ঞ লোকের সমন্বয়ে গঠিত হয়। যেমন আপনার উপর যদি দায়িত্ব থাকে ব্যবসায় প্রসার এবং বিক্রি তাহলে আপনাকে এমন একটি দল নির্বাচন করতে হবে যা চমৎকার রান্না জানা লোকের সমন্বয়ে গঠিত। অপরদিকে, আপনিই যদি হোন একজন যার উপর রান্নাঘরে রান্নার দায়িত্ব তাহলে আপনার উপরিই ব্যবসার সফলতা বহুলাংশে নির্ভর করে।এইসব বিষয়ে বিস্তারিত পর্যালোচনা শুরুতেই আপনার ব্যবসাকে দারুন সম্ভাবনা দিবে।

অর্থের উৎস প্রস্তুত রাখুনঃ

অনেকের ক্ষেত্রেই নিজের কাছে যথেষ্ট পুঁজি থাকে না যা দিয়ে একটি ব্যবসা শুরু করা সম্ভব, তাই আপনার ঋন নেওয়ার প্রয়োজন হতে পারে।ব্যবসায় লোন আবেদনের সময় আপনার ব্যক্তিগত অর্থনৈতিক অবস্থার উন্নতির কাজ চালিয়ে যান।যেই সমস্ত ব্যক্তির ক্রেডিট স্কোর নিচের দিকে থাকে তাদের ক্ষেত্রে ঋন আবেদন সফল হয়ার সম্ভবনা কম থাকে।ঋনের পরিমানে আপনাকে সতর্ক হতে হবে। যখন আপনি আপনার ব্যবসার ভবিষ্যৎ নিয়ে নিশ্চিত নন, ছোট আকারে ব্যবসা শুরু করা সঠিক হবে যাতে আপনি অতিরিক্ত ঋনের চাপে না পরেন।

ব্যবসার জন্য উপযুক্ত স্থান নির্বাচন করুন

সম্ভাবনা আছে আপনার এলাকাতে অন্যান্য আরো কেটারিং সার্ভিস আছে। সুতরাং শুরুতেই আপনাকে খুঁজে বের করতে হবে কোন কোন জিনিসগুলো আপনাকে অন্যান্যদের থেকে আলাদা করবে। যেমন, আপনি কিছু নির্দিষ্ট ধরনের জাতি ভিত্তিক খাবারের ধরন চেষ্টা করতে পারেন অথবা আপনার বিশেষভাবে দক্ষ লোক আছে যারা নির্দিষ্ট ধর্মীয় সংস্কৃতির দিকে নজর রেখে বিভিন্ন প্রকারের খাবার তৈরী করতে সক্ষম। গ্রাহকদের সংখ্যা বৃ্দ্ধির লক্ষ্যে আপনি সবধরনের কেটারিং অফার করতে পারেন।কিন্তু খাবার এবং পানীয়সহ বিশেষ প্যাকেজ প্রদান করতে হবে যা আপনাকে বাকীদের থেকে আলাদা করবে।কেটারিং ব্যবসায় নিজের একটি অবস্থান করে নেওয়া জরুরী যদি আপনি প্রতিযোগীতায় টিকে থাকতে চান।

আপনার গ্রাহক নির্দিষ্ট করুনঃ

কেটারিং সার্ভিস কোথায় খুলবেন এই বিষয়ে যখন সিদ্ধান্ত নিবেন, আপনি একটি ধারনা পাবেন কারা আপনার সম্ভাব্য গ্রাহক হতে পারে। আপনি উপরের শ্রেনীর গ্রাহকদের জন্য কেটারিং করতে পারেন অথবা বাচ্চাদের জন্মদিনের অনুষ্ঠানের কেটারিংয়ে নিজেকে বিশেষায়িত করতে পারেন। ধরন যাই হোক না কেনো, আপনার নির্দিষ্ট গ্রাহকদের সম্পর্কে জানতে হবে।এরপর, আপনার সার্ভিস প্রসারের লক্ষ্যে আপনার নির্দিষ্ট গ্রাহকদের কথা মনে রেখে প্রচারনা চালাতে হবে। রঙ, ছবি এবং শব্দের ব্যবহারে প্রসারের জন্য প্রচারনা করতে পারেন যা গ্রাহকদের চাহিদাকে প্রধান্য দেয়।

মূল্য তালিকা তৈরী করুনঃ

আপনার গ্রাহকের কথা চিন্তা করে বিভিন্ন কেটারিংয়ের মূল্য তালিকা তৈরী করুন। খাবারের ধরন যদি হয় নিম্ন শ্রেনীর গ্রাহকদের জন্য তাহলে আপনি অধিক গ্রাহকের আগ্রহ আকৃষ্ট করতে পারেন। অপরদিকে, কেটারিং সেবা উঁচু শ্রেনীর গ্রাহকদের লক্ষ্য করে তৈরী করতে চাইলে অল্প সংখ্যক গ্রাহক এবং অর্ডার পাওয়া যাবে, কিন্তু প্রায় একই পরিমান আয় করা সম্ভব। আপনার এলাকায় মূল্য তালিকার পার্থক্যের দিকে লক্ষ্য রাখুন এবং যেকোন দিকে অতিরিক্ত দামের পার্থক্য পরিহার করুন যদিনা আপনার কাছে নির্দিষ্ট কারন কিংবা উদ্দেশ্য থাকে।

সহজ পথ্য খাবার সরবরাহে আপনার সামর্থ্য বিবেচনা করুনঃ

আজকাল অনেক লোকেই বিভিন্ন ধরনের পথ্য বিচার করে খাবার নির্বাচনে আগ্রহী হচ্ছে। যেমন, খাবারে এলার্জির ব্যপারটা ইদানিং সমাজে ভাল ভাবেই অবস্থান করছে এবং জৈব রস তৈরী করে এমন খাবার থেকেও অনেকে আস্তে আস্তে সরে আসছে। কিছু লোক শুধু মাত্র জৈ্ব খাবারিই গ্রহন করে থাকে এবং অন্যান্যরা যেকোন মূল্যে সাদা আটার রুটি খাওয়া থেকে বিরত থাকে।এখনও অনেকে শুধুমাত্র নিরামিষের দিকে আগ্রহী হচ্ছে। যখন আপনি আপনার গ্রাহক সুনির্দিষ্ট করছেন তখন সিদ্ধান্ত নিতে হবে আপনার কেটারিং সার্ভিস কি সকল গ্রাহককে উদ্দেশ্য করে কিংবা নির্দিষ্ট কিছু পথ্যের প্রয়োজনীয়তার ব্যপারটি লক্ষ্য করে অফার করা হবে। গ্রাহকদের পরিচয় করিয়ে দিতে হবে খাবারের ম্যানুতে বিকল্প ব্যবস্থাগুলো যদি তা আপনার ম্যানুতে অথবা প্রদর্শিত বিজ্ঞাপনে থেকে থাকে।

নির্দিষ্ট একটি স্থান নির্বাচন করুনঃ

যখন আপনি আপনার ব্যবসার শুরুতে আপনি হয়তো চাইবেন বাসা থেকেই সমস্ত কাজ চালাতে। এটি আপনাকে শুরুতেই কিছু কাস্টমার দিবে কিন্তু দীর্ঘ মেয়াদী ব্যবস্থায় এটি কার্যকর হবে না। চিন্তা করুন শত শত লোকের জন্য রান্নার ব্যবস্থা আপনার বাসার রান্না ঘর, রেফ্রিজারেটর এবং বিশুদ্ধ পানি ব্যবহার করে। অতিরিক্ত ব্যবহার থেকে শুধুমাত্র যন্ত্রগুলোই নষ্ট হতে পারে না, আপনি আপনার গ্রাহকদের চাহিদা মত সেবা প্রদানেও ব্যর্থ্য হতে পারেন। আপনার ব্যবসা যখন বৃ্দ্ধি পেতে থাকবে আপনার নিজস্ব আলাদা জায়গা ভাড়া কিংবা কিনে নিতে হবে।

প্রয়োজনীয় জিনিসগুলো একত্র করুনঃ

দরজা খোলার প্রয়োজনীয় কাজের শুরুতেই আপনাকে নিশ্চিত করতে হবে আপনার নির্বাচিত স্থানে সকল আসবাবপত্র এবং অন্যান্য জোগান একত্রিত আছে। কিছু জিনিস যেগুলো আপনার বানিজ্যিক আকারে কেনার প্রয়োজন হবে যেমন মাইক্রোওয়েভ ওভেন, টোস্টার, ফ্রাইং পেন এবং অন্যান্য রান্নার সামগ্রী। কেটারিংয়ের ম্যানু নির্ধারন করে নিলে আপনি আগে থেকেই বুঝতে পারবেন কি ধরনের খাদ্য সামগ্রী কেনার প্রয়োজন হবে। কিন্তু, সমস্ত ক্রিয়াকলাপ শুধুমাত্র রান্নাঘরেই শেষ হয় না। যদি আপনার গ্রাহকদের সাথে সাক্ষাতের প্রয়োজন হয় অথবা কোন অনুষ্ঠানের আয়োজন করতে চান যেখানে খাবার সরবরাহ করা হবে তাহলে আপনাকে মানানসই আসবাবপত্র এবং সাজসজ্জার ব্যবস্থা রাখতে হবে।

চিন্তা-ভাবনা করে কেনাকাটা করুনঃ

ব্যবসার আসল উদ্দেশ্য হচ্ছে অর্থ উপার্জন করা, এমন নয় যে শুরুতেই কিছু গ্রাহক পাওয়ার পূর্বেই আপনি আপনার পুজির অর্থ সব ব্যায় করে ফেলবেন।মাইক্রোওয়েভ বিক্রি হবে এমন অফার গুলো খুঁজে দেখতে পারেন, বিশেষ ছাড়ে অভেনস অথবা তুলনামূলক কম দামে রান্নারসামগ্রী খুঁজে পেতে পারেন।তবে মনে রাখবেন অল্প মূল্যের জিনিস খুঁজতে পন্যের গুনগত মানে যেনো ব্যাপক ঘাটতি না থাকে। আপনি অল্প দামে গুনগত মানসম্পন্ন পন্য পেতে পারেন যদি পরিমানে বেশী কিনতে আগ্রহী থাকেন। কেটারিং ফার্ম যাদে্র ইতিমধ্যেই অনেক গ্রাহক রয়েছে তাদের জন্য এটি একটি ভালো উপায়। যেই সমস্ত খাবার অনেক দিনেও নষ্ট হয়ে যায়না এরকম খাবার বেশী পরিমানে কিনে রাখতে পারেন।

ব্যবসার শুরুতেই একটি বড় অনুষ্ঠানের আয়োজন করুনঃ

এই ধারনাটি পরিষ্কার থাকা প্রয়োজন যে আপনার ব্যবসার এলাকাতে আপনাকে একটি অবস্থান তৈরী করে নেওয়া প্রয়োজন এবং আপনি এটি করতে পারেন একটি বড় উদ্বোধনী অনুষ্ঠয়ানের মধ্য দিয়ে। এমন একটি অনুষ্ঠান হতে পারে যেখানে এমন লোকজন উপস্থিত থাকতে পারে যারা আপনার ব্যবসার আগ্রহী ক্রেতা হতে পারে, এরফলে আপনি তাদের কাছ থেকে তাদের আগ্রহের ম্যানুগুলো নিতে পারেন। আপনি আপনার নির্বাচিত ম্যানুগুলোর স্যাম্পল প্রদর্শ্ন করতে পারেন। আপনার এলাকার বিভিন্ন অনুষ্ঠানে আপনার কেটারিং সার্ভিসের ম্যানুগুলো স্যাম্পল আকারে প্রদর্শন করতে পারেন। যেমন, বিয়ের অনুষ্ঠানের সামনে একটি বুথ বসাতে পারেন যেখানে আপনার ম্যানুগুলো প্রদর্শন করা যেতে পারে যা নিঃস্বন্দেহে অনেকের আগ্রহ তৈরী করবে।

বিজ্ঞাপন এবং প্রসারঃ

আপনার ব্যবসায় প্রসারের জন্য দিনব্যাপী কাজ করে যেতে হবে, এবং এখনিই হচ্ছে সময় কিছু মার্কেটিং কাজের ক্ষেত্র তৈরী করে ফেলা। প্রকৃ্তপক্ষে, সম্ভাব্য গ্রাহকদের সাথে নিয়মিত মিটিং করে আপনি ব্যবসায় দীর্ঘমেয়াদী লেনদেন নিশ্চিত করতে পারেন কিন্তু আপনাকে তার বাইরেও যাওয়ার চেষ্টা চালিয়ে যেতে হবে। সংবাদপত্র অথবা ম্যাগাজিনের মাধ্যমে আপনার ব্যবসার প্রসার করতে পারেন, ইন্টারনেটের সহযোগীতা নিয়েও প্রসারকার্য্য চালাতে পারেন। একটি সুনামধন্য অয়েবসাইট আপনার ব্যবসার সফলতার দড়জা খুলে দিতে পারে।সর্বশেষে, সামাজিক গনমাধ্যমগুলোতেও আপনাকে প্রচারের কাজ চালিয়ে যেতে হবে।

কেটারিং ব্যবসার জগৎ অত্যন্ত রোমাঞ্চকর কারন আপনার সুযোগ আছে গ্রাহকদের আনন্দের জগতে আমন্ত্রন করার যেখানে চমৎকার সব খাবার আয়োজন তৈরী আছে। এখানে যে সমস্ত টিপস্ দেওয়া হয়েছে তা অবশ্যই আপনার নতুন ব্যবসা শুরুর চেষ্টায় আপনাকে সঠিক পথ দেখাবে।

সাবস্ক্রাইব করুন

No spam guarantee.

Comments

comments