নতুন ডিজিটাল এস এল আর ব্যবহারকারীদের জন্য ১০ টি পরামর্শ

Share

অর্থ রোজগারের জন্য হোক বা আনন্দের জন্যই হোক, যারা ডিজিটাল ক্যামেরা কিনতে চাইছেন তাঁদের প্রত্যেকেরই ছবি তোলার পূর্বে বেশ কিছু বিষয় জেনে রাখা প্রয়োজন। নীচে এসকল বিষয়গুলোর মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ দশটি উল্লেখ করা হল।

১. সাধারণ লেন্সে জুমের সাথে সাথে অ্যাপার্চারের পরিবর্তন হবে

যখন কোনো ডিএসএলআর (DSLR) কিনবেন তখন আপনি এর সাথে একটি কিট লেন্স পাবেন। এই লেন্সটি খুবই কম দামের এবং খুব বেশী ভালো মানের নয় কিন্তু ছবির তোলার জন্য তা যথেষ্ট। আপনাকে মনে রাখতে হবে আপনি যখনই জুমের পরিবর্তন করবেন তখনই এর অ্যাপার্চার সেটিং পরিবর্তিত হয়ে যাবে। তাই, আপনার প্রয়োজনমত জুম করার পর সেই অনুযায়ী অ্যাপার্চার পরিবর্তন করে নেবেন।

২. আপনার প্রতিটি লেন্সের জন্য একটি ইউভি (UV) ফিল্টার কিনুন

ইউভি ফিল্টারের অনেক উপকারিতা রয়েছে। প্রথমত, এটি অতিবেগুনী রশ্মির কারণে ছবির ডিস্টরশনের হাত থেকে বাঁচাবে। দ্বিতীয়ত, এটি আপনার লেন্সটিকে দাগের হাত থেকে রক্ষা করবে। ইউভি (UV) ফিল্টারের দাম লেন্সের চেয়ে অনেক কম, তাই আপনার প্রতিটি লেন্সের জন্য ইউভি (UV) ফিল্টার থাকা উচিৎ।

৩. র (RAW) ফাইল ফরম্যাটে ছবি তুলুন

ডিএসএলআর (DSLR) ক্যামেরা সম্পর্কে ভালোভাবে বুঝতে হলে আপনাকে র (RAW) ফরম্যাটে ছবি তুলতে হবে। এই ফরম্যাটে ডিএসএলআর (DSLR) দিয়ে ছবি তোলার সময় ছবিতে যে প্রসেসিং ইফেক্ট যুক্ত হয় তা দূর করা সম্ভব। যেমন, আপনার ক্যামেরা সেটিংয়ে যদি কোনো ত্রুটি থাকে তবে আপনি র এডিটর (RAW editor) দিয়ে তা দূর করতে পারবেন।
৪. সঠিক ফোকাস নিশ্চিত করুন

ছবি তোলার সময় সঠিক ফোকাস সেট করা গুরুত্বপূর্ণ। অধিকাংশ সময়ই সেটি সম্ভব হয় না এবং ছবি যতটা স্পষ্ট হওয়া উচিৎ ততটা হয় না। বিশেষ করে দ্রুত ছবি তুলতে গেলে এটি সমস্যার কারণ হয়ে দাড়াতে পারে। প্রথম ছবিটি তুলে জুম ইন করে দেখুন ফোকাস ঠিক আছে কিনা।

৫. বেশী পরিমানে ছবি তুলতে দ্বিধাবোধ করবেন না

নিখুঁত ছবি তোলার চাবিকাঠি হচ্ছে প্রচুর ছবি তোলা। এমন অনেক মুহূর্ত রয়েছে যেখানে লেন্সের মধ্যে দিয়ে তাকানোর পর আপনার লক্ষ্যবস্তু প্রত্যাশিত স্থানে থাকে না। তাই বাজে ছবি তোলা থেকে রক্ষা পেতে প্রায় আধা ডজন বা তারও বেশী ছবি তুলতে হবে। যদিও আপনি এর অধিকাংশই বাদ দেবেন তথাপি এটি আপনার ভালো ছবি তোলার সম্ভাবনা বাড়িয়ে দেবে।
৬. তুলনামুলক কমদামী ৫০ মিমি এফ/১.৭ বা এফ/১.৮ লেন্স কিনুন

আপনি যেই ডিএসএলআর (DSLR)-ই কিনুন না কেন সবগুলোর জন্যই ৫০ মিমি এফ/১.৭ বা এফ/১.৮ লেন্স রয়েছে। এই লেন্সগুলোর দাম কম, কিন্তু এগুলো ডেপথ অব ফিল্ড এবং লো-লাইট সেটিংস নিয়ে কাজ করার সুযোগ করে দেবে যা আপনি অন্য লেন্সে পাবেন না।

৭. সব ধরণের সেটিং ও মোড ব্যবহার করে ছবি তুলুন

আপনি কোনো সেটিং বা মোড সম্পর্কে না জানলে প্রত্যেক মোড ও সেটিং ব্যবহার করে কয়েকটি ছবি তুলুন এবং দেখুন কোন ছবিটি আপনার ভালো লাগছে এবং সেই সেটিং বা মোডটি ভবিষ্যতে আরও ব্যবহার করতে পারবেন।

৮. শাটার ও অ্যাপার্চার মোড ব্যবহার করুন

যারা নতুন ডিজিটাল ক্যমেরা ব্যবহারকারী তাঁদের জন্য ম্যানুয়াল শুটিং মোডের ব্যবহার শেখা কঠিন হতে পারে। এই কাজটি আরও সহজে করার জন্য শাটার প্রায়োরিটি (Shutter Priority) এবং অ্যাপার্চার (Aperture Priority) প্রায়োরিটি মোড ব্যবহার করতে পারেন। এই মোড দুটি সেমি-অটো ও সেমি-ম্যানুয়াল মোড, এবং উভয় মোডই আপনাকে ক্যামেরার সর্বোত্তম ব্যবহার শিখতে সাহায্য করবে।
৯. স্বাভাবিক ছবি তোলার জন্য হোয়াইট ব্যালান্স কাজে লাগান

ডিজিটাল ক্যামেরায় হোয়াইট ব্যালান্স নামে এক ধরণের সেটিং রয়েছে, যা যেকোনো ধরনের আলোক অবস্থায় ছবিতে স্বাভাবিক রঙ প্রদান করবে। এর মধ্যে অটো এবং ফ্ল্যাশ থেকে শুরু করে ডে-লাইট এবং ক্লাউডি পর্যন্ত সবই রয়েছে। কোনটি ভালো কাজ করে তা দেখার জন্য বিভিন্ন আলোক অবস্থায় এগুলো পরীক্ষা করে দেখুন।

১০. পুরনো ব্যবহার করা ডিএসএলআর কেনার কথা বিবেচনা করতে পারেন

আপনার প্রথম ডিএসএলআর ক্যামেরা কেনার সময় টাকা বাঁচানোর ভালো উপায় হচ্ছে কমদামী ক্যামেরা বা হ্রাসকৃত মুল্যের ক্যামেরা ক্রয় করা। এতে আপনি অনেক টাকা সাশ্রয় করতে পারবেন যা আপনি লেন্স ও অন্যান্য যন্ত্রপাতি কেনার জন্য খরচ করতে পারবেন।

যারা ডিএসএলআর ফটোগ্রাফি শুরু করতে চান তাঁরা ভালো পরামর্শ পেতে Froknowsphoto.com-এ ভিজিট করুন।

সাবস্ক্রাইব করুন

No spam guarantee.

Comments

comments