আপনার ফ্ল্যাটটি ভাড়া দেওয়ার আগে যে ৫টি জিনিস জানা প্রয়োজন

Share

প্রচলিত আছে যে প্রপার্টিতে বিনিয়োগ করা সব সময়ই একটি স্মার্ট সিদ্ধান্ত। কিন্তু আপনার যদি আগে থেকেই একটি ফ্ল্যাট থাকে তাহলে নতুন আরেকটি দিয়ে আপনি ঠিক কি করবেন? অবশ্যই সেটি ভাড়া দিবেন কাউকে!

ঢাকা শহরে চাকরি না করে সম্ভবত টাকা কামানোর সবচেয়ে নিরাপদ ও লাভজনক উৎস হচ্ছে প্রপার্টি অর্থাৎ ফ্ল্যাট ভাড়া দেয়া। কিন্তু যেকোনো প্রপার্টিতে বিনিয়োগ করার সিদ্ধান্ত নেয়ার আগে আপনার জেনে রাখা উচিত যে একজন বাড়িওয়ালা বা জমিদার হওয়া মানে শুধুই একজন ভাড়াটিয়া খুঁজে প্রপার্টি লিজ দেয়া এবং মাসে মাসে টাকা কামানো নয়, বরং এর চেয়েও আরো বেশি কিছু।

আপনার ফ্ল্যাটটি ভাড়া দেয়ার চিন্তা করার আগে সেটির রক্ষণাবেক্ষণ ও পরিচর্যা করাটাও সমান গুরুত্বপূর্ণ। কেননা আলাপ আলোচনা চলাকালীন সময়ে আপনি যদি সম্ভাব্য ভাড়াটিয়াদের সাথে দেখা না করেন এবং আপনার ফ্ল্যাটটি তাদের বসবাসের জন্য উপযুক্ত অবস্থায় না রাখেন, তাহলে আসলে কেউই আপনার প্রপার্টি ভাড়া নিতে চাইবেন না।

তবে খুশির খবর হলো এই যে, আমরা ইতোমধ্যে আপনার জন্য এমন কিছু জরুরি পদক্ষেপের তালিকা তৈরি করেছি, যা আপনাকে আপনার ফ্ল্যাট ভাড়া দেয়ার আগে সম্পূর্ণ প্রস্তুতি নিতে সাহায্য করবে। যাতে করে আপনারা সঠিক সময় আসলে ঠিক কি কি ঘটতে পারে তা আগে থেকেই বুঝতে পারেন।

ভাড়া দেয়ার আগে যে ৫টি জিনিস জানা দরকার

১. ফ্ল্যাটটি প্রস্তুত করা

সম্ভাব্য ভাড়াটিয়াদের ফ্ল্যাট দেখানোর আগে বেশির ভাগ বাড়িওয়ালারাই যে জিনিসটা ভুলে যান বা খেয়াল রাখেন না, তা হলো এর সাজসজ্জা ও পূর্ব প্রস্তুতি। একজন ভাড়াটিয়ার ভাড়ার জন্য ফ্ল্যাট বেছে নেয়ার সিদ্ধান্তে পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা যে কি ব্যাপক প্রভাব ফেলতে পারে, সেটা আসলে অবাক করার মত কিছু নয়।

প্রস্তুতি নেয়ার সময় যে জায়গাগুলোর দিকে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব আরোপ করতে হবে তা হলো বাথরুম ও রান্নাঘর। সম্ভাব্য ভাড়াটিয়াদের আপনার ফ্ল্যাটটি ঘুরিয়ে দেখানোর আগে এই জায়গাগুলো যথাযথ ভাবে পরিস্কার করা এবং যতটা সম্ভব উপস্থাপন উপযোগী করে নেয়া যায় তা নিশ্চিত করতে হবে।

অন্যান্য কিছু ধাপ, যেমন- নতুন করে রঙ করানো আপনার ফ্ল্যাটের জরাজীর্ণ ও বেহাল চেহারাকে বদলে প্রায় নতুনের মত ফ্ল্যাট প্রাণোচ্ছল এক পরিবেশ এনে দিতে পারে! এতে করে ভাড়াটিয়াদের মনে আপনার প্রপার্টির ব্যাপারে একটি দারুণ ইতিবাচক মনোভাব তৈরি হবে এবং তারা ভাড়া নিতে বেশি আগ্রহী হয়ে উঠবেন। এমনকি হয়ত তারা কিছুটা বেশি ভাড়া দিতেও সংকোচ করবেন না।

২. একটি কার্যকরী প্রচারণা পরিকল্পনা তৈরি করা

আপনার ফ্ল্যাটটি প্রস্তুত ও উপস্থাপন যোগ্য করে তোলার পর সেটির প্রচারণা করা অর্থাৎ বিজ্ঞাপন দেয়া প্রয়োজন। এর জন্য সবচেয়ে প্রচলিত ও জনপ্রিয় একটি উপায় হচ্ছে আপনার বিল্ডিং এর সামনে একটি ‘টু-লেট’ বা ‘ভাড়া হবে’ লেখা সাইনবোর্ড টানিয়ে দেয়া। বলাই বাহুল্য যে এই সাইনবোর্ড শুধুমাত্র আশে পাশে চলাচলকারী ব্যক্তিদের চোখে পড়বে, আর বড়জোর তারা দেখতে পাবেন যারা আপনার এলাকায় ভাড়া বাসা খোঁজার জন্য মরিয়া হয়ে ঘুরছেন। এছাড়াও আগেকার দিনে মানুষ লোকাল নিউজ পেপারগুলোয় তাদের ফ্ল্যাট ভাড়া দেয়ার বিজ্ঞাপন দিতেন। তবে আজকের ডিজিটাল যুগে ইন্টারনেটে ভাড়ার  জন্য বিজ্ঞাপন দেয়াটা নিউজ পেপারের তুলনায় সবার জন্য বেশ সহজ ও যুগোপযোগী হয়ে উঠেছে, একই সাথে সম্ভাব্য ভাড়াটিয়াদের আকৃষ্ট করার ব্যাপারে এই মাধ্যমের কার্যকারিতাও অনেক বেশি।

Bikroy -এর ডিজিটাল প্রপার্টি প্ল্যাটফর্মের কথাই ধরা যাক। শত শত ইউজাররা প্রতিদিন আমাদের সাইটে বিভিন্ন ধরণের ফ্ল্যাট ভাড়া ও বিক্রির বিজ্ঞাপন পোস্ট করছেন, তাছাড়াও কিছু কিছু লোক সোশ্যাল মিডিয়ায়ও বিজ্ঞাপন দিচ্ছেন। আপনার ফ্ল্যাট সম্পর্কে মানুষকে জানানোর জন্য এবং আরো বেশি সংখ্যক আগ্রহী ভাড়াটিয়াদের সন্ধান পাওয়ার জন্য অনলাইনে বিজ্ঞাপন পোস্ট করাটা এখন সবচেয়ে সাশ্রয়ী ও কার্যকরী বিকল্প হয়ে দাঁড়িয়েছে।

ভাড়া দেয়ার সময় সঠিক ধরণের ভাড়াটিয়া খুঁজে পাওয়া বা আকৃষ্ট করে আনাটাও বেশ জরুরি একটা ব্যাপার। আপনার ফ্ল্যাটে থাকতে আগ্রহী যে কোন ব্যক্তিই যে আপনার জন্য সঠিক হবে, অর্থাৎ বাড়িওয়ালা-ভাড়াটিয়া সম্পর্কের প্রতি আপনার যেমন ধারণা ও প্রত্যাশা সেরকমটাই ধরে রাখতে পারবে এমন কোন কথা নেই। মনের মত ও আপনার জন্য উপযুক্ত  ভাড়াটিয়া পেতে হলে সঠিক পদ্ধতিতে আপনার ফ্ল্যাটের প্রচারণা চালাতে হবে। বিভিন্ন রকম উপায়ের মধ্যে একটি হচ্ছে আপনার এলাকায় আশে পাশে যেসব বাসা ভাড়ার বিজ্ঞাপন দেয়া হচ্ছে সেগুলো রিসার্চ করে দেখা এবং অন্যান্য বাড়িওয়ালারা কি রকম ভাড়া দাবি করছেন ও কেমন সুবিধা দিচ্ছেন বা দিচ্ছেন না সেগুলো জেনে নেয়া।

আপনার এলাকার অন্যান্য ফ্ল্যাটগুলো সম্পর্কে ধারণা নেয়া এবং তাদের সাথে আপনার প্রপার্টির গুণগত বিশ্লেষণ করার পর আপনার ফ্ল্যাটটির জন্য সঠিক ভাড়া নির্ধারণ করা এবং সর্বোচ্চ সাড়া পাওয়ার মত করে মার্কেটিং করা আপনার জন্য খুবই সহজ হয়ে যাবে। তা না হলে হয়ত আপনার ফ্ল্যাট দেখতে কখনও কখনও মাসের পর মাস কোন ভাড়াটিয়া নাও আসতে পারে। ফলে চূড়ান্ত ভাবে আপনার বিনিয়োগের জায়গায় বেশ খানিকটা লস হয়ে যেতে পারে।

৩. সঠিক ভাড়াটিয়া বাছাই করার নিয়ম

আপনার ফ্ল্যাটটির সফল ভাবে প্রচারণা করার পর আপনার কাছে বেশ কিছু আগ্রহী লোকজন আসার সম্ভাবনা রয়েছে যারা আপনার প্রপার্টিটি ভাড়া নিতে ইচ্ছুক।

এদের মধ্যে কার কাছে আপনার মূল্যবান প্রপার্টিটি ভাড়া দেবেন সেটা যাচাই করার জন্য তাদের ইতিহাস ও যাবতীয় তথ্য চেক করে দেখা এবং উপযুক্ত ভাড়াটিয়াদের তালিকা তৈরি করা বেশ গুরুত্বপূর্ণ একটি ধাপ। কারণ আপনি নিশ্চয়ই চাইবেন না, যাচাই বাছাই ঠিকভাবে না করার কারণে ভবিষ্যতে কোন রকম ঝামেলা তৈরি হোক, বা বার বার ভাড়াটিয়া পরিবর্তন করতে হোক।

কাকে ভাড়া দেবেন সেটার সিদ্ধান্ত নেয়ার সময় সেই ভাড়াটিয়া ব্যক্তিটির আর্থিক অবস্থা কেমন কিংবা ইনকামের উৎস কতটা নির্ভরযোগ্য এসব নিশ্চিত হয়ে নেয়াটাও  খুবই জরুরি। কেননা আপনি প্রতি মাসে ধারাবাহিক ভাবে একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ ভাড়া কোন রকম ঝুট ঝামেলা ছাড়াই পেতে চাবেন এটাই স্বাভাবিক।

যদি সম্ভব হয়, তাহলে একজন সম্ভাব্য ভাড়াটিয়ার পেশা, অতীত ও বর্তমান আর্থিক বিবৃতি এবং আয়ের সীমা, একই সাথে তার পরিবারের সদস্যদের যাবতীয় বিবরণ ইত্যাদি সমস্ত তথ্য জেনে নেয়ার চেষ্টা করুন। এছাড়াও আগের বাড়িওয়ালা বা ফ্ল্যাট মালিকদের রেফারেন্স চেয়ে নেয়া ভালো, যাতে করে তাদের ইতিহাস ভালোভাবে জানা যায়। এই সমস্ত তথ্য আপনাকে একজন ভাড়াটিয়া কতটুকু নির্ভরযোগ্য এবং তারা নিয়মিত মাসিক ভাড়া ও আনুষঙ্গিক বিলগুলো আদায় করতে পারবেন কি না সেটা পরিস্কার ভাবে বুঝতে সাহায্য করবে।

এই প্রক্রিয়াটি আরো সহজ করার একটি উপায় হচ্ছে একজন রিয়েল এস্টেট এজেন্ট ভাড়া করা, যিনি একটি নির্দিষ্ট পারিশ্রমিকের বিনিময়ে আপনার প্রপার্টির জন্য একজন আদর্শ ভাড়াটিয়া খুঁজে আনতে পারবেন। এই ব্যাপারে একজন এজেন্টের সহযোগিতা নেয়ার মাধ্যমে আপনি নিজে কষ্ট করে ইতিহাস ও তথ্য ঘাঁটা ও যাচাই বাছাই করার ঝামেলা থেকে বেঁচে যাবেন এবং একজন ভালো ও দীর্ঘস্থায়ী ভাড়াটিয়া পাওয়ার নিশ্চয়তা পাবেন।

৪. চুক্তিনামা বা কনট্র্যাক্ট প্রস্তুত করা

চুক্তিনামা বা কনট্র্যাক্ট হচ্ছে আপনার ও আপনার ভাড়াটিয়ার মধ্যে হওয়া চুক্তির এক অবিচ্ছেদ্য অংশ। এটি হলো এমন একটি বাধাই করা দলিল যাতে সব রকম গুরুত্বপূর্ণ তথ্যের বিবরণ, যেমন- ভাড়ার নির্ধারিত সময়কাল, প্রতি মাসে বা নির্ধারিত সময় পর পর যে পরিমাণ ভাড়া আদায় করতে হবে, এছাড়াও ভাড়া দেয়ার আগে যে সমস্ত শর্ত বা চুক্তি করা হয়েছে ইত্যাদি লেখা থাকে।

এই ডকুমেন্টটি শুধুমাত্র আপনার ও আপনার ভাড়াটিয়ার মধ্যে ঠিক হওয়া শর্তাবলীই রাখবে না, বরং এটি আপনার জন্য এক রকম আইনি নিরাপত্তা হিসেবেও কাজ করবে, বিশেষ করে যখন অপরিকল্পিত বা অনাকাঙ্ক্ষিত কোন পরিস্থিতি চলে আসে। ঠিক এই কারণেই উপরে উল্লেখিত অন্যান্য সকল পদক্ষেপের মত চুক্তিনামা তৈরি করাটাও অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি ধাপ।

প্রকৃতপক্ষে একটি ভালো চুক্তিনামায় অন্তত নিচে উল্লেখ করা কিছু বিষয় অবশ্যই থাকা উচিতঃ

  • বাড়িওয়ালার আইনগত বাধ্যবাধকতা এবং দায়িত্বের বিবরণ
  • একজন ভাড়াটিয়ার আইনগত বাধ্যবাধকতা
  • ভাড়াটিয়া এবং বাড়িওয়ালার ব্যাপারে যাবতীয় তথ্য, যেমন- নাম, যোগাযোগের ঠিকানা, ফোন নাম্বার ইত্যাদি।
  • ভাড়া থাকার নির্ধারিত সময়কাল, আর তার সাথে কখন ও কি পরিমাণ ভাড়া আদায় করতে হবে সেই বিবৃতি
  • নিরাপত্তা হিসেবে কি পরিমাণ টাকা অ্যাডভান্স জমা দিতে হবে
  • ভাড়াটিয়া উচ্ছেদ বা বাসা ছাড়ার নিয়মাবলি
  • ভাড়াটিয়ার দিক থেকে চুক্তি অবসানের প্রক্রিয়া ও নিয়ম
  • পানি, গ্যাস, বিদ্যুৎ ইত্যাদি সুবিধা, মেরামত, রক্ষণাবেক্ষণ, পার্কিং ফি ইত্যাদি বিবিধ বিষয়ের বর্ণনা

একটি বিস্তারিত ও স্বচ্ছ চুক্তিনামা তৈরির সবচেয়ে বড় উদ্দেশ্য হল যেকোনো আইনি সমস্যা উঠে আসলে যেনো উভয় পক্ষের লোকজন নিরাপদ থাকতে পারেন। এই উপায়ে যেকোন প্রতিকূল পরিস্থিতি বা পরিণতি ঘটলে যেকোনো এক পক্ষের ব্যক্তির কোন রকম বড় ক্ষয়ক্ষতি ছাড়াই ভাড়া দেয়া ও নেয়ার প্রক্রিয়াটি সুন্দর ও বাধাহীন ভাবে সম্পন্ন করা সম্ভব।

৫. মনে রাখার মত অন্যান্য জরুরি বিষয়

আপনার নিয়ন্ত্রণের বাইরে এমন কিছু বিষয় রয়েছে যেগুলো সম্ভাব্য ভাড়াটিয়াদের আপনার ফ্ল্যাটটি পছন্দ করা বা না করার ব্যাপারে বেশ প্রভাব ফেলতে পারে। যেকোনো ব্যক্তি একটি প্রপার্টি ভাড়া নেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়ার আগে আপনার ফ্ল্যাটের অবস্থান, প্রতিবেশী, বিল্ডিং ম্যানেজার ইত্যাদির মত গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলো নিয়ে ভাবনা চিন্তা করেন।

অবস্থান

আপনার ফ্ল্যাটটি যদি কোন প্রত্যন্ত বা নির্জন এলাকায় অবস্থিত হয়, তাহলে সেখানে ভাড়াটিয়ারা কম ভাড়ায় বাসা পাওয়ার আশা করতে পারেন। এই ধরণের এলাকায় আপনি যদি তুলনামূলক বেশি ভাড়া দাবি করেন, তাহলে আগ্রহী ভাড়াটিয়া পাওয়ার সম্ভাবনা আপনার অনেক কম। অপরদিকে যদি আপনার প্রপার্টিটি একটি ব্যস্ত শহুরে এলাকায় অবস্থিত হয়, তাহলে আপনার উচিত কিছুটা বেশি ভাড়া দাবি করা, কেননা মহানগরীর ফ্ল্যাটগুলোর চাহিদা সচরাচর অনেক বেশি থাকে। যদি আপনি এক্ষেত্রে কম ভাড়া দাবি করেন, তাহলে সেখান থেকে পর্যাপ্ত লাভ করতে পারবেন না কখনও। আবার ভাড়াটিয়ারা কম ভাড়া দেখে বিভিন্ন বিষয়ে সন্দেহ করতে পারেন।

এছাড়াও যেসব এলাকায় আপনার প্রপার্টির চারিদিকে নির্মাণ কাজ চলতে থাকবে, সেই ফ্ল্যাটগুলো ভাড়াটিয়াদের জন্য আপত্তিকর বা অপছন্দ হওয়ার সম্ভাবনাই সবচেয়ে বেশি, কেননা এসব জায়গায় শব্দ ও দূষণের মাত্রা অত্যাধিক।

প্রতিবেশী

সম্ভাব্য ভাড়াটিয়াদের সিদ্ধান্ত নেয়ার পেছনে আপনার ফ্ল্যাটের চারপাশের প্রতিবেশীরা ব্যাপক ভূমিকা রাখতে পারেন। টিভি কিংবা স্টেরিও স্পিকারের বিকট আওয়াজ, পারিবারিক কলহ বা ঘন ঘন ঝগড়া ও চিৎকার চেঁচামেচির শব্দ, সশব্দ ও চিৎকার করতে থাকা পোষা প্রাণী ইত্যাদি সব কিছুই একজন সম্ভাব্য বা নতুন ভাড়াটিয়ার জন্য বিরক্তিকর ও অরুচিকর অভিজ্ঞতার কারণ হতে পারে।

বিল্ডিং ম্যানেজার

যেকোনো সমস্যার আবির্ভাব হলে সচরাচর ভাড়াটিয়ারা প্রথমেই তাদের বিল্ডিং ম্যানেজার বা সুপারিনটেনডেন্টের কাছে যেয়ে থাকেন। ভাড়াটিয়ারা ভাড়া নেয়ার আগে অন্যান্য বিষয়ের পাশাপাশি একজন সাহায্যকারী ও ভালো ম্যানেজারের খোঁজও করে থাকেন। আপনার বিল্ডিং এর সুপার যদি সহযোগী ও সাহায্যকারী মনোভাবের না হন, কিংবা সোজা কথায় অভদ্র ও উদাসীন হন, তাহলে ভাড়াটিয়ারা সেই বাসায় খুব বেশি দিন থাকতে চাইবেন না এটাই স্বাভাবিক।

একই ভাবে আপনার বিল্ডিং ম্যানেজার খারাপ হলে সেটা বাড়িওয়ালা হিসেবে আপনার জন্যও বেশ অসুবিধার কারণ হয়ে উঠবে। কেননা তখন একেক জন ভাড়াটিয়ার ছোট বড় সব রকম সমস্যার সাথে আপনাকে একা মোকাবিলা করতে হবে।

শেষ কথন

এখন আপনি জেনে গেছেন আপনার ফ্ল্যাটটি ভাড়া দেয়ার আগে কোন কোন বিষয়গুলো আপনাকে আগেই ভেবে দেখতে হবে। আমাদের উপরের গাইডলাইনগুলো ঠিকভাবে মেনে চললে আপনার ও আপনার ভাড়াটিয়ার মধ্যে এমন একটি ভালো সম্পর্ক নিশ্চিত করতে পারবেন, যেখানে দু’জনেরই লাভ থাকবে এবং সব মিলিয়ে সবার বেশ একটা মনোরম অভিজ্ঞতাও হবে।

আপনি কি আপনার ফ্ল্যাটটি ভাড়া দিতে চাচ্ছেন? আজই আপনার খালি প্রপার্টির বিজ্ঞাপন পোস্ট করুন Bikroy.com -এ! প্রতিদিন শত শত আগ্রহী ভাড়াটিয়ারা Bikroy -এর প্রপার্টি পোর্টাল ভিজিট করেন এবং ফ্ল্যাটের বিজ্ঞাপন খোঁজেন। আপনার প্রপার্টির জন্য সঠিক ক্যাটাগরিটি বেছে নিন, আর আপনার অ্যাডটি দ্রুত মানুষের চোখে পড়ার জন্য লুফে নিন একটি ‘টপ অ্যাড’ কিংবা ‘বাম্প আপ’ এর অফার!

ফ্ল্যাট ভাড়া দেয়ার ব্যাপারে আরও কোন পদক্ষেপের কথা আপনার মাথায় এসেছে কি? জানান আমাদের কমেন্ট সেকশনে!

Pujan Editor
SEO Specialist | Bikroy.com
follow me
সাবস্ক্রাইব করুন

No spam guarantee.

Comments

comments