অফিসের জন্য কীভাবে সস্তায় ভাল মানের ব্যবহৃত আসবাবপত্র কিনবেন?

Share

আপনার অফিসের খরচ কমাতে আপনি হয়ত ব্যবহৃত আসবাবপত্র কেনার জন্য খোঁজখবর করে থাকবেন। ব্যবহৃত জিনিস কেনার মাধ্যমে পুরাতন জিনিস পুনর্ব্যবহারের মাধ্যমে আপনি পরিবেশ রক্ষায়ও ইতিবাচক ভূমিকা রাখতে পারেন।

ব্যবহৃত আসবাবপত্র কেনাটা আপনার কাছে কষ্টসাধ্য বলে মনে হতে পারে, বিশেষ করে এই ব্যাপারে আপনি যদি একেবারেই নতুন ক্রেতা হয়ে থাকেন। কোথায় গেলে সস্তায় পাওয়া যাবে, আসবাবপত্রের গুণগতমান কেমন, কোন ধরনের আসবাবপত্র দরকার, কেনাকাটা সংক্রান্ত এরকম অনেক কিছু সম্পর্কেই আপনি হয়তো নিশ্চিত হতে পারেন না। অনেক ক্ষেত্রে, লোকজন তাদের ঠিক কতটি আসবাবপত্র দরকার হবে সে সম্পর্কে পরিষ্কার ধারণা রাখেন না এবং আফিসের আসবাবপত্র কেনার সময় মনস্থির করতে পারেন না। এরকম ক্ষেত্রে ব্যর্থ হওয়াটাই নিশ্চিত। সবকিছু ঠিকঠাকভাবে করতে চাইলে সস্তায় ভাল জিনিসের খোঁজ করার আগে আপনাকে স্বতস্ফূর্তভাবে প্রতিটি ধাপ পরিকল্পনা করে নিতে হবে।

বাংলাদেশে অফিসের জন্য ব্যবহৃত আসবাবপত্র কেনার সহজ কিছু টিপস এখানে দেয়া হলো:

আপনার প্রয়োজনটি সঠিকভাবে চিহ্নিত করুন

সমগ্র প্রক্রিয়াটির জন্য এটি অতীব গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার। আপনি যেহেতু ব্যবহৃত আসবাবপত্রের খোঁজ করছেন অতএব, খুব সম্ভবত, আপনি সীমিত বাজেটে কাজ সারতে চাচ্ছেন। আপনার প্রয়োজনের আসবাবপত্রের তালিকাটি লিখে ফেলার মাধ্যমে আপনি শেষ পর্যন্ত এমনসব অপ্রয়োজনীয় আসবাবপত্র কেনা থেকে বেঁচে যাবেন যেসব আসবাবপত্র রাখার মত উপযুক্ত জায়গাই হয়তো আপনার অফিসে নেই।

আপনার কর্মীদলের সাথে বসে পরামর্শ করে নিন এবং আসবাবপত্রের সঠিক ধরণ এবং সংখ্যা কতটি হবে তা যাচাই করে নিন। একাধিক বৈঠকে বসে গভীর পর্যালোচনা শেষে আপনি আপনার দরকারি জিনিসপত্রের একটি তালিকা তৈরি করে ফেলতে পারবেন। বিশেষ কোনো জিনিসের ব্যাপারে আপনি যদি নিশ্চিত হতে না পারেন তবে আপনি বেশি জরুরি এবং কম জরুরি জিনিসের ভিন্ন ভিন্ন দু’টি তালিকা তৈরি করতে পারেন।

আপনি যদি আপনার অফিসের জন্য দরকারি আসবাবপত্র সম্পর্কে কোনো ধারণা না করতে পারেন, তবে সেসবের সঠিক বাজারদরসহ উপলভ্য অন্যান্য বিকল্পগুলো সম্পর্কে প্রচুর ঘাঁটাঘাটিঁ করে দেখতে পারেন। আপনি যদি সময় না পান তবে আপনার ব্যবসার জন্য অতি জরুরি আসবাবপত্র সংগ্রহের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিতে অনলাইনে ঘেঁটে দেখতে পারেন।

আপনার বাজেট নির্ধারণ করুন

আপনার প্রয়োজন ঠিক করে নেয়ার পর, আপনার খরচ নিয়ন্ত্রণের জন্য একটি বাজেট বরাদ্দ করুন। আপনি কতটা খরচ করবেন তা আগে থেকেই ঠিক করে রাখলে আপনার পছন্দের পরিসরও সীমিত রাখতে পারবেন। আপনার বাজেটকে ছোট ছোট ভাগে বিভক্ত করুন এবং বিভিন্ন ধরনের আসবাবপত্রের জন্য নির্দিষ্ট পরিমাণ বরাদ্দ রাখুন। আপনি যদি ইতোমধ্যেই বাজার যাচাই করে থাকেন তবে বাজারদর সম্পর্কে আপনি ভাল ধারণা পেয়ে থাকবেন, সেক্ষেত্রে বিভিন্ন ধরনের আসবাবপত্রের জন্য পৃথক পৃথক বাজেট বরাদ্দ করতে আপনার সুবিধা হবে।

আসবাবপত্রের কার্যকারিতার ব্যাপারে কোনো আপোস নয়

আসবাবপত্রের চেহারা ও শৈলী যদিও গুরুত্বপূর্ণ তবুও আপনি যেসব জিনিস কিনতে যাচ্ছেন সেসবের কার্যকারিতার ব্যাপারে কোনো আপোস করবেন না। আপনি যে কোনো জিনিস কিনতেই অর্থ ব্যয় করুন না কেন, তা যেন সবসময়ই আফিস কর্মচারিদের সুযোগ সুবিধা প্রদানের নিরিখে সফলভাবে মূল্যবান প্রমাণিত হয়।

এ নিয়মের একটি ব্যতিক্রম রয়েছে যেখানে আসবাবপত্রের শৈলী ঠিক এর কার্যকারিতার মতই সমান গুরুত্বপূর্ণ আর সেটি হলো আপনি যখন আপনার অভ্যর্থনা কক্ষটি সাজাবেন অথবা আপনার অফিসের এমন কোনো স্থান সাজাবেন যেখানে প্রায়শই আপনার গ্রাহকদের আনাগোনা হয়ে থাকে। এসব স্থান সাজানোর ক্ষেত্রে শিল্পবোধ একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে, কারণ নান্দনিক আবহ সৃষ্টির দ্বারা আপনার গ্রাহকদের উপর স্থায়ী প্রভাব ফেলাটা জরুরি দরকার।

মানের ব্যাপারে আপোস নয়

আপনি কোন উৎস থেকে আপনার আসবাবপত্র সংগ্রহ করছেন সেটি কোনো ব্যাপার নয়, বরং ক্রয় করার আগে সেই আসবাবপত্রের মান যাচাই করে নেয়াটাই বেশি গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার। শেষমেষ যদি আপনি খারাপ মানের জিনিস কিনে ফেলেন তাহলে এটি আপনার কর্মচারিদের উৎপাদনশীলতার উপর প্রভাব ফেলবে এবং আপনার গ্রাহকদেরকেও আপনার ব্যবসা সম্পর্কে নেতিবাচক ধারণা প্রদান করবে।

অনলাইনে সস্তায় ভাল আসবাবপত্রের খোঁজ করে দেখুন

Bikroy.com বাংলাদেশের শীর্ষস্থানীয় একটি শ্রেনিগত বিজ্ঞাপনের অনলাইন সাইট। এই ওয়েবসাইটটি কোনো মধ্যস্বত্বভোগীর সংশ্লিষ্টতা ছাড়াই বিক্রেতা ও ক্রেতাদের মধ্যে সরাসরি যোগাযোগ স্থাপন করে দেয়। এভাবে সম্ভ্যাব্য আসবাবপত্র বিক্রেতাদের সাথে সরাসরি যোগাযোগের মাধ্যমে আপনার সস্তায় ভাল জিনিস পাওয়ার সুযোগ অনেকগুণ বেড়ে যাবে। প্রথাগত ক্রয়বিক্রয় মধ্যস্বত্বভোগী ও ডিলারদের দ্বারা পরিচালিত হয়, যারা তাদের কাজের জন্য অর্থ নিয়ে থাকে। এর বিপরীতে Bikroy.com সকল ব্যবহারকারির জন্য বিনামূল্যে পরিষেবা প্রদান করে থাকে।

এটি আপনাকে আপনার নিকটস্থ এলাকা থেকে এবং আপনার অফিস থেকে যাতায়াতের সুবিধা রয়েছে এমনসব স্থান থেকেই ব্যবহৃত আসবাবপত্র খুঁজে নেয়ার সুযোগ করে দেবে। এতে করে আপনার অনেক সময় সাশ্রয় হবে যা আপনি আপনার মূল্যবান কাজে অন্যত্র ব্যয় করতে পারবেন।

আপনি যখন অনলাইনে কেনাকাটা করবেন তখন আপনি যে জিনিসটি কেনার কথা ভাবছেন সেটির কোনো ছবি যদি সেখানে না দেয়া থাকে তবে আপনি বিক্রেতার কাছে সেটির একটি ভালমানের ছবি চেয়ে পাঠান। এর দ্বারা আপনি যাচাই করে নিতে পারবেন যে, আপনার পক্ষে জিনিসটি সরেজমিনে গিয়ে দেখে আসার উপযুক্ত কিনা। আসবাবপত্র বিক্রেতার সাথে সাক্ষাৎ করার সময় সতর্কতা অবলম্বন করাটা জরুরি। কোনো একটি নিরাপদ স্থানে তাদের সাথে আপনার দেখা করা উচিত। জিনিসটি আপনি সযত্নে পরীক্ষা নিরীক্ষা করে দেখুন এবং নিশ্চিত হোন যে সেটি ভাল অবস্থায় রয়েছে। জিনিসটি যদি অব্যবহারযোগ্য হয়ে থাকে তবে সেটি বাদ দিন এবং অন্য আরেকটির খোঁজ করুন।

অনলাইনে শ্রেণিগত বিজ্ঞাপনের তালিকাগুলো বাস্তব সময় বা রিয়েল টাইমে হালনাগাদ হয়ে থাকে। যার ফলে, আপনি যা খুঁজছেন তা যদি সেই মূহুর্তে না পান তবে আপনার হতাশ হওয়ার কারণ নেই। আপনি যে ধরনের বৈশিষ্ট্যসম্পন্ন আসবাবপত্র খুঁজছেন আকর্ষণীয় দামে সেই ধরনের জিনিস পেতে মাঝে মাঝেই আপনাকে সেই ওয়েবসাইটে ঢুঁ মারতে হবে।

অন্য একটি বিকল্প হলো, শ্রেনিগত বিজ্ঞাপনের ক্ষেত্রে বাংলাদেশের শীর্ষস্থানীয় অনলাইন সাইট Bikroy.com-এ আপনার চাহিত আসবাবপত্রের পরিষ্কার বিবরণ দিয়ে বিজ্ঞাপন প্রকাশ করা। আপনার যে ধরনের আসবাবপত্র দরকার তার পরিষ্কার বিবরণ তুলে ধরুন। আপনার বিজ্ঞাপনের পাশে আপনি আপনার বাজেটের পরিমাণও লিখে দিতে পারেন, অথবা যেসব বিক্রেতা আপনাকে প্রশ্ন করে আপনার বাজেট জানতে চাইবে শুধুমাত্র তাদের কাছে তা প্রকাশ করতে পারেন। সম্ভ্যাব্য বিক্রেতাগণ যাতে আপনার সাথে যোগাযোগ করতে পারেন সেজন্য সেখানে অবশ্যই আপনার ফোন নাম্বার ও ই-মেইল ঠিকানা দিয়ে রাখুন।

ব্যবহৃত আসবাবপত্রের দোকান ঘুরে দেখুন

ব্যবহৃত জিনিস বিক্রয় করে থাকে এমনসব দোকান ঘুরে দেখতে পারেন। তবে মনে রাখবেন যে, এখানে দাম সামান্য বেশি পড়বে। আপনার শহরে কোথায় ব্যবহৃত আসবাবপত্রের দোকান আছে তা যদি নিশ্চিত না জানেন তবে আপনি একটি বিজনেস ডিরেক্টরিতে তা দেখে নিতে পারেন। আপনি অনলাইনেও বিজনেস ডিরেক্টরি পাবেন। আপনার পার্শ্ববর্তী এলাকাতেও ব্যবহৃত আসবাবপত্রের দোকানের খোঁজ করে দেখতে পারেন। সেগুলোর ঠিকানা লিখে রাখুন এবং সুযোগমত ঘুরে দেখুন।

কোনো জিনিসের দাম যদি আপনার কাছে অতিরিক্ত বেশি বলে মনে হয়, তবে আপনার পছন্দকৃত জিনিসটির দাম আপনার বিবেচনা অনুযায়ী যা হওয়া উচিত বলে মনে হয় আপনি বিক্রেতাকে সেই দামটিই বলুন। বিক্রেতা যদি বিক্রি করতে আগ্রহী হন তবে আপনি কেনার কাজটি সেরে ফেলতে পারেন। অন্যথায়, আপনার দাম ও মানের সমন্বয় অনুযায়ী সঠিক জিনিসটি খুঁজে না পাওয়া পর্যন্ত অন্য দোকানগুলোতে অনুসন্ধান চালাতে থাকুন।

আরেকটি বিকল্প হলো, কোনো ব্যবহৃত আসবাবপত্রের দোকান থেকে নিলামে ক্রয় করা। আপনার যদি অনেক বেশি সংখ্যায় আসবাবপত্রের প্রয়োজন হয় সেক্ষেত্রে আপনি বেশ খানিকটা দরদকষাকষি করে নিতে পারবেন।

সাবস্ক্রাইব করুন

No spam guarantee.

Comments

comments