কীভাবে বেছে নেবেন আপনার বাসার জন্য সেরা হোম সিকিউরিটি সিস্টেম

হোম সিকিউরিটি সিস্টেম
Share

একা কিংবা পরিবার নিয়ে যেভাবেই থাকেন না কেন, আপনার বাসায় একটি ভালো সিকিউরিটি সিস্টেম ইনস্টল করা থাকলে বিভিন্ন রকম বিপদ ও দুর্ঘটনা থেকে নিরাপদ থাকা সম্ভব। ঢাকার মত একটি ঘনবসতিপূর্ণ শহরে সারাটা দিন মানুষ এদিক সেদিক ছুটোছুটি করতেই থাকে। এর মধ্যে আপনার অজান্তেই বাইরের কোনো লোক বা দুর্বৃত্তরা আপনার ঘরে এসে ঢুকে পড়াটা অস্বাভাবিক কিছু নয়। এরকম পরিস্থিতিতে একটি ভালো সিকিউরিটি সিস্টেম আসলেই আপনাকে বড় ধরণের বিপদ থেকে বাঁচাতে পারে।

একটি হোম সিকিউরিটি সিস্টেম আপনাকে যে শুধুমাত্র অনাকাঙ্ক্ষিত মানুষ ও দুর্বৃত্তদের হাত থেকেই বাঁচায় তা না। কিছু কিছু সিস্টেম আপনার বাসায় ঘটতে পারা অনিবার্য বিপদ, যেমন- গ্যাস লিক, আগুনের উৎপত্তি ইত্যাদি আগে থেকেই শনাক্ত করার উদ্দেশ্যে ডিজাইন করা হয়েছে। সম্প্রতি কয়েক বছরে আমরা অনেকগুলো ভয়াবহ আগুন লাগার ঘটনায় ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হতে দেখেছি। তাই এটা মানতে কারো বাকি নেই যে অনুশোচনার চেয়ে আগে থেকেই নিরাপদ থাকা ভাল। একটূ সচেতন হয়ে এই ধরণের অ্যালার্মের পেছনে বিনিয়োগ করলে বিপদ মারাত্মক আকার ধারণ করার আগেই সিগন্যাল চলে যাবে। এতে করে বিপদটিকে কার্যকর ভাবে মোকাবিলা করা কিংবা পরিবার ও কাছের মানুষদের নিয়ে নিরাপদ স্থানে চলে যাওয়া সহজ হয়; একই সাথে অনেকগুলো জীবনও বেঁচে যায়।

শুধু তাই নয়। নতুন ও আরো উন্নত প্রযুক্তির ছোঁয়ায় সিকিউরিটি সিস্টেমগুলো সম্পূর্ণ বাসার অটোমেশন করার পথে দ্রুতগতিতে এগিয়ে চলেছে। অ্যামাজন আর অ্যালেক্সার মত স্মার্ট হোম ডিভাইসগুলো ইতোমধ্যে বাজারে চলে এসেছে। সেই দিন আর খুব বেশি দূরে নয়, যখন আমরা সকলেই এই সব ডিভাইস ব্যবহার করে নিজ নিজ বাসাগুলোকে সম্পূর্ণ ভাবে অটোমেশন এবং নিরাপদ করতে পারব।

আজকের প্রতিবেদনে আমরা মার্কেটে থাকা বিভিন্ন ধরণের হোম সিকিউরিটি সিস্টেমের তালিকা তৈরি করেছি। একই সাথে আমরা আপনার বাসার জন্য সঠিক সিস্টেম খুঁজে পেতে ও স্মার্ট উপায়ে বিনিয়োগ করতে সাহায্য করবো।

একটি হোম সিকিউরিটি সিস্টেমে আপনি যা যা দেখবেন

যেসব প্রশ্ন নিজেকে করতে হবে

কোন সিকিউরিটি সিস্টেমে বিনিয়োগ করবেন, সেই সিদ্ধান্ত নেয়ার সময় আপনাকে প্রথমে এটা খুঁজে বের করতে হবে যে কোন সিস্টেম আপনার ও আপনার বাসার জন্য সঠিক। আজকের দিনে মার্কেটে অগণিত ডিভাইস এবং সরঞ্জাম অহরহ পাওয়া যাচ্ছে, যার প্রত্যেকটিই নিজ নিজ নির্দিষ্ট উদ্দেশ্যের জন্য কাজ করে। নিশ্চয়ই সবগুলো সিস্টেম আপনার প্রয়োজনের সাথে মিলবে না, অতএব আপনার প্রথম কাজ হচ্ছে আগে নিচের প্রশ্নগুলোর উত্তর জেনে নেয়া:

আপনার বাজেট আসলে কেমন?

আগেই হিসাব করে দেখুন আপনি ঠিক কতটা খরচ করতে পারবেন। এর থেকে আপনি সহজেই বুঝতে পারবেন যে আপনি একটি সম্পূর্ণ প্যাকেজ নিতে পারবেন, নাকি শুধুমাত্র বেসিক প্রয়োজন বুঝে বিনিয়োগ করবেন।

সিস্টেমটি আপনার ঠিক কেন প্রয়োজন?

আপনি কি আপনার বাসাকে অনাকাঙ্ক্ষিত দুর্বৃত্ত আর বিপদ থেকে নিরাপদ রাখার জন্য একটি সিস্টেম খুঁজছেন? নাকি শুধুমাত্র বাসা অটোমেশন করার পরিকল্পনায় আছেন?

আপনার বাসার বর্তমান সামগ্রিক পরিস্থিতি কি রকম?

আপনার বাসাটি কি তুলনামূলকভাবে আধুনিক ডিজাইনের, নাকি একটু আগেকার দিনের মত? এই তথ্যটি আপনার বাসার সীমাবদ্ধতাগুলোকে বুঝতে সাহায্য করবে, যাতে করে আপনি এমন সিস্টেম খুঁজতে পারেন যা আপনার বাসার পরিস্থিতির সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ।

আপনি সিস্টেমটি ঠিক কীভাবে ইনস্টল করতে চাচ্ছেন?

আপনি কি কোনো পেশাদার লোকের হাতে সিকিউরিটি সিস্টেমটি সেট-আপ করাতে চান? নাকি সেটা নিজে নিজেই ইনস্টল করতে আগ্রহী? দুই ধরণের ডিভাইসই বাজারে রয়েছে।

মার্কেটে যে সব প্রচলিত সিস্টেম পাওয়া যায়

বর্তমানে দেশের বাজারে ৩টি প্রধান টাইপের হোম সিকিউরিটি সিস্টেম পাওয়া যাচ্ছেঃ

স্মার্ট হোম অটোমেশন

এই সিস্টেমটি আপনার বাসাকে আধুনিক ও অটোমেশন করার জন্য কাজ করে। এটি আপনাকে বাসার বেশ কিছু ফিচার অটোমেশন বা স্বয়ংক্রিয়  করে তোলে, যেমন- লাইটিং, তাপমাত্রা ও অন্যান্য ইলেকট্রনিক্স ডিভাইস নিয়ন্ত্রণ, একই সাথে দূর থেকে দরজা লক কিংবা আনলক করার সুবিধাও দিতে পারে। স্মার্ট হোম ইন্ট্রিগেশন সিস্টেম আপনাকে আপনার বর্তমান সিকিউরিটি সরঞ্জামগুলোর ক্ষমতাকে আপনার ঘরের স্মার্ট ডিভাইসগুলোর সাথে সংযোজন করে একটি সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রিত এবং কাস্টমাইজ যোগ্য সিস্টেম তৈরি করে দেয়, শুধুমাত্র আপনার সুবিধার কথা মাথায় রেখে।

সিকিউরিটি সরঞ্জাম

এই গ্রুপে রয়েছে প্রচলিত সব রকম হোম সিকিউরিটি ডিভাইস, যেমন- চোর ধরার অ্যালার্ম, সিসিটিভি ক্যামেরা এবং মোশন বা গতিবিধি সেন্সর, যা আপনার বাসায় অনাকাঙ্ক্ষিত উপস্থিতির জানান দিতে পারে। এতে আরো রয়েছে কলিং বেল ক্যামেরার মত সরঞ্জাম, যা আপনাকে সদর দরজার সামনে কে এসেছে তা দেখতে সাহায্য করে। পাশাপাশি গৃহকর্মীদের জন্য ক্যামেরার মাধ্যমে বাসার বাইরে বা কাজে থাকাকালীন সময়ে বাসায় আপনার সন্তানদের বা প্রিয় পোষা প্রাণীদের উপর নজর রাখতে ও তাদের খেয়াল রাখতে সাহায্য করবে।

এই গ্রুপের মধ্যে আরো উন্নত সিস্টেমগুলোতে রয়েছে স্পটলাইট ক্যামেরা, যা ঘরে অনাকাঙ্ক্ষিত উপস্থিতির সাথে সাথে স্পটলাইটের মাধ্যমে চারপাশ আলোকিত করে দেয়। যেসব বাড়ির বাইরে বাড়তি জায়গা, যেমন- বাগান বা ড্রাইভওয়ে রয়েছে, সেখানে এই সিস্টেমগুলো অনেক বেশি কার্যকরী। আপনি আমাদের বাজারে বিভিন্ন রকম নিরাপত্তা ক্যামেরা পাবেন। 

পরিবেশ পর্যবেক্ষণ ও নিয়ন্ত্রণ

এই ধরণের সরঞ্জাম বিশেষভাবে সেই সব পরিবারের জন্য ভালো, যারা একটু পুরনো ধাঁচের বাড়িতে বসবাস করেন। এই ক্যাটাগরিতে রয়েছে স্মোক অ্যালার্ম, ফায়ার অ্যালার্ম এবং লিক ডিটেক্টর, যা ঘরে গ্যাস কিংবা কার্বন মনোক্সাইড ছড়িয়ে পড়া সম্পর্কে জানান দেয়। এতে আরো রয়েছে ফ্লাড বা জলাবদ্ধতা সেন্সর, যা আপনার বাসায় জমে যাওয়া পানির স্তর সম্পর্কে সতর্ক করতে পারে — একই অ্যালার্ম বাসার কোথাও পানির পাইপ লিক হওয়ার ঘটনাও জানান দিতে পারে।

প্রফেশনাল বনাম ডিআইওয়াই বা সেলফ-ইন্সটল সিস্টেম

প্রচলিত নিয়ম অনুযায়ী, হোম সিকিউরিটি সিস্টেম সাধারণত পেশাদারি বা প্রফেশনালদের সাহায্য নিয়ে ইনস্টল করা হয় এবং এগুলো আপনার বাসার ডিজাইনে সম্পূর্ণ ভাবে ইন্ট্রিগ্রেট বা সমন্বিত করে বানানো হয়। তবে এই ধরণের সিস্টেমগুলো অধিকাংশ ক্ষেত্রে অনেক ব্যয়বহুল হয়ে থাকে। ইদানিং মার্কেটে অনেক রকম সেলফ-ইন্সটলড সিকিউরিটি সিস্টেম উঠে এসেছে, যা আপনি নিজে নিজেই কিছু নির্দেশনা অনুসরণ করে সেট-আপ করে নিতে পারবেন সহজেই। এগুলোর সবচেয়ে বড় সুবিধা হচ্ছে যে, এগুলো আপনাদের জন্য একদিকে যতটা সাশ্রয়ী অন্যদিকে ততটাই বেশি কার্যকরী। কেননা এগুলো সেট-আপ করা তুলনামূলকভাবে বেশ সহজ এবং এদের সাথে কোন কনট্র্যাক্ট সিস্টেমও নেই। 

এই ডিআইওয়াই পদ্ধতির সাথে নতুন প্রযুক্তির সংযোজনে আমরা পেয়েছি এমন কিছু ব্যবসা সফল স্মার্ট হোম সিকিউরিটি সিস্টেম, যা আপনারা নিজ নিজ ইলেকট্রনিক্স ডিভাইসের সাহায্যে নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন। এরকম আধুনিক স্মার্ট সিস্টেমের কিছু জনপ্রিয় রূপ হচ্ছেঃ

নেস্ট সিকিউর

গুগলের ডেভেলপ করা এক অসাধারণ সিকিউরিটি সিস্টেম নেস্ট সিকিউর আপনারা খুঁজে পাবেন তাদের অনলাইন মার্কেটপ্লেসে, যাতে রয়েছে প্রায় সব রকম ডু-ইট-ইওরসেলফ বা ডিআইওয়াই সিকিউরিটি সিস্টেমের এক দারুণ সমন্বয়। ২০১০ সালে বিভিন্ন ধরণের স্মার্ট থার্মোস্ট্যাট এবং স্মোক ডিটেক্টর নিয়ে তারা যাত্রা শুরু করে, সেখান থেকে তারা পরবর্তীতে একে আরো প্রসারিত করে হোম সিকিউরিটি সিস্টেম তৈরি করে। গুগলের অন্যতম জনপ্রিয় একটি ফিচার হচ্ছে নেস্ট হ্যালো — একটি স্বয়ংক্রিয় ভিডিও কলিং বেল। অন্যান্য স্মার্ট সিস্টেমের সাথে তুলনা করে দেখলে এগুলো বেশ দামি ও উচ্চসারির, কিন্তু সেলফ মনিটরিং ও প্রফেশনাল মনিটরিং নামে দু’টি ভিন্ন কার্যকরী অপশন বেছে নেয়ার সুযোগ থাকায় এতে সুবিধাও অনেক বেশি। তাছাড়াও এর ডাবল সুবিধা হচ্ছে এটি অন্যান্য  সরঞ্জাম ও থার্ড পার্টি ডিভাইসের সাথেও দারুণ ভাবে কাজ করে।

রিং

রিং হলো অ্যামাজন কোম্পানির পক্ষ থেকে একটি কনট্র্যাক্টবিহীন হোম সিকিউরিটি সিস্টেম। বাসার বাইরের নজরদারি করার জন্য এটা একটি দারুণ সিস্টেম এবং এর সাথে থাকছে দুই রকম অপশন — হয় প্রফেশনাল মনিটরিং সিস্টেম নিতে হবে, নয়ত নিজে নিজে সেট-আপ এবং মনিটরিং দু’টোই করতে হবে। অ্যামাজনের গ্রাহকদের দিচ্ছে নানা ধরণের প্যাকেজ, যাতে রয়েছে আউটডোর লাইট এবং ক্যামেরার বিভিন্ন ধরণের কম্বিনেশন। তাই আপনার বাড়ি থাকবে আলোকসজ্জায় মনোরম এবং নিরাপদ, বিশেষ করে রাতের বেলায়। শীঘ্রই বাংলাদেশে অ্যামাজনের আগমনের খবর ছড়িয়ে পড়ায় আশা করা যাচ্ছে অদূর ভবিষ্যতে রিং সিস্টেম আমাদের সকলের নাগালের মধ্যে চলে আসবে।

তাহলে, কোনটি বেছে নেয়া উচিত?

দিনশেষে আপনার বাজেট এবং পছন্দের উপর নির্ভর করেই চূড়ান্ত কোনো সিদ্ধান্ত নেয়া সম্ভব। আপনি যদি একটি বিলাসবহুল শহরতলির বাড়িতে বসবাস করেন যার বাইরে বেশ খোলামেলা বাড়তি জায়গা রয়েছে, তাহলে বড় বাড়ির সাথে সহজাত নিয়মে যুক্ত দুর্বলতাগুলো দূর করার জন্য আমরা পরামর্শ দেব একটি উচ্চপ্রযুক্তির সর্বেসর্বা সিস্টেমের পেছনে বিনিয়োগ করতে। এই ক্ষেত্রে বাইরের লাইটিং ও নজরদারি সিস্টেম সহ একটি প্রফেশনাল সেট-আপই আদর্শ।

অপরদিকে আপনি যদি একটি আরামদায়ক অ্যাপার্টমেন্ট বাসায় থাকেন, তাহলে নিরাপত্তা ক্যামেরা নজরদারি এবং আগুন বা স্মোক অ্যালার্মের মত বেসিক সরঞ্জাম সেট-আপ করাটাই আপনার জন্য যথেষ্ট হবে। যেহেতু একটি অ্যাপার্টমেন্টে তুলনামূলকভাবে কম দুর্বল জায়গা থাকে, তাই আপনি খুব সহজে কোনো পেশাদার লোকের বাড়তি খরচ ছাড়াই নিজে নিজে একটি ডিআইওয়াই সিকিউরিটি সিস্টেম ইনস্টল করে নিতে পারবেন।

শেষ মন্তব্য

আপনার বাসা শুধুমাত্র আপনার সবচেয়ে মূল্যবান সামগ্রী আগলে রাখার জায়গাই নয়, একই সাথে এটি এমন একটি জায়গা যেখানে আপনি আপনার নিত্য জীবনের একটা উল্লেখযোগ্য পরিমাণ সময় কাটিয়ে থাকেন। একে সুরক্ষিত রাখার প্রয়োজনে তাই কোন খামখেয়ালি করা সম্ভব নয়। বিগত কয়েক বছরে বাড়ির সিকিউরিটি সিস্টেমগুলো সত্যিই অনেক উন্নত হয়েছে এবং ভবিষ্যতেও হতে থাকবে। মার্কেটের সেরা হোম সিকিউরিটি সিস্টেমগুলোতে আগের চেয়ে প্রায় অনেক কম খরচ এবং পরিশ্রম ব্যয় করে সেরা পারফরম্যান্স পাওয়া এবং বিনিয়োগ করার তাই এটাই শ্রেষ্ঠ সময়।

মার্কেটে এখন কোন কোন সিকিউরিটি সরঞ্জাম পাওয়া যাচ্ছে তা জানতে শর্টকাটে Bikroy-এর ওয়েবসাইটটি ব্রাউজ করুন এবং আপনার বাসার সিকিউরিটি সরঞ্জাম কিনে ফেলুন আজই!

সাবস্ক্রাইব করুন

No spam guarantee.

Comments

comments