সেকেন্ড হ্যান্ড গাড়ি কেনার আগে যে বিষয়গুলো বিবেচনা করবেন

Buy second hand car
Share

গাড়ি কেনা এখন আর মানুষের বিলাসি স্বপ্ন নয়, বরং গাড়ি কেনাটা এখন একটি প্রয়োজন হয়ে দাঁড়িয়েছে। বাংলাদেশ খুব দ্রুত উন্নয়নের সিড়ি বেয়ে উপরের দিকে উঠছে যার কারণে জীবনযাত্রার মান বদলেছে এখানকার জনসাধারণের। এক সময় গাড়িকে ধরা হতো বিলাসিতার প্রতীক হিসেবে, আর এখন মধ্যবিত্তদের কাছেও গাড়ি একটি প্রয়োজনীয় পণ্যে পরিণত হয়েছে। এই ট্রাফিক জ্যামে থমকানো মহানগর ঢাকা জুড়ে যখন রাইড শেয়ারিং অ্যাপের জয়জয়কার তখন একই সাথে পাল্লা দিয়ে গুরুত্বের সাথে দিনকে দিন বেড়ে চলেছে ব্যক্তিগত ব্যবহারের জন্য গাড়ি কেনার হিড়িক। যেহেতু বাজারে এখন অনেক ব্যবহৃত সেকেন্ড হ্যান্ড গাড়ি পাওয়া যাচ্ছে সেহেতু গাড়ির দামও বেশ কমে গেছে। গাড়ির দাম নিয়ে এখন আর আগের মতো ভয় পাবার কিছু নেই। কিন্তু পছন্দসই ব্যবহৃত গাড়ি খুঁজে পাওয়া কিছুটা দুষ্কর এবং আমি কিছু টিপস এবং ট্রিকস আপনাদের সামনে তুলে ধরে বিষয়টি আপনাদের জন্য আরও সহজ করে দেয়ার চেষ্টা করবো।

একটি ব্র্যান্ড নিউ মডেলের গাড়ি কিংবা একটি রিকন্ডিশনড নতুন মডেলের গাড়ির তুলনায় একটি ব্যবহৃত গাড়ি যে কি পরিমাণ সস্তা তা অকল্পনীয়। এটি বাস্তবিক অর্থে হয়তো ততোটা বোঝা যায় না, তবে মানসিক প্রশান্তির ক্ষেত্রে, যতো সহজে কোনো পণ্য কিনতে পাওয়া যায় তার ব্যবহারও বেড়ে যায় ঠিক ততোটাই, হোক সেটি গাড়ির মতো বড় কোনো বিনিয়োগ বা কী-চেইনের মতো খুবই সামান্য কোনো বিনিয়োগ। গাড়ির ব্যবহার যতো বেড়ে যায়, ততোই বেড়ে যায় গাড়ির সহজলভ্যতা। আপনি যদি একটি যুতসই গাড়ি কিনতে চান তবে আপনাকে অনেক ধৈর্য ধরতে হবে যাতে করে আপনি আপনার কষ্টার্জিত অর্থ বিনিয়োগ করে একটি ভালো গাড়ি কিনতে পারেন। আপনার পছন্দের মডেলের ব্যবহৃত / পুরোনো গাড়ি ভালো কন্ডিশনে কিনতে চাইলে নিচের গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলো মনোযোগ দিয়ে খেয়াল করুন এবং আপনার বিবেচনায় রাখার জন্য যথাসাধ্য চেষ্টা করুন।

ব্যবহৃত গাড়ি এবং গাড়ির দাম সম্পর্কে বিস্তর রিসার্চ করুন

এতে কোন সন্দেহ নেই যে, প্রথম গাড়ি হিসেবে বিক্রির জন্য সকল সেকেন্ড হ্যান্ড ব্যবহৃত গাড়িই ভালো বিকল্প। বিশেষ করে যারা ঢাকার ব্যস্ততম রাস্তাঘাটে গাড়ি চালানোর দক্ষতা বৃদ্ধি করার লক্ষ্যে গাড়ি কেনার কথা ভাবছেন তাদের জন্য। যেহেতু নতুন গাড়ি নয় সেহেতু মহা যানজট কিংবা ভাঙাচুরা রাস্তাঘাটে গাড়ি চালাতে খুব একটা সংকোচ হবে না। কিন্তু এমতাবস্থায়ও, সেকেন্ডহ্যান্ড গাড়ি কেনার জন্য আপনাকে ধৈর্য ধারণ করে যথেষ্ট সময় নিয়ে ব্যবহৃত গাড়ি এবং গাড়ির দাম নিয়ে রিসার্চ করতে হবে। সেকেন্ড হ্যান্ড গাড়ির যেসব সুস্পষ্ট অসুবিধাগুলো রয়েছে সেগুলো অবশ্যই বিবেচনা করতে হবে এবং একই সাথে মাথায় রাখতে হবে যে সেকেন্ড হ্যান্ড গাড়ির কিছু অতিরিক্ত খরচ রয়েছে যেমন, কেনার সাথে সাথেই কিছু প্রয়োজনীয় সার্ভিসিং বা গাড়ির পুরনো পার্টস রিপ্লেস করা যেমন টায়ার, ব্যাটারী এবং অন্যান্য।

আপনি পত্রিকায় খুঁজে কিংবা বিভিন্ন ওয়েবসাইট যেমন, Bikroy.com ব্রাউজ করে ব্যবহৃত সেকেন্ড হ্যান্ড গাড়ির সন্ধান পেতে পারেন। Bikroy.com-এর প্রতিষ্ঠাতা -এর মতে, “একই মডেলের ব্যবহৃত গাড়ির দাম সম্পর্কে জানতে পারলে তা ক্রেতাদের বর্তমান সেকেন্ড হ্যান্ড গাড়ির বাজার সম্পর্কে ধারণা দিতে সাহায্য করে এবং ক্রেতারা আরও জেনেশুনে সঠিক সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে পারেন।”

Bikroy.com সব ধরণের গাড়ি, যেমন, ব্যবহৃত গাড়ি, রিকন্ডিশনড গাড়ি এবং নতুন গাড়ির একটি বিশাল ভাণ্ডার। ফিল্টারড সার্চের মাধ্যমে ক্রেতারা ট্রান্সমিশন টাইপ, মডেল, ব্র্যান্ড, বডি টাইপ, মাইলএজ এবং আরও অনেক কিছুর উপর ভিত্ত করে তাদের পছন্দসই গাড়ির সন্ধান পেতে পারেন।

আপনি যদি ব্র্যান্ড, মডেল, গাড়ির কন্ডিশন এবং কি দামে বিক্রি হচ্ছে এই বিষয়গুলোর উপর একটি বিস্তারিত রিসার্চ করেন তবে আপনি একটি নির্দিষ্ট গাড়ির বর্তমান বাজার মূল্য সম্পর্কে ধারণা পাবেন এবং বাজারমূল্যের চেয়ে অধিক দাম দিয়ে কিনে ঠকার সম্ভাবনা থেকে আপনি বেঁচে যাবেন। একারণেই গাড়ি কেনার আগে ধৈর্যের সাথে, যথেষ্ট সময় নিয়ে বিভিন্ন সোর্স ঘেটে গাড়ির বিভিন্ন ধরণের কন্ডিশন ও দাম সম্পর্কে জানা এবং তুলনামূলক বিশ্লেষণ করার ব্যাপারটি গুরুত্বপূর্ণ।

বাজেট নির্ধারণ করুন এবং আপনার পছন্দের গাড়িটি নির্বাচন করুন

প্রথমেই যা করতে হবে তা হলো আপনার বাজেট নির্ধারণ করতে হবে। আপনি যে ধরণের সেকেন্ডহ্যান্ড গাড়িই ক্রয় করতে চান না কেনো বা যে উদ্দেশ্যেই ক্রয় করতে চান না কেনো আপনাকে বাজেট নির্ধারণ করে নিতে হবে। এতে করে আপনি কিনবেন না এমন গাড়ির পেছনে সময় নষ্ট করার হাত থেকে আপনি আপনার সময় বাঁচাতে পারবেন। পাশাপাশি আপনাকে গাড়ির জরুরি মেরামত, সার্ভিসিং, প্রয়োজনীয় কাগজপত্র তৈরিকরণ এবং অন্যান্য আনুষঙ্গিক খরচ সম্পর্কে অবগত থাকতে হবে।

আপনার বাজেট এবং আনুষঙ্গিক খরচ ঠিকঠাক করে ফেলতে পারলেই আপনি আপনার জন্য পছন্দের গাড়িটি খোঁজা শুরু করে দিতে পারবেন। ইন্টারনেটে খুব সহজেই আপনি সন্ধান পাবেন অসংখ্য গাড়ির তবে সেই গাড়িগুলো থেকে পছন্দের গাড়িট বেছে নেয়াটাই সবচেয়ে কঠিন কাজ। সোশ্যাল মিডিয়ার ব্যবহার যেমন Facebook এবং অনলাইন ক্লাসিফায়েড যেমন Bikroy খুব সহজেই আপনার সামনে এনে দেবে অসংখ্য গাড়ির তথ্য যার মধ্যে আপনি সেকেন্ড হ্যান্ড গাড়ির সন্ধানও  পেয়ে যাবেন।   আপনি যখন জানবেন যে আপনি কি খুঁজছেন তখন আপনি যা চাচ্ছেন তার চেয়ে ভালো কিছুও পেয়ে যেতে পারেন এবং তারপর যে কাজটি আপনাকে করতে হবে তা হলো আপনার সবচেয়ে বেশি প্রয়োজনগুলোর সাথে মিলিয়ে, যাচাই-বাছাই করে যুতসই গাড়িটি নির্বাচন করা।

টেস্ট ড্রাইভ এবং ফিজিক্যালি ইন্সপেকশন

have test drive

ইন্টারনেট থেকে কেনা ক্রেতা এবং বিক্রেতা উভয়ের জন্যই ভালো অপশন হিসেবে প্রমাণিত। উৎসুক ক্রেতা হিসেবে আপনি অবশ্যই বিক্রেতাকে প্রশ্ন করবেন যে তাঁরা কেনো গাড়িটি বিক্রি করতে চাইছেন? এতে করে আপনি জানতে পারবেন যে গাড়ির সমস্যাগুলো আসলে কি এবং আপনি একজন মেকানিককে দিয়ে গাড়িটি পরীক্ষা করিয়ে দেখার সুযোগও পাবেন। টেস্ট ড্রাইভ সহ, গাড়ির ফিজিক্যাল ইন্সপেকশন অত্যাবশ্যক। ইন্সপেকশন করার পর আপনি যদি পুরোপুরি সন্তুষ্ট হয়ে থাকেন তবে আপনি আপনার পছন্দের গাড়িটি ক্রয় করার ব্যাপারে নিশ্চিত হবেন।

সেকেন্ড হ্যান্ড গাড়ি কেনার আগে নিচের বিষয়গুলো আপনি নিজে বিবেচনা ও যাচাই করে নিবেন:

  • গাড়ির বডি শেপ স্মুথ কিনা, কোনো ধরণের অমসৃণ অংশ আছে কিনা এবং বডিতে কোন ধরণের অমিল আছে কিনা তা পরীক্ষা করে নিলে বুঝতে পারবেন যে গাড়িটি কোন ধরণের দুর্ঘটনার কবলে পরেছিলো কিনা।
  • গাড়ির রং সুন্দর এবং স্মুথ কিনা এবং কোন ধরণের ফেডিং আছে কিনা তা ভালো করে দেখে নিন।
  • হুডের নিচে চেসিস, ব্যাটারী কন্ডিশন ইত্যাদি ভালো করে দেখে নিন
  • ওয়্যার এবং টিয়ারের জন্য গাড়ির টায়ার এবং সাসপেনশনের অবস্থা ভালো করে পরীক্ষা করুন
  • সবগুলো লাইট, সেন্সর এবং ইলেকট্রনিক্স সঠিকভাবে কাজ করছে কিনা তা দেখে নিন।
  • ইঞ্জিন স্টার্ট করে দেখুন তার শব্দটা কি রকম
  • এক্সিলারেশন এবং গিয়ার শিফটিং স্মুথ কিনা তা দেখে নিন।
  • গাড়ির ইতিহাস যেমন, দুর্ঘটনা, মেরামত, মেইনট্যানেন্স ইত্যাদি সম্পর্কে বিক্রেতার কাছ থেকে জেনে নিন

বিশেষজ্ঞদের মতে গাড়ি কেনার আগে অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ কাজ হলো গাড়িটিকে টেস্ট ড্রাইভে নিয়ে যাওয়া। গাড়ি নিয়ে বেরিয়ে কয়েক কিলোমিটার কিংবা কম হলেও ১৫-২০ মিনিট চালিয়ে দেখুন। এতে করে আপনি গাড়ির পারফরম্যান্স সম্পর্কে একটা ধারণা পেয়ে যাবেন। তবে গাড়ি চালানোর সময় অন্যান্য বিষয়গুলোতেও নজর দিন যেমন, মাইলএজ মিটার, স্পীডোমিটার, ইন্ডিকেটর, এয়ার কন্ডিশন, রেডিও, ডোর লক। সিট অ্যাডজাস্টমেন্ট এবং গাড়ির অন্যান্য ফিচার ইত্যাদি।

পেপারওয়ার্ক পরীক্ষা করুন এবং দরকষাকষি করুন

Vehicle contract documents

বাজারে অনেক গাড়ি আছে যেগুলো চুরি করে বিক্রির জন্য আনা হয়েছে এবং এমনও হতে পারে যে বিক্রেতা একটি চুরি করা গাড়ি আপনার কাছে বিক্রি করার চেষ্টা করছে। আপনার রিসার্চের উপর ভিত্তি করে গাড়ির দাম সম্পর্কে সচেতন থাকুন এবং যাচাই করুন যে গাড়ির দাম তুলনামূলকভাবে খুবই কম বা অতিরিক্ত চাওয়া হচ্ছে কিনা।  চুরি করা সেকেন্ড হ্যান্ড গাড়ি এখন বেশ বড় একটি ইন্ডাস্ট্রি হয়ে দাড়িয়েছে যা ক্রেতাদের ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়াচ্ছে এবং আপনিও নিশ্চয়েই এর ভুক্তভোগী হতে চাইবেন না। এ কারণেই আপনাকে গাড়ির কাগজপত্র ভালো করে পর্যবেক্ষণ করতে হবে, যদি তা পুরোনো গাড়িও হয়ে থাকে।

  • রেজিস্টেশন

গাড়ির রেজিস্ট্রেশন সঠিক কিনা তা পরীক্ষা করুন। গাড়ির সাথে রেজিস্ট্রেশনের তারিখ এবং অন্যান্য বিস্তারিত, যেমন, গাড়ির চেসিস নাম্বার ইত্যাদি বিষয়গুলো মিলিয়ে দেখে নিন।

  • ট্যাক্স

ট্যাক্স কাগজ পরীক্ষা করে দেখুন যে ঠিকঠাক ট্যাক্স দেয়া হয়েছে কিনা। ট্যাক্স প্রদানের তারিখ দেখুন এবং ট্যাক্স দেয়া বাকি আছে কিনা তাও যাচাই করে নিন।

  • ইনস্যুরেন্স

নিশ্চিত হয়ে নিন যে ইনস্যুরেন্স এবং আনুষঙ্গিক অন্যান্য কাগজপত্র শুধুমাত্র বিক্রেতার ক্ষেত্রেই প্রযোজ্য এবং তা আপনার জন্য কোনো ধরণের বিষয় নয়। ইনস্যুরেন্সের পেমেন্ট ক্লিয়ার করা হয়েছে কিনা তা দেখে নিন।

  • ফিটনেস সার্টিফিকেট

গাড়িটির বৈধ ফিটনেস সার্টিফিকেট আছে কিনা তা নিশ্চিত হয়ে নিন। হোক নতুন কিংবা পুরোনো, সব গাড়িকে ফিটনেস পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হবে সার্টিফিকেটের বৈধতার তারিখ দেখে নিন।

  • ইনভয়েস এবং অন্যান্য

যদি সম্প্রতি গাড়ির মেরামত করা হয়ে থাকে তবে বিক্রেতার কাছ থেকে ওয়ারেন্টি এবং প্রয়োজনীয় কাগজপত্রের ইনভয়েস বুঝে নিন।

গাড়ির কন্ডিশন অনুযায়ী দাম দর করার চেষ্টা করুন। যদি গাড়ির কোনো ধরণের জরুরি মেরামত করার প্রয়োজন হয়ে থাকে তবে তার জন্য দাম কমান। আপনি যদি একা দরদাম করতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ না করেন তবে আপনার কোনো বন্ধু বা আত্মীয়ের সাহায্য নিন।

উপসংহার

প্রাক-মালিকানাধীন গাড়ি, সেকেন্ড হ্যান্ড গাড়ি এবং ব্যবহৃত গাড়ি বিক্রির জন্য বাজারে আনা একই কথা। দিনশেষে বাজেট অনুসারে সেকেন্ডহ্যান্ড গাড়ি কেনা নির্দ্বিধায় একটি অন্যতম সেরা বিকল্প। আপনি যদি আনাড়ি চালক হয়ে থাকেন, প্রথমবারের মতো গাড়ির ক্রেতা হয়ে থাকেন কিংবা UBER বা PATHAO চালানোর উদ্দেশ্যে গাড়ি ক্রয় করার কথা ভাবেন তবে ব্র্যান্ড নিউ গাড়ির চেয়ে সেকেন্ড হ্যান্ড গাড়ি কেনা উত্তম।

ইন্টারনেট তথ্য যোগাড় করার জন্য নিঃসন্দেহে সেরা সোর্স এবং তথ্য কাজে লাগিয়ে আপনি সেকেন্ড হ্যান্ড গাড়ি কেনার সময় সম্ভাব্য ভুল পদক্ষেপ গ্রহণ করার হাত থেকে বেঁচে যাবেন। Bikroy.com ক্রেতা এবং বিক্রেতাদের মাঝে যোগাযোগ ঘটিয়ে দেয়। আজই Bikroy.com থেকে আপনার পছন্দের গাড়িটি বেছে নিন!

আশা করছি এই প্রবন্ধটি আপনার রিসার্চ স্কিল বৃদ্ধি করবে এবং আপনাকে একটি ভালো মানের সেকেন্ড হ্যান্ড গাড়ি খুঁজে পেতে সাহায্য করবে।

সাবস্ক্রাইব করুন

No spam guarantee.

Comments

comments