প্রপার্টি

৬টি উপায় মেনে বাসা ভাড়া থেকে করুন সর্বোচ্চ উপার্জন

আপনার ভাড়া দেওয়ার একটি প্রপার্টি আছে মানেই সেটি আপনার আয়ের একটি উৎস। অন্যান্য ব্যবসার মতই এর সাফল্য এবং সংকটগুলো নির্ভর করে লাভ এবং লোকসানের উপরে। সুতরাং একজন প্রপার্টি মালিক হিসেবে বাসা থেকে সর্বোচ্চ উপার্জনের জন্য আপনার মেনে চলা সূত্রগুলো কী কী? 

২০২০ সালের মার্চ মাস পরবর্তী সময়ে বাংলাদেশের আবাসন খাত বেশ কিছু চড়াই-উৎরাই এর মধ্যে দিয়ে পার হয়েছে, যার ফলে এই খাত সংক্রান্ত সকল ব্যবসা কিছুটা হলেও ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে। তবে আশার কথা এই, বর্তমানে আবাসন খাত পুনরায় ঘুরে দাঁড়িয়েছে। 

আজকের লেখায় আমরা কীভাবে বাসা বা ফ্ল্যাট ভাড়া দেওয়ার মাধ্যমে আপনি সর্বোচ্চ উপার্জন করার পাশাপাশি ভাড়াটের সকল সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করতে পারবেন তা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেছি। 

কীভাবে বাসা ভাড়া থেকে সর্বোচ্চ উপার্জন করবেন? 

বাসা কিংবা ফ্ল্যাট ভাড়া দেওয়ার অন্যতম প্রধান একটি উদ্দেশ্য হচ্ছে অর্থ উপার্জন। Bikroy.com-এ পোস্টকৃত হাজারো বিজ্ঞাপন থেকে পাওয়া অভিজ্ঞতা থেকে আমরা শিখেছি ভাড়ার প্রপার্টির ব্যাপারে ঠিক কী কী জিনিস মাথায় রাখতে হয়। তাই অতিরিক্ত অর্থব্যয় না করে এখান থেকে এই ৬টি উপায় মেনে আপনার প্রপার্টির সর্বোচ্চ ভাড়া নিশ্চিত করুনঃ    

১. প্রতিনিয়ত আপনার প্রপার্টির রক্ষণাবেক্ষণ করুন

আপনার প্রপার্টি বা সম্পত্তির যত্ন নেওয়াটা খরচ সাপেক্ষ, তবে ভবিষ্যতের জন্য এটাই হতে পারে আপনার জন্য গুরুত্বপূর্ন একটি আর্থিক উৎস। এছাড়াও নিয়মিত যত্ন আপনার প্রপার্টিকে রাখবে সুরক্ষিত। যা যা মেনে চলতে পারেনঃ 

  • পরিবেশ-বান্ধব এবং বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী হোম এপ্লায়েন্স ব্যবহার করুন, যা আপনাকে দিবে নূন্যতম রক্ষণাবেক্ষণ, কম বিদ্যুৎ বিল, এবং কম মেরামতের ঝামেলা সহ অন্যান্য কিছু সুযোগ-সুবিধা।  
  • আপনার ফ্লোরিং-এর দিকে নজর দিন, পুরাতন অবস্থায় থাকলে নতুন করে নিন। এটি আপনাকে ভাড়া বাড়িয়ে নিতে সাহায্য করবে। 
  • কোনো মেরামতের প্রয়োজন হলে সাথে সাথে তা করিয়ে নিন। অপেক্ষা করলে ক্ষতির হার এবং মেরামতের খরচ উভয়ই বাড়তে পারে।  

অনেকক্ষেত্রে প্রপার্টির মালিকেরা ক্ষতিপূরণ স্বরূপ অগ্রিম কিছু টাকা ভাড়াটেদের কাছ থেকে নিয়ে থাকেন, তবে আপনি শুরুতেই আপনার ভাড়াটেকে এই জাতীয় ক্ষতি এড়িয়ে চলার তাগাদা দিলে আপনি প্রায় পুরো টাকাটাই তাদের ফেরত দিতে পারবেন। এছাড়াও বাড়ি, বাসা অথবা ফ্ল্যাটের যত্ন নেওয়ার অন্যতম প্রধান সুবিধা হলো তা দেখানো। ভাড়ার জন্য প্রপার্টি লিস্টিং করলে তা সহজেই গ্রাহকদের চোখে পড়বে। 

২. বর্তমান ভাড়ার বাজার যাচাই করুন

ভাড়া বাড়ানো আপনার জন্য লাভজনক হতে পারে সকল ক্ষেত্রেই। তবে মনে রাখতে হবে ভাড়া যেন সামঞ্জস্যপূর্ণ থাকে। আমাদের মতে, ভাড়া বাড়ানোর পূর্বে আপনার আশেপাশের বাসা অথবা ফ্ল্যাট ভাড়া কেমন তা যাচাই করে নেওয়া ভালো। 

ছোট শহরের তুলনায় মেট্রোপলিটন এলাকায় তুলনামূলক ভাড়ার হার বেশিই থাকে। তাই ভাড়া বৃদ্ধি করতে চাইলে আপনার এলাকায় ভাড়ার চাহিদা বেশি এমন সময় খুঁজে বের করুন। 

প্রপার্টির যাবতীয় উন্নয়ন করার মাধ্যমে ভাড়া বৃদ্ধি করা যেতে পারে। পাশাপাশি ঘরসজ্জা, নতুন হোম এপ্লায়েন্স লাগিয়ে নেওয়া, পুরনো ফ্লোরিং বদলানো, লিফট সুবিধা চালু করা ইত্যাদি আপনাকে ভাড়া বাড়াতে সহায়তা করতে পারে। 

৩. লিখিত চুক্তিপত্র ব্যবহার করুন সকল ক্ষেত্রে

একটি ভালো চুক্তিপত্র আপনাকে সকল শর্তাদি মেনে চলার মাধ্যমে অপ্রত্যাশিত ঝামেলা থেকে মুক্ত রাখতে পারে। যার মধ্যে রয়েছে উভয় পক্ষের মধ্যে যোগাযোগ, অধিকার, এবং অন্যান্য শর্ত সাপেক্ষে অন্যান্য সুযোগ-সুবিধার উল্লেখ।

যদিও আমাদের দেশে বেশিরভাগ প্রপার্টি মালিক মৌখিক ভাবেই বিভিন্ন চুক্তি করে থাকেন, তবে এটি পরবর্তী সময়ে নানা সমস্যার কারণ হতে পারে। একটি পূর্ণাঙ্গ চুক্তিপত্রের মধ্যে ভাড়ার পরিমাণ, ভাড়াটের বিস্তারিত তথ্য, এবং অন্যান্য শর্ত প্রদান করা থাকে। 

মূল ভাড়া ছাড়াও ভাড়াটের অন্যান্য খরচের ব্যাপারেও উল্লেখ করা থাকে লিখিত চুক্তিপত্রে। যেমন তাদেরকে যদি গ্যাস, বিদ্যুৎ, অথবা পানির খরচ আলাদাভাবে বহন করতে হয়, তা লিখিত আকারে চুক্তিপত্রে থাকতে হবে।   

৪. ভাড়াটে সম্পর্কে নিশ্চিত হয়ে নিন ভালোভাবে

আপনি যদি সত্যিই একজন ভালো ভাড়াটের খোঁজে থাকেন যে কিনা সময় মত আপনার যাবতীয় ভাড়া প্রদান করবে এবং আপনার প্রপার্টির যত্ন করবে, তাহলে ভাড়া দেওয়ার সময় নিম্নলিখিত বিষয়গুলো মাথায় রাখতে পারেনঃ 

  • আপনি যেসকল সুযোগ-সুবিধা দিতে পারবেন তা স্পষ্ট করে জানান, এবং তাদের কোনো চাহিদা আছে কিনা জেনে নিন
  • তাদেরকে ভাড়াটিয়া তথ্য ফর্ম জমা দিতে বলুন
  • জাতীয় পরিচয়পত্রের কপি নিন
  • ভাড়াটিয়া চাকুরীজীবী হলে অফিসে খোঁজ করতে পারেন (যাচাই করার জন্য)
  • তাদের ব্যবহার এবং অন্যান্য চাহিদাগুলো লক্ষ্য করুন 

৫. সম্পূর্ণ ব্যাপারটিকে পেশাদারিত্বের সাথে দেখুন

আপনার প্রপার্টি আপনার ব্যবসা, তাই আপনার ব্যবসার দেখভাল করার দায়িত্বও আপনার। প্রতিটি চুক্তিপত্রের কপি আপনার কাছে রাখুন, স্থানীয় ও ভাড়াটে আইন মেনে চলার চেষ্টা করুন, এবং আপনার ভাড়াটের সাথে পেশাদার আচরণ করুন। এছাড়াও আপনি ভাড়ার জন্য প্রপার্টির বিজ্ঞাপন দিলে নিয়মিত ইমেইল চেকিং, কল রিসিভ, এবং আগ্রহী ক্রেতাদের সাথে চ্যাটিং করুন। 

সম্পূর্ণ ব্যাপারটিকে পেশাদারিত্বের সাথে নিলে আপনি অনায়াসেই সর্বোচ্চ ভাড়া উপার্জন করতে সক্ষম হবেন, কারণ আপনি আপনার ভাড়াটেদের অথবা আগ্রহী ক্রেতাদেরকে সময়ানুযায়ী সকল সেবা দিতে সক্ষম হচ্ছেন। 

৬. ভালো ভাড়াটেদের সাথে ইতিবাচক সম্পর্ক রাখুন

বাসা ভাড়া থেকে ভালো উপার্জন করার আরও একটি প্রধান নিয়ম হলো ভাল ভাড়াটে রাখা। যারা সময়মত আপনার সকল ভারা পরিশোধ করে এবং আপনার প্রপার্টির খেয়াল রাখে। যেখানে অপ্রত্যাশিত ভাড়াটেরা আপনার প্রপার্টিকে হুমকির মুখে ফেলতে পারে। যার মধ্যে রয়েছে আইনি ঝামেলা, প্রপার্টির ক্ষতিসাধন করা, এবং ভাড়া পরিশোধ না করা। 

ভালো ভাড়াটে খুঁজে পেতে কিছুটা সময় লাগলেও, খুঁজে নিতে যা যা প্রয়োজন হতে পারেঃ 

  • বিজ্ঞাপনের বিস্তারিত তথ্য
  • ভাড়াটেকে যাচাই করে নেওয়া 
  • সকল চুক্তিপত্রে উভয়পক্ষের সম্মতি দেওয়া
  • কাগজপত্র যাচাই করে নেওয়া 
  • বর্তমান ভাড়াটেকে অন্যত্র চলে যাওয়ার নির্দেশনা দেওয়া

এছাড়াও আপনাকে যদি ভাড়া দেওয়ার আগে ঘরসজ্জার কাজ করতে হয়, তাহলে তা খরচ সাপেক্ষ হবে। তাই এই জাতীয় খরচ থেকে দূরে থাকতে ভাড়া দেওয়ার আগেই আপনার ভাড়াটের সাথে বোঝাপড়া করে নিন। 

শেষকথা

এই ছোট অথচ প্রয়োজনীয় পদক্ষেপগুলো আপনার ভাড়া দেওয়ার ব্যবসাকে লাভজনক করে তুলতে সাহায্য করবে। ঘরসজ্জা থেকে সঠিক ভাড়াটে বেছে নেওয়া প্রায় সবই গুরুত্বপূর্ণ। 

আমরা আশা করি, উপরোক্ত ৬টি নিয়ম মেনে চলার মাধ্যমে আপনি আপনার ফ্ল্যাট বা বাসা ভাড়া দেওয়ার মাধ্যমে সর্বোচ্চ আয় করতে পারবেন। 

আপনার জন্য শুভকামনা!  

Facebook Comments
সাবস্ক্রাইব করুন

No spam guarantee.

আরও দেখুন

অনুরূপ লেখা গুলো

Back to top button
Close
Close