বাড়ি কেনার ব্যাপারে যা আপনাকে নিজেই জানতে হবে

blog feature bikroy bangla
Share

আপনি কি একজন বাড়ির মালিক?  নাকি বাড়ির মালিক হবার স্বপ্ন দেখছেন? উত্তর যেটাই হোক না কেন ইতোমধ্যে আপনি বুঝে গেছেন যে বাড়ি কেনার বাপারে কিছু বিষয় আছে যা অনেকেই চেপে যান বা খুলে বলেন না। এর পেছনে একটা কারণ হতে পারে অনেক সাধনার পর বাড়ির মালিক হবার আনন্দে বাড়ি কেনা বা বাড়ি বানানো সম্পর্কিত ঝুট ঝামেলা বা কষ্টের কথা অনেকেরই আর মনে থাকে না। কিন্তু এই বিষয়গুলোর ভেতর দিয়ে যাওয়াটা অনেকটা উত্তেজনা আর আনন্দের পাশাপাশি কিছুটা হৃদয়বিদারকও বটে!

আজকাল বাড়ি বিক্রি হচ্ছে অহরহ; কেননা অধিক পরিমাণে মানুষ তাদের জীবনকে গুছিয়ে নিচ্ছে আর সেইজন্য এতবড় বিনিয়োগ করার সিদ্ধান্ত নিচ্ছে। আসলে বাড়ি কেনার অভিজ্ঞতা থেকে আমাদের অনেক কিছু শেখার আছে। তবে মাঝেমাঝে আকস্মিক ধাক্কা খাবার চেয়ে কিছু অপ্রত্যাশিত ব্যাপারের জন্য তৈরি থাকা ভালো। বাড়ির মালিক হওয়া বা বিক্রির জন্য বাড়ি খোঁজার সময় কিছু টিপস আপনার কাজে আসতে পারবে যেগুলো হয়ত অন্যরা আপনাকে বলতে ভুলে যাবে-

বাজেট নিয়ে সমস্যা ঘুরেফিরে আসবেই

সবচেয়ে অদ্ভুত বিষয় হলো আপনই যেই বাজেটই নির্ধারণ করুন না কেন, বেশিরভাগ ক্ষেত্রে তার চেয়ে বেশি দামের প্রপার্টি আপনার চোখে পড়বে। যুক্তিসম্পন্ন বাজেট পছন্দ করা আর মনের মত একটা বাজেট করতে পারার মধ্যে খুব সূক্ষ্ম ফারাক রয়েছে। আপনই হয়ত বিক্রির জন্য এমন কিছু বাড়ি দেখবেন যেগুলো আপনার খুবই পছন্দ কিন্তু সেগুলো কেনার মত সামর্থ্য আপনার নেই। ভেঙ্গে পড়বেন না, কারণ এই কঠিন সিদ্ধান্তগুলো আপনার স্বপ্নকে আরও মজবুত করে তুলবে।

প্রপার্টি সার্চ করার সাইটগুলোয় খুঁজে দেখলে যেমন আপনার রিয়েল এস্টেট মার্কেট সম্পর্কে ধারনা হবে, তেমনি আপনার সময় ও শক্তির সবচেয়ে স্মার্ট বিনিয়োগ হবে এই গবেষণা। বাড়ি কেনার জন্য হয়ত আপনি হোমলোন নেয়ার ব্যাপারে সিদ্ধান্তহীনতায় ভুগবেন, তবে চেষ্টা করুন এর আগে অন্য যতরকম উপায় আছে সেগুলো খতিয়ে দেখতে। হোমলোন আপনার বাজেটের সমস্যাকে আরও বাড়িয়ে তুলবে, কেননা এক্ষেত্রে আপনি আপনার পরিকল্পনার চেয়ে বেশি খরচ করার পথে পা দিচ্ছেন। তাই ব্যাংক থেকে লোন করার আগে অন্যান্য বিভিন্ন উৎস যেমন পরিবার, বধুবান্ধব এমনকি সহকর্মীদের সাহায্য নেয়া ভালো।

বাড়ি কেনার ক্ষেত্রে তাড়াহুড়ো নয়

বিক্রিযোগ্য প্রপার্টি কেনার জন্য বিশাল মাত্রায় বিনিয়োগ করা কোনো চাট্টিখানি কথা নয়। এই সিদ্ধান্ত নেবার জন্য অনেক ধৈর্যের প্রয়োজন। আপনি হয়ত ভাবছেন যতক্ষণ হাতে টাকা আছে, চট করে বাড়ি কিনে ফেলা খুব সহজ। কিন্তু আসলে ব্যাপারটা এমন নয়। তাড়াহুড়োয় নেয়া যেকোনো সিদ্ধান্ত হয়ত আপনার প্রপার্টির দাম কিছুটা কমিয়ে আনতে পারে, তবে বেচাকেনা সম্পন্ন করার জন্য প্রয়োজনীয় সময় তা কখনই কমাতে পারবে না। অতএব একটা নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত মানসিক চাপে থাকার জন্য প্রস্তুত থাকুন।

মানসিক চাপের কথা বলতে গেলে, সবচেয়ে ভয়াবহ সময় তখন আসে যখন আপনার অফারে বিক্রেতা রাজি হয়ে যান। মুহূর্তের মধ্যেই আপনার মনে সন্দেহ হওয়া শুরু হয়, ‘আমি কি বেশি টাকা দিয়ে ফেলছি?’ , ‘আরও কম বলা উচিত ছিল কি?’ , ‘ঠকছি না তো?’ অথবা এমনও ভেবে বসেন যে বাদ দিয়ে দিবেন কিনা। কিন্তু এই সাময়িক উদ্বিগ্নতা খুবই স্বাভাবিক। নিজের সচেতন ও গবেষণালব্ধ সিদ্ধান্তে ভরসা রাখুন, যদিও সন্দেহই আপনার সবচেয়ে বিশ্বস্ত হাতিয়ার! কাগজ-দলিলের কাজ এমনিতেই অনেক বেশি, আর হোমলোন নিলে তো কথাই নেই। একটা সময় নিজের স্বাক্ষরের উপরই বিরক্তি চলে আসবে!

বাড়ি কেনার চেয়েও বেশি কঠিন একে নিজের করে নেয়া

making own home

আপনার পছন্দের বাড়িটি কিনে ফেলার পরপরই আপনি বুঝতে পারবেন যে কাজ আসলে অর্ধেকও সম্পন্ন হয়নি। নতুন এলাকায় নিজেকে পরিচিত করে তোলা, নতুন মানুষের সাথে মেলামেশা, তাদের সাথে যোগাযোগ তৈরি করা, বিল সংগ্রহ ও পরিশোধ করা, অসময়ে অপ্রয়োজনীয় মেরামত, সবকিছুর রক্ষণাবেক্ষণসহ আরও নানারকম কাজের তালিকা মনে মনে তৈরি করে ফেলেছেন এরই মধ্যে। কিন্তু চেতনে কিংবা অবচেতনে সবচেয়ে বেশি যে কাজটা আপনাকে ব্যস্ত রাখবে তা হলো, বাড়ি কেনার কাজ পুরোপুরি সম্পন্ন করা ও একে নিজের করে নেয়া।

বাড়ি কেনার পর আপনার সময় ও অর্থের একটা বিশেষ অংশ ব্যয় হবে মেরামতে, যেমন ভাঙ্গা জানালা, খিল ও তালা, ফ্যান, লাইট, কার্পেট বদলানো, রঙ করা সহ আরও নানারকম রক্ষণাবেক্ষণমূলক কাজে। একটা রুম কিংবা কেবল একটা দেয়ালে কোন রঙটা বেশি মানাবে, কি কি রং করা সম্ভব এসব ভেবে ভেবেই হয়ত আপনার মাথা খারাপ হতে শুরু করবে। প্রতিটা ছোট কাজ মনে হবে একটা চিরস্থায়ী সিদ্ধান্ত নেবার মতন, কিন্তু সত্যিকার অর্থে যতক্ষণ পর্যন্ত না নতুন কোনো বুদ্ধি আপনার মাথায় আসবে, এ বুদ্ধিগুলোও ক্ষণস্থায়ী।

বাড়ি হোক, কিংবা ফ্ল্যাট, এপার্টমেন্ট অথবা যেকোনো ধরনের প্রপার্টি, আপনার চোখে এর প্রতিটি কোনা খালি খালি মনে হবে। আপনি আপনার সবটুকু পয়সা, ক্রেডিট কার্ড ব্যালেন্স আর সূদহীন ইন্সটলমেন্ট অফারগুলো ব্যবহার করতে চাইবেন নিজের ঘরকে সাজিয়ে তোলার জন্য। প্রথমত যা আপনার প্রয়োজন, তারপর যা আপনি চান, অতঃপর যা কিছু আপনার ঘরকে সুন্দর করে তুলবে, এমন হাজারো চিন্তা আপনাকে ঘিরে ধরবে।

আপনি বাড়িওয়ালা-মানসিকতার বাতিকে ভুগতে পারেন

একজন বাড়ির মালিক হিসেবে আপনি নিজের বিনিয়োগের ব্যাপারে অত্যন্ত রক্ষণশীল অনুভব করতে শুরু করবেন। কিছু টানানোর জন্য দেয়াল ফুটো থেকে শুরু করে সামান্য সামান্য সাজসজ্জা বা মেরামতি কাজ করাতে গিয়েও আপনি বিচলিত হয়ে পরবেন। ঘরকে যতদিন সম্ভব নতুনের মত রাখার গুরুত্ব আপনি উপলব্ধি করতে পারবেন। শুধু ঘরের ভেতর না, এর বাইরের দিকেও খুঁটিনাটি সমস্ত জিনিস আপনার নজরে পরা শুরু করবে। অতঃপর আপনি ভালো মানের সিকিউরিটি সিস্টেমে বেশ কিছু টাকা ব্যয় করবেন।

ক্ষণে ক্ষণে বিভিন্ন সময়ে আপনি নিজেকে বার বার বুঝিয়ে দেবেন যে একটি বাড়ির মালিক হওয়া আর সেই বিনিয়োগকে দীর্ঘদিনের জন্য নিরাপদ রাখা আসলে কতটা খরচের একটা ব্যাপার। আপনি শুধু নিজের ঘর না, আপনার রাস্তা, এলাকা এমনকি আপনার নিজের শহরকেও নিরাপদ রাখতে শুরু করবেন। একজন বাড়িওয়ালা হিসেবে আপনার দৃষ্টিভঙ্গিও অনেকটাই বদলে যাবে। আপনি হয়ে উঠবেন একজন গর্বিত মালিক, যার নিজের করে বলার মত একটি ঠিকানা রয়েছে। অভিনন্দন!

শেষ কথা

অতএব বিক্রির জন্য একটি বাড়ি খোঁজা থেকে শুরু করে সঠিক প্রপার্টি সঠিক দামে কেনা, এর মালিকানা পাওয়া, একে নিজের মত গড়ে নেয়া সবই অনেক কষ্টসাধ্য কাজ। এর চেয়েও বেশি কঠিন নিজের সামর্থ্য ও চাহিদার সাথে মিল রেখে প্রপার্টি খোঁজা ও এর জন্য টাকা ব্যয় করতে পারা। এটি একটি চিরস্থায়ী বিনিয়োগ ব্যবস্থা, যাতে প্রচুর ধৈর্য আর উৎসর্গের প্রয়োজন। এটা শুধুমাত্র দৌড়াদৌড়ি করে জায়গা খোঁজা, কিছু ফোনালাপ, কাগজপত্রের কাজ কিংবা ইন্টারনেট ব্রাউজিং নয়, সর্বোপরি এটা আপনার একার পক্ষে করা সম্ভবও নয়। আপনার সঙ্গী, পরিবারবর্গ, বন্ধুবান্ধবের সাহায্য নিন। এই কঠিন সময়ে আপনার লক্ষ্য অর্জনে আপনার পাশে বন্ধুর মত রয়েছে Bikroy.com/property, যা কিনা বাংলাদেশের অন্যতম বিশ্বস্ত সংস্থান। Bikroy.com বোঝে যে আপনার প্রয়োজনীয় সমস্ত জিনিসপত্র সরবরাহ করা ও আপনার সাহায্য করা কোনও সোজা কাজ নয়। যেখানে একটি বাড়ি কেনা বা ভাড়া করার অনেক ভালো ও খারাপ দিক আছে, সেখানে নিজের বলতে একটা ঠিকানা তৈরি করে নিতে পারার ক্ষমতা সত্যিই সুখকর।

আপনার স্বপ্নের ঠিকানা খুঁজে পাবার জন্য রইলো শুভকামনা!

সাবস্ক্রাইব করুন

No spam guarantee.

Comments

comments