নতুন অথবা ব্যবহৃত গাড়ি কার কাছ থেকে কিনবেন – ডিলারের নিকট থেকে, না ব্যক্তির নিকট থেকে?

Share

গাড়ি কেনার কথা উঠলে অনেকেই ডিলারের কাছ থেকে গাড়ি কেনা আর কোনো ব্যক্তির কাছ থেকে কেনার মধ্যেকার লাভালাভের ব্যাপারটি বিবেচনা করে থাকেন। উভয়টিরই সুবিধা অসুবিধা দুই-ই রয়েছে, আর সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে হলে আপনাকে সবগুলো বিকল্প খতিয়ে দেখতে হবে।

ডিলারের কাছ থেকে কেনা

আপনি যদি আপনার পরবর্তী গাড়িটি কোনো একজন ডিলারের নিকট থেকে কেনার সিদ্ধান্ত নিয়ে থাকেন তবে এমন কিছু বিষয় আছে যা আপনাকে জানতে হবে। প্রথমত, ডিলারেরা কমিশনের ভিত্তিতে কাজ করে থাকে, তাই উপলভ্য গাড়িগুলোর মধ্যে সবচেয়ে দামীটি আপনাকে গছিয়ে দিতে পারাটাই হচ্ছে তাদের মূল লক্ষ্য। কিছু কিছু ক্ষেত্রে ডিলারেরা শুধুই আরো কিছুটা বেশি মুনাফা করার উদ্দেশ্যে আপনি যেমনটা চান কিংবা আপনার যেমনটা প্রয়োজন তার চাইতে বেশি মূল্যের গাড়ি ক্রয়ের ব্যাপারে আপনাকে প্ররোচিত করতে পারে।

বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই ডিলারেরা তাদের ক্রেতাদের নিকট যথেষ্ট সৎ‍ থাকে। তারা সঠিক গাড়িটিই দেখাতে চায় যাতে করে আপনি ভবিষ্যতে তাদের কাছ থেকে আরও গাড়ি কেনেন এবং তাদের ব্যবসা সম্পর্কে আপনার বন্ধুবান্ধব ও পরিবার পরিজনের কাছে সুনাম করেন। এর অর্থ হলো এই যে, একজন ডিলার আপনার জন্য এমনভাবে কাজ করবে যাতে করে আপনার প্রয়োজনিয় উপযুক্ত সেরা গাড়িটিই আপনি পেতে পারেন।

ডিলারের নিকট থেকে কেনার আরেকটি সুবিধা হলো এর সহজপ্রাপ্যতা। ডিলারদের ব্যবসায়িক কর্মকান্ড সাধারণত দিনের একটি নির্দিষ্ট সময়জুড়ে চালু থাকে, ফলে যখনই আপনি গাড়ি কেনার জন্য মনস্থির করেন তখনই শুধু তাদের বিক্রয়কেন্দ্রে গিয়ে হাজির হলেই হলো। বিক্রয়কর্মীরা বিক্রয়যোগ্য গাড়িগুলোর ব্যাপারে খুবই অভিজ্ঞ হয়ে থাকে এবং আপনি যেই গাড়িটি কিনতে আগ্রহী সেটি সম্পর্কে তারা আপনাকে অনেক বেশি তথ্য দিয়ে সাহায্য করতে পারে। কোনো গাড়ির ডিলারের নিকট থেকে গাড়ি কেনার সুবিধাসমূহের মধ্যে এই সুবিধাটি অন্যতম।

ডিলারদের কাছ থেকে নতুন মডেলের গাড়ি আর ব্যবহৃত গাড়ি কেনার তুলনা

নতুন গাড়ি আর ব্যবহৃত গাড়ি কেনার ক্ষেত্রে ডিলারদের সাহায্য নেয়াটা বেশ কাজে লাগে। নতুন গাড়ি কেনার কথা উঠলে ডিলারদের কাছে উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানের তরফ থেকে বিশেষমূল্য এবং অফার থাকে, যা আপনাকে সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে সাহায্য করতে পারে। এই প্রকারের কেনাকাটা আপনাকে আপনার পরবর্তী গাড়িটি কেনার ক্ষেত্রে অর্থ সাশ্রয়ে সাহায্য করে এবং আপনাকে আপনার গাড়ির জন্য সঠিক বিনিয়োগ করতে সাহায্য করে।

আপনি যখন কোনো ডিলারের কাছ থেকে একটি নতুন গাড়ি কেনেন, তখন সাধারণত এতে ওয়ারেন্টি বা নিশ্চয়তা দেয়া থাকে, যাতে নির্দিষ্ট কয়েক বছরের জন্য সামগ্রিক কিংবা আংশিক বিক্রয়োত্তর সেবার সুবিধা পাওয়া যায়। বাংলাদেশেও অনেক গাড়ির ডিলার তাদের বিক্রয়কৃত গাড়ির বিক্রয়োত্তর সেবার সুবিধা দিয়ে থাকে, তাই ডিলারদের মাধ্যমে কাজ করলে একবারেই আপনার সবকিছু হয়ে যাচ্ছে, যেখানে আপনি দরকারের সময় আপনার গাড়িটিকে সহজেই মেরামত করিয়ে নিতে পারবেন।

যদি আপনি অর্থ সাশ্রয় করতে চান এবং সাথে সাথে একটি ভালো গাড়িও পেতে চান, তবে কোনো ডিলারের কাছ থেকে ব্যবহৃত গাড়ি কেনাটাই লাভজনক। ডিলাদের কাছে প্রায়ই বেছে নেয়ার মত অনেক গাড়ি থাকে আর সেখান থেকে আপনি আপনার প্রয়োজনীয় উপযুক্ত সেরাটিই বেছে নিতে পারেন। পরের চালানে যেসব গাড়ি আসবে সেগুলোর বেশিরভাগই হয়ত ডিলারেরা নিবে। আপনার পরবর্তী ব্যবহৃত গাড়ির প্রয়োজনে ডিলারদের কাছে গেলে আপনি বাছাই করে নেয়ার স্বাধীনতা পাবেন এবং সেগুলোর কোনো একটি কেনার সিদ্ধান্ত নেয়ার পূর্বে বেশ কয়েকটিকে যাচাই করে নেয়ার সুযোগ পাবেন।

ব্যক্তির নিকট থেকে ব্যবহৃত গাড়ি কেনা

আপনি যখন কোনো ব্যক্তির কাছ থেকে একটি ব্যবহৃত গাড়ি কিনবেন তখন হয়ত আপনি আপনার পরবর্তী গাড়িটির ব্যাপারে ভালোরকমের দরদাম করার সুযোগ পাবেন। একজন ব্যক্তি সম্ভবত দ্রুত বিক্রয় করে ফেলতে পারলেই বেঁচে যায় এবং খুব সম্ভবত, লেনদেন সেরে কেটে পড়ার জন্যই আপনাকে তুলনামূলক কম দামে দেবে। কেনার পর থেকে নিয়ে গাড়িটি নিজের তত্ত্বাবধানে থাকার কারণে সে ব্যক্তি গাড়িটি সম্পর্কে অনেক বেশি জানাবেন। তার কাছে গাড়িটির সার্ভিস রেকর্ড, মেনটেনেন্স লগ এবং যন্ত্রাংশ ক্রয়ের রশিদ থেকে থাকতে পারে। ব্যক্তির নিকট থেকে কেনার অর্থ হলো আপনি আপনার পরবর্তী গাড়িটির মূল্যের ব্যাপারে দরকষাকষি করার অনেক বেশি সুযোগ পাবেন।

যাহোক, ব্যক্তির নিকট থেকে ব্যবহৃত গাড়ি কেনার খারাপ দিকও রয়েছে। এই ব্যক্তি আপনাকে কোনো বিনিয়োগ সুবিধা দিতে পারবে না, তাই আপনাকেই হয়তো নিজের বিনিয়োগ খাটাতে হবে অথবা আপনার পরবর্তী গাড়িটির জন্য নগদ অর্থ খরচ করতে হবে। ব্যক্তিদের সাথে কাজ করটাও অসুবিধাজনক, কারণ গাড়িটি দেখতে যেতে কিংবা যাচাই করে নিতে হলে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই আপনাকে তাদের সময়মাফিক নিজের সময় বের করে নিতে হবে। তারা প্রায়শ:ই বিক্রির জন্য মরিয়া হয়ে থাকে এবং গাড়ির খুঁত বা যান্ত্রিক ত্রুটিসমূহের ব্যাপারে পুরোপুরি সৎভাবে কথা না-ও বলতে পারে। বাজে গাড়ি কেনা এড়াতে হলে সবচেয়ে ভালো উপায় হলো একজন মেকানিককে সাথে নিয়ে যাওয়া যে কিনা গাড়ির সব যন্ত্রাংশ যাচাই করতে এবং গাড়িটি ভালরকমের চালু অবস্থায় আছে কিনা তা নিশ্চিত পারবে।

ব্যক্তির জন্য গাড়ি বিক্রির আনুষাঙ্গিক খরচপত্র কম থাকে, ফলে তারা সম্ভবত, ডিলারদের মতো প্রশাসন ব্যয়ের জন্য অতিরিক্ত মূল্য ধরবে না। প্রকৃতপক্ষে, ডিলারেরা প্রায়ই প্রেপ ফি, মার্কআপ এবং অন্যান্য ফি যুক্ত করে থাকে, যার ফলে গাড়িটি ব্যয়বহুল হয়ে পড়ে। ব্যক্তির ক্ষেত্রে শুধু মূল্যটুকু পরিশোধ করে গাড়ির স্বত্তাধিকার পরিবর্তন করিয়ে নিলেই আপনি আপনার গাড়িটি হাতে পেয়ে যাবেন।

গাড়ি ক্রয়ের ক্ষেত্রে সেরা দরদামের কথা যদি হয় তবে আপনি হয়ত ‘ব্যবহৃত নাকি নতুন’ কেনা উচিত তা নিয়ে ভাবতে থাকবেন। বিক্রয়যোগ্য গাড়িগুলো দেখার সময় মূল ব্যাপার হলো এমন একটি নেয়া, যেটা আপনার প্রয়োজন পূরণ করে এবং আপনার বাজেটের উপযুক্ত হয়। আপাতদৃষ্টিতে, ব্যবহৃত গাড়িকে বিপুল অর্থ সাশ্রয়ী বলে মনে হয়, কিন্তু অন্তহীন মেরামত খরচ দীর্ঘমেয়াদে আপনার বাজেট অতিক্রম করিয়ে ছাড়বে। গাড়ি যতই পুরাতন হতে থাকবে ততই তার মেরামত খরচ বাড়তে থাকবে, তাই ব্যবহৃত গাড়ি কেনার পরিকল্পনা করার সময় একথাটি মনে রাখবেন।

নতুন গাড়ি ক্রয়ে দৃশ্যত: প্রায়ই বেশি খরচ পড়ে, কিন্তু গাড়ির জন্য কোনো প্রকার মেরামত খরচ ছাড়াই আপনি বহু বছর চালাতে পারবেন। বাংলাদেশে কিছু কিছু গাড়ির ডিলার নতুন গাড়ির উপর ১০ বছর পর্যন্ত বিভিন্ন মেয়াদে এমনসব ওয়ারেন্টি দিয়ে থাকে যার মধ্যে রয়েছে তেল পরিবর্তন, টায়ার রোটেশন এবং নিয়মিত মেরামত। আপনার পরবর্তী গাড়ি ক্রয়ের সময় অর্থ সাশ্রয়ের জন্য এইসব ওয়ারেন্টির সুবিধা নিন।

আপনি যদি সম্পূর্ণ নতুন কোনো গাড়ির কথা ভাবেন তবে ডিলারদের কাছে যাওয়ার অর্থ হলো আপনার নির্ধারিত খরচের মধ্যে সবচেয়ে ভালো গাড়িটি নেয়ার ব্যাপারে আপনি বিশেষজ্ঞ পরামর্শ পাবেন। আর ব্যক্তির কাছ থেকে ব্যবহৃত গাড়ি কেনার অর্থ হলো, আপনি ভালো দাম পাবেন আর ডিলারের কাছে যাওয়ার ঝামেলা থেকে মুক্ত থাকবেন।

আজই আপনার জীবনযাত্রা আর বাজেটের সাথে মানানসই গাড়িটি খুঁজে নিন।

সাবস্ক্রাইব করুন

No spam guarantee.

Comments

comments