যানবাহন

লকডাউনে মোটরবাইক রাইডিং এবং কেনা-বেচার ট্রেন্ড নিয়ে Bikroy.com-এর ওয়েবিনার আয়োজন

দেশে চলমান লকডাউনে মোটরবাইক ক্রেতা এবং বিক্রেতাদের কথা মাথায় রেখে বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় মার্কেটপ্লেস Bikroy.com গত ২৩ এপ্রিল ‘লকডাউনে মোটরবাইক রাইডিং এবং কেনা-বেচার ট্রেন্ড’ শীর্ষক একটি ওয়েবিনার আয়োজন করে। ওয়েবিনারে মূলত বর্তমান করোনাভাইরাস মহামারির জন্য দেওয়া লকডাউনে দেশের বাজারে মোটরবাইকের কেনা-বেচার ট্রেন্ড, মোটরবাইক রাইডিং পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করা হয়। 

লকডাউনে মোটরবাইক রাইডিং এবং কেনা-বেচার ট্রেন্ড নিয়ে Bikroy.com-এর ওয়েবিনার

লকডাউন চলাকালীন এই পুরোটা সময় জুড়ে মেম্বারদের ব্যবসার প্রসারের সুবিধার্থে Bikroy.com তার মেম্বারদের জন্য বেশি ভাউচার ও প্রমোশনাল টুল ব্যবহার, ডেডিকেটেড কাস্টমার সাপোর্ট, ইএমআই সহ নানাবিধ সুবিধা দিচ্ছে। এছাড়াও বেশি আগ্রহী ক্রেতাদের কাছে পৌঁছাতে এবং দ্রুত বিক্রি করতে Bikroy থেকে মেম্বারদের জন্য দেওয়া হচ্ছে বিশেষ টিপস।

ওয়েবিনারে অতিথিদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মোঃ আশরাফুল হাসান, হেড অফ মার্কেটিং, টিভিএস অটো বাংলাদেশ লিমিটেড; আব্দুস সালাম খোকা, মদিনা টিভিএস এর স্বত্বাধিকারী ও কুমিল্লা টিভিএস এর ডিলার; শুভ্র সেন, সিইও, বাইকবিডি; এবং মোহাম্মদ সাজেদুর রহমান, ফাউন্ডার, বিয়ন্ড বর্ডারস। 

এছাড়াও Bikroy.com এর পক্ষ থেকে উপস্থিত ছিলেন Bikroy-এর ম্যানেজিং ডিরেক্টর ঈশিতা শারমিন ও Bikroy-এর ভেহিকেলস লিড আফজাল এইছ সারকার। পুরো ওয়েবিনারটি সঞ্চালনার দায়িত্বে ছিলেন Bikroy-এর ভেহিকেলস লিড আফজাল এইছ সারকার। 

শুরুতে Bikroy-এর ম্যানেজিং ডিরেক্টর ঈশিতা শারমিন বলেন, “মোটরবাইক আমাদের সাইটের অন্যতম জনপ্রিয় একটি প্রোডাক্ট। আর বর্তমান এই সময়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সাথে একাত্মতা প্রকাশ করে আমরাও বলতে চাই যে, ঘরে বসেই এই দুঃসময়ে আমাদেরকে ব্যবসাকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে। লকডাউন চলাকালীন এই সময়েও অনলাইনে যারা ব্যবসা করছেন তারা যাতে Bikroy.com-কে আরও সহজে ব্যবহার করতে পারেন, সেজন্যে আমরা প্রতিজ্ঞাবদ্ধ। আমাদের সাইটে মাসিক ৩৫ লক্ষেরও বেশি ব্যবহারকারী আছে এবং করোনাকালীন সময়ে এই সংখ্যাটি আরও বৃদ্ধি পাবে বলে আমরা ধারণা করছি। যেহেতু এই সময়ে ব্যক্তিগত যান ব্যবহারের একটি তাগাদা মানুষের মাঝে এসেছে তাই এটিই মোটরবাইক কেনা এবং বিক্রি করার একটি উপযুক্ত সময়। তাই করোনাকে হুমকি হিসেবে না দেখে আমরা যদি ইতিবাচক ভাবে আমাদের ব্যবসার জন্য কাজে লাগাতে পারি।” 

বাংলাদেশে অনলাইনে মোটরবাইকের কেনা-বেচা এবং এখানে Bikroy-এর ভূমিকা সম্পর্কে Bikroy-এর ভেহিকেলস লিড আফজাল এইছ সারকার বলেন, “মোটরবাইক Bikroy.com-এর একটি হট প্রোডাক্ট এবং এখানে একজন বিক্রেতা অ্যাড পোস্ট করার পরে গড়ে প্রায় ৪০টিরও বেশি রেসপন্স পেয়ে থাকেন। Bikroy-এ মূলত দুই ভাবে পণ্যের বিজ্ঞাপন দেওয়া যায়, যার একটি হলো ‘ফ্রি বিজ্ঞাপন’ এবং অন্যটি ‘মেম্বারশিপ’-এর মাধ্যমে। পাশাপাশি মোটরবাইকের স্বীকৃত ডিলারদের সহজে খুঁজে বের জন্য ব্যবহারকারীরা ‘অথরাইজড ডিলার’-বাটনটিতে ক্লিক করার মাধ্যমে সরাসরি তাদের বিজ্ঞাপন দেখতে পারেন। এছাড়াও মেম্বারশিপ নেওয়ার ফলে বিক্রেতারা বেশি অ্যাড দেওয়ার পাশাপাশি গুগলে এসইও সুবিধাও উপভোগ করতে পারবেন। Bikroy.com তাদের প্রতিটি মেম্বারকে প্রতিমাসের রিসার্চ ডাটা দিয়ে থাকে যেখান থেকে একজন বিক্রেতা সহজেই প্রতি মাসে তাঁর বিজ্ঞাপনে কেমন সাড়া পাওয়া যাচ্ছে তা দেখে নিতে পারবেন।”    

দেশের বাজারে টিভিএস মোটরবাইকের যাত্রা এবং ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা নিয়ে, টিভিএস অটো বাংলাদেশ লিমিটেড-এর হেড অফ মার্কেটিং মোঃ আশরাফুল হাসান বলেন, “বাংলাদেশে দ্বিতীয় ভারতীয় ব্র্যান্ড হিসেবে ২০০৭ সালে টিভিএস অটো তাদের যাত্রা শুরু করে। পরবর্তীতে সারা দেশের সকল ডিলার এবং টিভিএস রাইডারদের ভালোবাসায় আজকে টিভিএস বাংলাদেশের শীর্ষস্থানীয় মোটরবাইক ব্র্যান্ডের তালিকায় উঠে এসেছে। টিভিএস বাংলাদেশের প্রতি এই আস্থার জায়গা হিসেবে অনলাইনের বিভিন্ন মার্কেটপ্লেস বিশেষ করে Bikroy.com-এর অবদান অনস্বীকার্য।” 

এছাড়াও Bikroy.com-কে তিনি টিভিএস বাংলাদেশের পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা জানিয়ে বলেন, “করোনাকালীন সময়ে যারা তাদের মোটরবাইক বিক্রি করার কথা ভেবেছিলেন তারা সহজেই এবং দ্রুত Bikroy-এ পোস্ট করার মাধ্যেম তাদের গ্রাহকদের পেয়ে গেছেন। পাশাপাশি টিভিএস অটো তাদের গ্রাহকদের কথা মাথায় রেখে আসন্ন ঈদে বাজারে আনতে যাচ্ছে নতুন অ্যাপাচি আরটিআর ৪ভি- যার সাথে এবার যুক্ত করেছে এক্স কানেক্ট, ন্যাভিগেশন, আধুনিক নিরাপত্তা সরঞ্জাম সহ অন্যান্য নানা ফিচার।” 

এসময়ে বর্তমানে বাংলাদেশে মোটরবাইক মার্কেট এর অবস্থান নিয়ে, বাইকবিডির সিইও শুভ্র সেন বলেন, “মোটরবাইক রাইডারদের জীবনকে ডিজিটালাইজড এবং সহজ করে তোলার জন্য Bikroy.com একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। করোনাকালীন এই সময়ে অনেকেই নিরাপদে ঘরে থেকে নতুন এবং পুরাতন মোটরবাইক খোঁজার ক্ষেত্রে Bikroy-কে ব্যবহার করছেন। বাংলাদেশে ইতোমধ্যেই বেশি সিসির মোটরবাইক আনার প্রক্রিয়া চলছে এবং এই বাইকগুলো যাতে নিরাপদে চালানো যায় তাই প্রতিটি রাইডারকেও ধাপে ধাপে তাদের বিভিন্ন লাইসেন্স নিয়ে রাখতে হবে।”   

পাশাপাশি তিনি বাংলাদেশে বাইক তৈরি করার ব্যাপারে সরকার এবং বাইক ব্র্যান্ডগুলোকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়ে বলেন, “ব্যাকলিংকেজ তৈরি করার মাধ্যমে দেশেই ১০০ থেকে ১৬৫ সিসির বাইক উৎপাদন করা সম্ভব। কারণ প্রতিটি মানুষই চায় স্বল্পমূল্যে সাধ্যের মধ্যে বেশি সিসি সমৃদ্ধ বাইক চালাতে।” 

লকডাউনে মোটরবাইক কেনা-বেচা সংক্রান্ত বিষয় এবং Bikroy.com-এর সাথে পথচলা নিয়ে এসময়ে মদিনা টিভিএস এর স্বত্বাধিকারী ও কুমিল্লা টিভিএস এর ডিলার আব্দুস সালাম খোকা বলেন, “১৫ থেকে ৫০ বছর বয়সের মধ্যে যারাই বাইক কিনতে আগ্রহী হন, তারা অনলাইনে আগে সেটি সম্পর্কে খোঁজ খবর নিয়ে রাখেন। তবে অন্যান্য পেজ বা ওয়েবসাইটের তুলনায় Bikroy.com-এ মানুষ আস্থা রাখে বেশি। মেম্বারশিপ এবং সরাসরি ডিলারদের কাছ থেকে কেনার সুযোগ করে দেওয়ার মাধ্যমে Bikroy.com আপনাকে প্রতারিত হওয়া থেকে বিরত রাখবে। এছাড়াও মেম্বারশিপের কারণে দেশের বিভিন্ন জায়গা থেকে আমরা গ্রাহকদের ফোন পেয়ে থাকি।” 

সর্বোপরি আমাদের দেশে যারা বাইক লাভার রয়েছেন এবং যারা বাইক নিয়ে প্রায়শই লং জার্নিতে যান তাদের জন্য টিপস নিয়ে, বিয়ন্ড বর্ডারস-এর ফাউন্ডার মোহাম্মদ সাজেদুর রহমান বলেন, “দূরে ভ্রমণের জন্য মোটরবাইক সবসময় একটি দারুণ ভূমিকা পালন করে থাকে যা সচরাচর অন্যান্য যানবাহনে পাওয়া যায় না। লং রাইডে বা জার্নিতে অনাকাঙ্ক্ষিত কিছু ঘটনা এড়াতে প্রি-রাইডিং চেকআপ করে নেওয়া ভালো। যাত্রা শুরুর আগে বাইকের সর্বশেষ সার্ভিসিং করিয়ে নিতে হবে এছাড়াও ইঞ্জিন গরম হয়ে গেলে আশেপাশে কোনো গ্যারেজে বা মেকানিকের সাহায্য নিতে হবে।”  

Facebook Comments
সাবস্ক্রাইব করুন

No spam guarantee.

আরও দেখুন

অনুরূপ লেখা গুলো

Back to top button
Close
Close