২০১৯ সালের আসন্ন সেরা ফ্ল্যাগশিপ মোবাইল ফোনগুলো

২০১৯ সালের ফ্ল্যাগশিপ মোবাইল ফোনগুলো
Share

নিঃসন্দেহে ২০১৮ সালটা স্মার্টফোনের দুনিয়ায় এক অসাধারণ বছর ছিল বলা চলে।

কিন্তু এখন মনে হচ্ছে ২০১৯ সাল হয়ত হতে যাচ্ছে আরো ভালো!

কেন?

আসলে অনলাইনে নানা রকম অফার আর নতুন সব স্মার্টফোন  মডেলের উঁকিঝুকি, বেফাঁস তথ্য, আর ঘোষণা দেখার পর… আমরা ২০১৯ সালে নিশ্চিত ভাবে রিলিজ পেতে যাচ্ছে, এমন দারুণ সব স্মার্টফোন মডেল সম্পর্কে  জানতে পেরেছি!

আসন্ন নতুন স্মার্টফোনগুলোর মধ্যে সেরা কয়েকটি সম্পর্কে স্পেনের বার্সেলোনায় অনুষ্ঠিত ৩ দিন ব্যাপী মোবাইল ওয়ার্ল্ড কংগ্রেসে ঘোষণা করা হয়েছে। তবুও, চলতি বছরের শেষের দিকে আরো অনেক নতুন খবর আসা বাকি রয়েছে।  আজকের প্রতিবেদনে আমরা ইতোমধ্যে যা কিছু জানতে পেরেছি সেগুলো আপনাদের সাথে শেয়ার করবো।

২০১৯ সালের নতুন স্মার্টফোনগুলো হতে যাচ্ছে আরো স্লিক এবং স্মার্ট, ২০১৮ সালের মডেলগুলোয় থাকা বিরক্তিকর অমসৃণ কিনারা গুলো ফেলে মসৃণ করা হয়েছে, এছাড়াও যোগ হয়েছে নানা রকম অপশন ও ফিচার। আগের মডেলের সাথে কেবল সামান্য কিছু বাড়তি ফিচার যোগ না করে বেশ কিছু ব্র‍্যান্ডের ফোন আসছে সম্পূর্ণ নতুন ডিজাইন ও ফাংশন নিয়ে।

তাহলে এ বছর নতুম স্মার্টফোনগুলোয়  কি আশা করতে পারেন, আর সবার হাতে হাতে সবচেয়ে চাহিদাসম্পন্ন স্মার্টফোন কোনটি হতে যাচ্ছে? আপনি কি জানার জন্য তৈরি?  

যে দ্রুত গতিতে এ সময়ের  স্মার্টফোন গুলো বিবর্তিত হচ্ছে, তাতে যখনই আপনি নতুন একটি স্মার্টফোন হাতে পাচ্ছেন, তখনই পরের নতুন মডেলটি বাজারে ছাড়ার প্রস্তুতি শুরু হয়ে যায়। আর প্রতিবারই পরের মডেলগুলো আরো বেশি আকর্ষণীয় ও নজরকাড়া হয়!

যাই হোক, পৃথিবীর সেরা মোবাইল ব্র‍্যান্ডগুলোর নতুন সব স্মার্টফোন মডেলগুলো আর তাদের ফিচারগুলো জানার আগে চলুন চটজলদি  দেখে নিই ২০১৯ সালের সবচেয়ে আকাংক্ষিত ফোনগুলোর মধ্যে কয়েকটি :

পাঠকদের জন্য লক্ষনীয়: এই ফোনগুলোর নাম কোন বিশেষ তালিকা বা ক্রম হিসেব করে লেখা হয় নি!

ফ্লাগশিপ মোবাইল ২০১৯

হুয়াওয়ে পি৩০ ও পি৩০ প্রো

হুয়াওয়ে পি৩০ ও পি৩০ প্রো

২০১৮ সালে ব্যবসায় অসামান্য সাফল্য এই চাইনিজ প্রস্তুতকারক কোম্পানিটিকে বিশ্বের অন্যতম সেরা মোবাইল ব্র‍্যান্ডগুলোর একটি করে তুলেছে। হুয়াওয়ে পি২০, মেট ২০, এবং তাদের যার যার প্রো ভার্সন মডেলগুলো বৈশ্বিক বাজারে এক বলিষ্ঠ অবস্থান দখল করে নিয়েছে।

২০১৯ সালে হুয়াওয়ে এই শক্তিশালী ও জনপ্রিয় স্মার্টফোন মডেলগুলোর পরবর্তী ভার্সন নিয়ে আসতে যাচ্ছে, যেগুলো হলো হুয়াওয়ে পি৩০ ও পি৩০ প্রো। আশা করা যাচ্ছে যে এই মডেলগুলোতে মেট ২০ ফোনের স্পেসিফিকেশনগুলো আবারো কাজে আসবে। হুয়াওয়ে এর নতুন ফ্ল্যাগশিপ ফোনে খুব সম্ভবত ৭ ন্যানোমিটার কিরিন ৯৮০ প্রসেসর ফিচার করা হবে। আর পেছনে সম্ভবত ট্রিপল অর্থাৎ তিনটি অথবা কোয়াড অর্থাৎ চারটি ক্যামেরা থাকবে। উঁচু হয়ে থাকা ক্যামেরার ফিচারটি পানিরোধি ও লীকের সমস্যার কথা মাথায় রেখে সেই যায়গায় “হোল পাঞ্চ” বা সেঁটে বসানো ক্যামেরা লাগানো হতে পারে!

এই ফোনগুলো রিলিজ হওয়ার প্রত্যাশিত তারিখ হচ্ছে ২০১৯ সালের মার্চ মাস।

আসছে হুয়াওয়ে মেট এক্স ফোনটি এর ফোল্ডিং ডিজাইনের পদ্ধতির বাইরেও ৫জি ফিচার দিয়ে হাজারো মানুষের নজর কাড়তে পারে। ফোনটির ফোল্ডিং বা ভাজ করার ডিজাইন এই বছরে স্মার্টফোন ডিজাইনের ভবিষ্যত হিসেবে বহুল ভাবে পরিচিত, এবং চলতি বছরের যেকোন সময়ে রিলিজ পেতে পারে।

ওয়ানপ্লাস ৭ ও ওয়ানপ্লাস ৫জি ফোন

ওয়ানপ্লাস ৭

ওয়ানপ্লাস স্মার্টফোনগুলো বরাবরই সকলের আকর্ষণের কেন্দ্রে অবস্থান করে আসছে! বাজারের অন্যতম আকর্ষণীয় ও ফিচারে ভরা সেরা মোবাইল ব্র‍্যান্ডগুলোত একটি এই ওয়ানপ্লাস।  

নতুন ওয়ানপ্লাস হ্যান্ডসেটটি কি নামে ডাকা হবে সেটা নিয়ে খুব বেশি কোন কথা বা ঘোষণা দেয়া হয় নি, হয়ত ধারাবাহিকতা বজায় রেখে ওয়ানপ্লাস ৭ -ই হবে। কিন্তু তার বাইরেও এই ফোনটির স্পেসিফিকেশনগুলো সম্ভবত সুপরিচিত ও জনপ্রিয় প্রসেসর, কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৮৫৫ দ্বারা চালিত হবে। এছাড়াও ওয়ানপ্লাসের নির্মাতারা একটি পৃথক ৫জি ফোন রিলিজ করার কথা নিশ্চিত করেছেন, স্মার্টফোনের জগতে প্রথম বারের মত।

বার্সেলোনার মোবাইল ওয়ার্ল্ড কংগ্রেসে ওয়ানপ্লাস তাদের নতুন ডিভাইস সম্পর্কে একটি ডেমো প্রদর্শন করেছেন, কিন্তু সেই ডিভাইসটির ডিজাইন এখনও গোপন রাখা হয়েছে। অতএব আমরা নিশ্চিত ভাবে বলতে পারি যে ২০১৯ সালে আমরা ওয়ানপ্লাসের পক্ষ হতে দুটো বিশাল মাপের রিলিজ পেতে যাচ্ছি।

মটোরোলা মোটো রেজার

মটোরোলা মোটো রেজার

এক সময়ের সাড়া জাগানো মটোরোলা সকলের মনের আশা পূরণ করে ২০১৯ সালেই আবার ফিরে আসতে যাচ্ছে!

জ্বি হ্যাঁ… একটি সম্পূর্ণ নতুন মোটো রেজার এর কিছু ভিনটেজ ফিচার আর আকর্ষণীয় ডিজাইন নিয়ে প্রত্যাবর্তন করতে যাচ্ছে খুব শীঘ্রই। ইন্ডাস্ট্রির বিভিন্ন আড্ডা ও আলাপ থেকে আমরা যতটুকু বুঝেছি, সে অনুযায়ী নতুন মোটো রেজার হবে একটি ফোল্ডিং সেট আর এতে থাকবে ২টি ডিসপ্লে। একদিকে যেমন ফোনটির ডিজাইনের একটা নির্দিষ্ট অংশে আগের ফোনটির অবয়ব ও অনুভব পাওয়া যাবে, অন্যদিকে নিঃসন্দেহে এতে থাকবে মডার্ন প্রযুক্তির বেশ খানিকটা টুইস্ট।

মোটো রেজার ফোনটির সম্ভাব্য ডিজাইন, স্পেসিফিকেশন, দাম এবং রিলিজ হওয়ার তারিখ সম্পর্কে আমরা বলতে গেলে তেমন কিছুই জানি না। কিন্তু চলতি বছরের যেকোন সময়ে রিলিজ পাওয়ার সময় মটোরোলা সকলকে তাক লাগিয়ে দিবে, এটাই আমাদের আশা।

গুগল পিক্সেল ৩ লাইট, পিক্সেল  ৩ লাইট এক্সএল, পিক্সেল ৪

গুগল পিক্সেল ৩

শোনা যাচ্ছে গুগল ২০১৯ সালে তাদের পিক্সেল ৩ মডেলটির একটি লাইট ভার্সন রিলিজ করবে।

একদিকে যেমন পিক্সেল ৩ লাইট ফোনটি এর ফ্ল্যাগশিপ বড় ভাইয়ের বেশির ভাগ স্পেসিফিকেশনই ধারণ করবে, অন্যদিকে এটি গ্রাহকদের জন্য একটি সাশ্রয়ী মূল্যের অপশন বা বিকল্প হয়ে উঠবে। সম্ভবত এতে প্রসেসর হিসেবে কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৬৭০ কিংবা ৭১০ ফিচার করবে কিন্তু যথেষ্ট সাশ্রয়ী মূল্যে নির্ভেজাল ‘অ্যান্ড্রয়েড পাই’ এতে অবশ্যই থাকবে।

গুগলের পক্ষ থেকে রিলিজের কোন অফিশিয়াল তারিখ পাওয়া যায় নি। কিন্তু ইন্ডাস্ট্রির সেরা আন্দাজ অনুযায়ী ২০১৯ সালের বসন্ত মৌসুমে রিলিজ হতে পারে গুগল পিক্সেল ৩ লাইট, পিক্সেল ৩ লাইট এক্সএল কিংবা হয়ত পিক্সেল ৪ ও!

অ্যাপল আইফোন ১১

অ্যাপল আইফোন ১১

ইতিহাসের কথা ভেবে দেখলে, অ্যাপলের পরবর্তী আইফোনটি হয়ত আইফোন ১১ নামে ডাকা হবে, কিন্তু নিশ্চিত ভাবে কখনই কিছু বলা যায় না!

একটি ৫জি ফোনের ব্যাপারে অ্যাপল তাদের চিন্তা ভাবনার কথা কাউকে জানায় নি, অন্তত এখন পর্যন্ত না। অতএব, সবকিছু স্বাভাবিক থাকলে ২০১৯ সালে কয়েকটি নতুন মডেল আসতে পারে, ডিজাইনে খুব সামান্য বা তেমন কোন পরিবর্তন ছাড়াই। কিন্তু এটা সম্ভবত স্ট্যান্ডার্ড, লাইট এবং প্লাস ভার্সন হিসেবে ভিন্ন ভিন্ন মডেল সামনে নিয়ে আসবে, যেমনটা ইদানিং ট্রেন্ডে পরিণত হয়েছে।

আইফোনের নতুন ফিচার নিয়ে নানা রকম অনুমান ও ঘোষণা সব প্লাটফর্মে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দু হয়ে থাকবে। কিন্তু পরবর্তী আইফোন নিয়ে অন্যতম বড় ধারণাগুলোর মধ্যে একটি হলো এর ট্রিপল লেন্স সহ ক্যামেরা, আরো ছোট নচ, আরো বেশি মজবুত স্যাফায়ার গ্লাসের তৈরি স্ক্রিন প্রোটেকশন, এবং লাইটনিং কেবল থেকে ইউএসবি সি তে ফিরে আসার মত একটি বিতর্কিত পদক্ষেপ। এই শেষের ধারণা করা ফিচারটি বিপুল পরিমাণ ভক্তদের কিছুটা অসন্তুষ্ট করতে পারে!

স্যামসাং এর একাধিক রিলিজ!

স্যামসাং গ্যালাক্সি ফোল্ড

স্যামসাং গ্যালাক্সী নোট ১০

যেখানে এস১০ এবং এস১০+ ফোনগুলো এখনও মার্কেটে নতুন, যেখানে বর্তমানে কোরিয়ান টপ মোবাইল ব্র্যান্ডটি শীঘ্রই এ বছরে তার দ্বিতীয় ফোনটি রিলিজ করতে যাচ্ছে, তাদের নতুন গ্যালাক্সী নোট ১০। শোনা যাচ্ছে  যে তারা ঠিক অ্যাপলের মতই তাদের ৩.৫ মিলিমিটার হেডফোন জ্যাকটি বাদ দিয়ে দিয়েছে এবং সাইজে আগে চেয়েও বড় হয়ে যেতে পারে…

আশা করা যাচ্ছে, এটি রিলিজ হওয়ার সবচেয়ে দ্রুততম সম্ভাবনা হচ্ছে ২০১৯ সালের আগস্ট মাস।

স্যামসাং গ্যালাক্সি ফোল্ড

স্যামসাং গ্যালাক্সি ফোল্ড এখন শুধুমাত্র কোন ধারণা বা স্বপ্ন নয়। বরং এটি হচ্ছে চড়া দামের এক অসামান্য বাস্তব!

একটি ফোল্ডিং ফোন সেট হওয়ার পাশাপাশি এটি একটি ফোল্ডিং ট্যাবলেটও বৈকি! সফটওয়্যার ব্যবহারের ব্যাপক স্বাধীনতা থাকায় আপনি এই ফোনটি ব্যবহার করে আপনি অনেক কিছুই করতে পারবেন। এই ফোনটির স্পেসিফিকেশন এবং দাম দু’টোই অনেক বেশি। তার উপর রয়েছে ৩টি অ্যাপ একসাথে চালানো ও মাল্টি-টাস্কিং করা এবং বাইরে থেকে ভেতরের স্ক্রিনে নিরবচ্ছিন্ন ডিসপ্লে হিসেবে কাজ করার ক্ষমতা।

স্যামসাং গ্যালাক্সি এস১০ ৫জি

এছাড়াও স্যামসাং তাদের প্রথম ৫জি ফোনের ঘোষণা দিয়েছে, যার নাম স্যামসাং গ্যালাক্সি ৫জি। এই ফোনটির স্পেসিফিকেশনে গ্যালাক্সি এস১০+ এর সব গুলো বৈশিষ্ট্য রয়েছে এবং রয়েছে আরো বেশি কিছু। এতে রয়েছে আরো বড় ডিসপ্লে এবং আরো ভালো ছবির জন্য ফোনের পেছনের দিকে চারটি ক্যামেরা।

স্যামসাং গ্যালাক্সি এস১০ই

অ্যাপলের আইফোন এক্সআর-কে সরাসরি টক্কর দিতে স্যামসাং বাজারে নিয়ে আসছে স্যামসাং গ্যালাক্সি এস১০ই। এটিতে আপনারা পাবেন স্যামসাং গ্যালাক্সি এস১০ এর সব রকম অভিজ্ঞতা, কিন্তু এ সব কিছুই পাচ্ছেন আপনাদের জন্য বেশ সাশ্রয়ী মূল্যে। এতে রয়েছে কিছুটা ছোট, আরো ফ্ল্যাট, স্লিম এইচডি প্লাস ডিসপ্লে এবং একটি ডুয়াল রিয়ার ক্যামেরা।

এলজি জি৮ থিংক এবং ভি৫০ থিংক

এলজি জি৮ থিংক

২০১৯ সালের ফেব্রুয়ারী মাসে মোবাইল ওয়ার্ল্ড কংগ্রেসে এলজি তাদের জি৮ ফোনটি উদ্বোধন করে। ডিসপ্লে তে সাউন্ড এবং নানা রেঞ্জের ফাংশনের জন্য জেসচার কন্ট্রোল সুবিধা সহ এই মডেলটি এলজি জি৭ এর চেয়ে আরো বেশি উন্নত। অতএব এখন ফোন হাতে না নিয়েই করে ফেলা যাবে অনেক কিছু!

এলজি এর পরবর্তী স্মার্টফোনটি হলো ভি৫০ থিংক, যা ভি৪০ এর স্পেসিফিকেশনের সাথে ৫জি প্রযুক্তির সম্মেলনে তৈরি এক দারুণ সংযোজন। আরো বড় একটি ব্যাটারীর সাথে এই ফোনের স্পেসিফিকেশনে ফিচার করা হয়েছে স্ন্যাপড্রাগন ৮৫৫ প্রসেসরের কোর আপডেটগুলো।

নোকিয়া ৯ পিওরভিউ

নোকিয়া ৯ পিওরভিউ

নোকিয়া ৯ পিওরভিউ অবিশ্বাস্য ভাবে ৫ টি রিয়ার ক্যামেরা ফিচার করতে যাচ্ছে একটি চোখে পড়ার মত ফটোপ্রাফিক স্মার্টফোন তৈরি করার জন্য। তাদের আধুনিক ফ্ল্যাগশিপ ডিভাইসটির জন্য লাইটিং এর উদ্দেশ্যে বিভিন্ন প্রযুক্তি ব্যবহার করা এই ফোনের স্পেসিফিকেশনগুলো বিশেষ ভাবে এর ফটো তোলার ক্ষমতার উপর নির্ভরশীল।

মার্কেটে প্রতিযোগিতার দিক দিয়ে বেশ কয়েক বছর ধরেই নোকিয়া তেমন একটা বেশি ভালো পারফর্ম করতে পারছেনা। কিন্তু এই নতুন ডিভাইসটি সাথে নিয়ে এই বছর নোকিয়া নিশ্চিত ভাবে একটি ভালো অবস্থান নিতে পারবে।

ইতিকথা

প্রতি বছরই বিশ্বের সেরা বিখ্যাত মোবাইল ব্রান্ডগুলো তাদের ফ্ল্যাগশিপ ফোনগুলো নিয়ে আরো ভালো কিছু দেবার জন্য কাজ করে যাচ্ছে!

২০১৯ সালও এর ব্যতিক্রম নয় এবং প্রায় সব গুলো বড় স্মার্টফোন প্রস্তুতকারকদের দ্বারা তৈরি কিছু চমৎকার ও আকর্ষণীয় ফোন খুব শীঘ্রই বাজারে আসতে যাচ্ছে। এদের মধ্যে স্যামসাং, অ্যাপল, এলজি, এইচটিসি, হুয়াওয়ে, অনার, শাওমী, ওয়ানপ্লাস, সনি, মটোরোলা, নোকিয়া সহ আরো অনেকেই।

আগামী ১২ মাসে নতুন ৫জি প্রযুক্তি এই স্মার্টফোন কোম্পানিগুলো তাদের ফোনগুলোয় নতুন ৫জি প্রযুক্তি প্রয়োগ করবেন বলে আমরা আশা করি। এর পাশাপাশি ভবিষ্যতমুখী ডিসপ্লে এর ভেতরে থাকা ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর তারা ব্যবহার করবেন, এমনকি বিকল্প সাশ্রয়ী মডেলগুলোতেও এই প্রযুক্তি প্রয়োগ করা হবে। এই প্রবন্ধটি সম্পর্কে আরও ভালো আইডিয়া পেতে দেখে নিতে পারেন আসন্ন সব স্মার্টফোনে সেরা যে ফিচারগুলো না থাকলেই নয়

পারফর্মেন্সে প্রায় ৪৫% এর বেশি উন্নতির সাথে নানা প্রসেসরের মধ্যে বেশির ভাগএন্ড্রয়েড কোম্পানিগুলোর প্রথম পছন্দ হইয়ে উঠবে  স্ন্যাপড্রাগন ৮৫৫। অন্যদিকে অ্যাপল, হুয়াওয়ে এবং স্যামসাং তাদের নিজস্ব বিকল্প গুলোকে শক্তিশালী করে তুলবেন বিপুল পরিমান পাওয়ার ও পারফর্মেন্স নিয়ে।

স্মার্টফোনগুলো হয়ে উঠবে আরো দ্রুততর, স্ক্রিনগুলো হয়ে উঠবে বৃহত্তর, আর আশা করছি এদের ব্যাটারীগুলো আরো লম্বা সময় টিকবে। কিন্তু এখানে একটা ব্যাপার পরিষ্কার ভাবে সত্য যে আর্টিফিশিয়াল ইনটেলিজেন্স বা কৃত্রিম বুদ্ধমত্তা এবং মেশিন লার্নিং ইত্যাদি একই সাথে সফটওয়্যার ও হার্ডওয়্যার উভয় ক্ষেত্রে প্রয়োগ করা গেলে স্মার্টফোনগুলো হয়ে উঠবে আরো বেশি স্মার্ট!

ক্যামেরার সংখ্যা আস্তে আস্তে বেড়েই চলবে, লেন্সগুলো হয়ে উঠবে আরো শক্তিশালী, আর হয়ত দিনের ও রাতের ছবি দেখতে হবে প্রায় হুবহু একই রকম! অ্যাপলের নচ ক্যামেরা থেকে শুরু করে স্যামসাং এর হোল-পাঞ্চ, ইনফিনিটি ও ডিসপ্লে সহ আরো নানা রকম ডিজাইনের পরিবর্তন নিশ্চিতভাবে সবার জন্য একটি বিস্ময়ের ব্যাপার হবে।

Bikroy.com -এ ভিসিট করুন আজই, আর আজকের দিনে লেটেস্ট মোবাইল ফোন, ট্যাবলেট, ল্যাপটপ এবং বিক্রয় এর নির্ভরযোগ্য প্ল্যাটফর্মে সমস্ত ইলেকট্রনিক গ্যাজেট ইত্যাদি খুঁজে নিন।

২০১৯ সালে আপনি আপনার পকেটে কোন ফোনটি নিয়ে চলাফেরা করার চিন্তা করছেন?

আপনার পছন্দগুলো জানান আমাদের কমেন্ট সেকশনে!

সাবস্ক্রাইব করুন

No spam guarantee.

Comments

comments