জাবিতে Bikroy-এর ‘দি গেইম চেঞ্জার’ বিজয়ীদের নাম ঘোষণা

Game Changer
Share

বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় মার্কেটপ্লেস Bikroy.com সম্প্রতি জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় প্রশাসন ইনস্টিটিউটের (আইবিএ এবং ফ্যাকাল্টি অফ বিজনেস) ছাত্রছাত্রীদের অংশগ্রহণে ‘দি গেইম চেঞ্জার’ শীর্ষক বিজনেস প্ল্যান কমপিটিশন বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করেছে, বিশ্ববিদ্যালয়ের অডিটরিয়ামে আয়োজিত এই প্রতিযোগিতার গ্র্যান্ড ফিনালে অনুষ্ঠানে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়।

উদ্ভাবনী ভাবনাকে তুলে ধরতে সৃজনশীলদের আমন্ত্রণ’ ট্যাগলাইন নিয়ে প্রায় মাসব্যাপি আয়োজিত এই প্রতিযোগিতায় বিশ্ববিদ্যালয়ের আইবিএ এবং ফ্যাকাল্টি অব বিজনেস -এর ছাত্রছাত্রীদের সাতটি দল প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে এবং চূড়ান্তভাবে চারটি দল ফাইনালে অংশগ্রহণ করে। বাংলাদেশে ই কমার্স বিজনেসের প্রসার এবং প্রচার কে আরও সমৃদ্ধ করার উপরে নতুন কিছু ধারনার উদ্ভাবন ই ছিল এই প্রতিযোগিতার মুল বিষয়বস্তু। মাস ব্যাপী এই প্রতিযোগিতার মধ্য দিয়ে উঠে এসেছে প্রতিযোগীদের অভাবনীয় প্রতিভা। প্রতিযোতিার মাধ্যমে অংশগ্রহণকারীরা ই-কমার্স ব্যবসা সম্পর্কে বাস্তবভিত্তিক জ্ঞান অর্জন করতে সক্ষম হয় এবং অনলাইন প্ল্যাটফর্ম কে কিভাবে আরও কাজে লাগিয়ে জনসাধারণের নিকট আরও গ্রহনযোগ্য করে তুলে ধরা যায় তা নিয়ে নানান আলোচনা করা হয়। প্রতিযোগিতায় বিজয়ী দলকে পুরষ্কার হিসেবে ৩০,০০০ টাকা এবং রানার আপ দলকে ২০,০০০ টাকা দেওয়া হয়।

প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হয় আইবিএ-এর দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী শেখ আবদুল্লাহ বিন আলম এবং জারিন নওরিন শরীফ-এর দল ‘জিওএটি’ এবং রানার আপ হয় প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী আবদুল্লাহ আল মাশরুক আনিম, সাদ শাহ আলী এবং আশফাক জামান এর দল ‘টারজান’। গ্র্যান্ড ফিনালে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের আইবিএ-এর সহযোগী অধ্যাপক ড. শেখ মোহাম্মদ রাফিউল হক, চৌধুরী গোলাম কিবরিয়া, Bikroy-এর মার্কেটিং এন্ড অ্যাড সেল্স ডিরেক্টর ঈশিতা শারমিন, হেড অব ভেহিকেল্স এন্ড প্রোপার্টি ইসা আবরার, হেড অব এইচআর রেহেনুমা ইসলাম এবং হেড অব জব্স ইয়াসিন আরাফাত।

winner team of game changer

বিজয়ী দল ‘জিওএটি’ থেকে  শেখ আবদুল্লাহ বিন আলম অনুভূতি ব্যাক্ত করতে গিয়ে জানায়–“Bikroy-এর প্রতিযোগিতায় আমাদের যাত্রার শুরুর দিক থেকে চূড়ান্তভাবে মনোনীত হওয়া এবং বিজয় লাভ করার প্রতিটি মুহূর্ত ছিল ভীষণ রোমাঞ্চকর। মার্কেট রিসার্চ এবং অর্গানাইজেশনের অভ্যন্তরীণ গঠন জানাতে আমাদের দলটি প্রচুর পরিশ্রম করে। আমরা নানান অফিস ভিসিট করি, কর্মচারীদের জরিপ করি, এবং গভীর ভাবে আমাদের টার্গেট গ্রুপ কে জানার চেস্টা করি। অনেক গঠনমূলক চিন্তাভাবনার পর অবশেষে আমরা এর সমাধান বের করতে সক্ষম হই। আমাদের আরেক জন টিম মেম্বার যে একটি সড়ক দুর্ঘটনার কবলে পরে প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহন করতে পারে নি , তাকে ছাড়া এত কিছু করা সহজ হত না, সে আমাদের নানান ভাবে উতসাহ ও প্রেরনা দিয়ে গেছেতবে এত কিছুর পরও আমরা আমাদের কাজ চালিয়ে গিয়েছি, ফাইনালে নিজেদের স্থান করে নিয়েছি । তবে ফাইনাল পর্ব যে খুব সহজ ছিল তা নয়, তবে আমরা শেষ পর্যন্ত চেস্টা করে গিয়েছি। Bikroy একটি চমৎকার প্রস্তুতির মাধ্যমে একটি সফল প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছে। প্রতিযোগীদের বিজনেস মডেল গঠন, মার্কেটিং প্রচারণা এবং অর্থনৈতিক  কার্যক্রম কিভাবে পরিচালিত হয় সেসব জানার সুযোগ করে দিয়েছে। প্রতিযোগিতার মাধ্যমে আমরা অনেক কিছু জানতে এবং শিখতে পেরেছি। অবশেষে, আমাদের সকল চেস্টা আলোকিত হয়ে আমাদের বিজয়ী হওয়ার সুযোগ করে দিল। আমি আমার টিমের সাফল্যে ভীষণ গর্বিত। । Bikroy-এর সাথে আমাদের কাজ করার অভিজ্ঞতাটি চমৎকার ছিল এবং প্রতিযোগিতার প্রতিটি বিষয় অত্যন্ত আকর্ষণীও ছিল।.”

game changer rnunner up

রানার্স আপ দল “টিম টারজান” তাদের অনুভূতি ব্যাক্ত করতে গিয়ে বলে- “Bikroy-এর চমৎকার এই আয়োজনে জন্য আমরা আন্তরিক ভাবে তাদের অনেক ধন্যবাদ জানাই। কেস এর জন্য কাজ করতে গিয়ে বিভিন্ন ধরনের মার্কেটিং রিসার্চের মাধ্যমে আমারা অনেক নতুন কিছু জানতে এবং শিখতে পেরেছি। আমাদের মনে হয়েছে প্রতিযোগিতাটি আরও ব্যাপৃত হতে পারত তবে ফেসবুক ইভেন্ট পেজ আমাদের বিভিন্ন বিষয়ে আপডেটেড করে আমাদের জন্য সব কিছু আরও সহজ করে তুলেছে। প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে আমরা অত্যন্ত আনন্দিত ।আশা করছি সামনের বছর Bikroy আমাদের জন্য আরও বড়, আরও সুন্দর, আরও উদ্ভাবনমূলক আয়োজন নিয়ে আসবে।”

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে এই আয়োজন সর্ম্পকে আইবিএ-এর সহযোগী অধ্যাপক চৌধুরী গোলাম কিবরিয়া বলেন, ‘এটি দারুণ রোমাঞ্চকর এবং উৎসাহব্যাঞ্জক একটি আয়োজন। ব্যবসা প্রতিষ্ঠানসমূহে ছাত্র-ছাত্রীদের জ্ঞানকে প্রয়োগ করার ক্ষেত্রে এটি চমৎকার একটি সুযোগ। শ্রেণিকক্ষ ও লাইব্রেরিতে তারা যে জ্ঞান অর্জন করেছে তা প্রয়োগ করার মাধ্যমে এটি তাদের যোগ্যতাকে আরও জোরাল করেছে। আমি bikroy.com কে আহ্বান জানাই যাতে তারা ভবিষ্যতেও এ ধরনের অব্যাহত রাখে’।

ঈশিতা শারমিন বলেন, ‘বাংলাদেশে ই-কমার্স ব্যবসা এখন ব্যাপক সম্ভাবনাময়। এই খাতে প্রচুর নবীন উদ্যোক্তা ও জনশক্তি দরকার। ব্যবসায় বিভাগের ছাত্রছাত্রীরা সিলেবাস ভিত্তিক পড়াশোনার পাশাপাশি কিছু ব্যবহারিক জ্ঞান অর্জন করতে পারলে ভবিষ্যতে এই খাতে তাদের বিচরণ আরও সহজ হবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের তেমনই কিছু বাস্তবভিত্তিক সমস্যার সমাধান করতে দেওয়ার মাধ্যমে bikroy.com আগামী দিনের তরুণ উদ্যোক্তাদের উৎসাহী করতে চায়। সেজন্য আমরা প্রথমবারের মতো এই বিজনেস প্ল্যান কমপিটিশন নিয়ে এসেছি এবং এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী সকল প্রতিযোগিকে Bikroy-এর পক্ষ থেকে আন্তরিক অভিনন্দন জানাচ্ছি। আমরা আশা করি, এর মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা তাদের অর্জিত অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে পেশাগত জীবনে সফল হবে’।

সাবস্ক্রাইব করুন

No spam guarantee.

Comments

comments