চাকরি

অনলাইন ইন্টারভিউ | কী করবেন আর কী করবেন না

শিক্ষা জীবনের গন্ডি পেরিয়ে আমাদের পথচলায় যোগ হয় কর্মজীবনের নতুন আরেক অধ্যায়। কেউ শুরু করেন ব্যবসা, কেউবা আবার বেছে নেন চাকরি। তবে পেশা হিসেবে ব্যবসা থেকে চাকরিপ্রার্থীই সংখ্যায় অনেক বেশি হয়ে থাকে। আদতে চাকরি প্রার্থীদেরকে অনেকটাই চড়াই-উতরাই এর সম্মুখীন হতে হয়। দিনের পর দিন নিজেকে প্রস্তুত করতে হয় নতুন নতুন স্কিল ডেভেলপমেন্ট এবং পরিবর্তনের মাধ্যমে। দিন বদলেছে, তাই যুগের সাথে তাল মিলিয়ে এখন জব ইন্টারভিউও হচ্ছে অনলাইন প্ল্যাটফর্মগুলোতে। আপনি কি অনলাইন ইন্টারভিউ-এর জন্য পুরোপুরি প্রস্তুত? চলুন জেনে নেই অনলাইন ইন্টারভিউ-তে কী করবেন এবং কী করবেন না!  

অনলাইন ইন্টারভিউ বিষয়ক টিপস 

জীবন যুদ্ধে টিকে থাকা মানেই নিজেকে যেকোনো পরিস্থিতিতে খাপ খাইয়ে নেওয়া। এই কয়েক বছর আগেও আমাদের চাকরিতে আবেদন করতে হলে, সিভি ডাকযোগে পাঠাতে হতো। আর এখন ইন্টারনেট এর যুগে সিভি মুহূর্তেই পৌঁছে যায় আপনার হাতের এক ক্লিক-এ! সুতরাং দিন বদলের হাত ধরে জীবন বদলায়। করোনা মহামারির কারণেও তেমনি আমাদের জীবনে অনেক পরিবর্তন এসেছে। আগে যেখানে আমাদের সামনা-সামনি জব ইন্টারভিউ দিতে হতো, এখন প্রযুক্তির আশীর্বাদে আমরা ঘরে বসেই অনলাইনে ইন্টারভিউ দিতে পারছি! যেহেতু অনলাইন ইন্টারভিউ ব্যাপারটি আমাদের কাছে একদম নতুন বিষয়, সেহেতু অনেকেই খাপ-খাইয়ে নিতে পারছেন না। কিন্তু জীবন যুদ্ধে জয়ী হতে হলে দিন বদলের ডাকে তো সাড়া দিতেই হবে! 

অনেকেই অনলাইনে ইন্টারভিউ দিতে হবে শুনে ভয় পেয়ে যান। ভয় না পেয়ে নিজেকে মানসিকভাবে প্রস্তুত করুন। চাকরি খোঁজার সময়ই খেয়াল রাখুন অনলাইন ইন্টারভিউ-তে কী করণীয়, আর কী বর্জনীয়। 

অনলাইন ইন্টারভিউ হলে যা করণীয়

  • আপনার ডিভাইসটি প্রস্তুত রাখুন

আপনি যদি অনলাইন ইন্টারভিউ এর জন্য কল পেয়ে থাকেন, তাহলে আগেই আপনার ল্যাপটপ, ডেস্কটপ বা ফোন, যেই ডিভাইস দিয়ে আপনি অনলাইন ইন্টারভিউ দিবেন, তা চেক করে নিন। আপনার ডিভাইস-এর অডিও বা ভিডিও-তে কোনো সমস্যা থাকলে তা ইন্টারভিউ এর আগেই ঠিক করুন। আপনার ডিভাইসে যদি অনলাইন ইন্টারভিউ দেয়ার অ্যাপ যেমনঃ জুম, গুগল মিট ইত্যাদি না থাকে, তবে তা ডাউনলোড করে নিন। তাছাড়া আগে থেকেই যদি ইন্টারভিউ এর সময়টি ডিভাইস এ অ্যালার্ম হিসেবে সেট করে রাখেন, তাহলে ইন্টারভিউ এর সময় ভুলে যাবার কোনো সম্ভাবনাও থাকবে না। আর হ্যাঁ, অবশ্যই আগে থেকেই ডিভাইসটি চার্জ দিয়ে রাখবেন এবং ইলেক্ট্রিসিটি চলে গেলে যেন কোনো সমস্যায় না পরতে হয়, তাই নেট প্যাক কিনে রাখবেন।   

  • সঠিক জায়গা নির্বাচন করুন

অনেকেই ভেবে থাকি, বাসায় যেকোনো স্থানে বসে অনলাইন ইন্টারভিউ দিলেই হবে। এমন ধারণা থাকলে এখনি এই চিন্তা মাথা থেকে ঝেড়ে ফেলুন। একটু ভাবুন তো, আপনি যেখানে বসে অনলাইন এ ইন্টারভিউ দিচ্ছেন, তার পেছন দিয়ে যদি আপনার পরিবারের কেউ হাঁটা চলা করে, এতে করে আপনার মনোযোগে বিঘ্ন ঘটতে পারে  অথবা নিয়োগকারীও বিরক্ত হতে পারেন । তাছাড়া যদি এমন হয় ধরুন, আপনার পাশেই বাড়ির কেউ জোরে টিভি দেখছে কিংবা বাড়ির বাচ্চারা কান্না করছে, এমতাবস্থায়ও কিন্তু আপনার অনলাইন ইন্টারভিউ দিতে  অনেকটাই সমস্যা হবে।  

সুতরাং অনলাইন ইন্টারভিউ এর জন্য এমন একটি জায়গা নির্বাচন করুন, যেখানে আপনি নীরব, শান্ত পরিবেশে ইন্টারভিউ দিতে পারেন। এতে করে নিয়োগকারী ও আপনার মধ্যে কোনোভাবে ভুল বোঝাবোঝির আশঙ্কা থাকবে না। আর সম্ভব হলে এক রঙা দেয়ালের সামনে বসার চেষ্টা করবেন, এটি বেশ ভালো ফরমাল পরিবেশের সৃষ্টি করবে।  

  • পোশাক নির্বাচনে গুরুত্ব দিন

বাসায় বসে জব ইন্টারভিউ দিলে কি ক্যাজুয়াল পোশাকে ইন্টারভিউ দেয়া যাবে? মোটেই না! ফিজিক্যাল ইন্টারভিউ হলে আপনি যেভাবে প্রস্তুত হয়ে জব ইন্টারভিউ দিতে যেতেন, অনলাইন ইন্টারভিউ-এর ক্ষেত্রেও ঠিক সেভাবে ইন্টারভিউ গেটআপ নিতে হবে। আপনার অনলাইন ইন্টারভিউ গেটআপ এর জন্য ফরমাল গেটআপ নির্বাচন করুন। অর্থাৎ, হালকা এক রং এর মার্জিত পোশাক বেছে নিন। পরিপাটি হয়ে আত্মবিশ্বাস ও ব্যক্তিত্বকে ফুটিয়ে তুলুন অনলাইনেও। 

অনলাইন ইন্টারভিউ হলে যা বর্জনীয়  

  • অনলাইন প্ল্যাটফর্মগুলো সম্পর্কে ধারণা না রাখা 

অনলাইন ইন্টারভিউ হবে জানার পরও, আপনি যথা সময়ে অ্যাপ ডাউনলোড করেননি অথবা কিভাবে সেই অ্যাপটি ব্যবহার করতে হবে তা নিয়ে ধারণা নিয়ে রাখেননি। অথচ এই কারণে দেখা যাবে আপনার ইন্টারভিউ এর সময় আপনি সঠিক প্রস্তুতি নিতে পারছেন না। তাই, আগে থেকেই আপনার অনলাইন ইন্টারভিউ এর প্রস্তুতিতে অ্যাপ অর্থাৎ লগ ইন পাসওয়ার্ড, প্রোফাইল ছবি ইত্যাদি আপডেট করে নিন।

  • নোট নির্ভর হওয়া

অনেকেই অনলাইন ইন্টারভিউ হবে দেখে নিজেকে ভালো মতো প্রস্তুত না করে, হাতের কাছে সম্ভাব্য প্রশ্নের উত্তর এর জন্য নোট নিয়ে রাখেন এবং সেটা দেখে উত্তর দেয়ার চেষ্টা করেন কিন্তু নিয়োগকারী আপনার চোখ খুব ভালোভাবেই লক্ষ্য করে থাকেন। এটি খুবই দৃষ্টিকটু এবং নিয়োগকারীর কাছে আপনাকে একজন অযোগ্য প্রার্থী হিসেবে উপস্থাপিত করবে। সুতরাং সামনে নোট না রেখে নিজেকে সঠিকভাবে প্রস্তুতি করুন।   

  • বডি ল্যাংগুয়েজের দিকে নজর না দেয়া   

অনলাইন ইন্টারভিউ দেবার সময় বসার জন্য ভালো একটি স্থান নির্বাচন করুন। অনেকেই যেকোনো জায়গায় বসে পড়েন। যখন আপনি কথা বলার সময় খুব বেশি চেয়ার বা হাত নাড়াচাড়া করবেন তখন সেটি আপনার জন্য বিব্রতকর হবে আর নিয়োগকর্তাদের মনোযোগও আপনার কথার চাইতে এসব লক্ষ করতে ব্যস্ত থাকবে। 

  • ইন্টারভিউ চলার সময় ফোন ধরা 

অনেক সময় আবার দেখা যায় অনলাইন ইন্টারভিউ চলাকালীন কেউ কেউ মোবাইল ফোন রিসিভ করেন। এটা মোটেই সমীচীন নয়। এতে করে ইন্টারভিউয়ার-কে অপ্রস্তুত করা হয়। তাই যতক্ষণ অনলাইন ইন্টারভিউ চলবে ততক্ষণ আপনার মোবাইল ফোনটি বন্ধ রাখুন। 

শেষ কথা

আমরা সবাই ঘুচাতে চাই বেকার জীবন। বেকারত্বের ভার বয়ে চলা এক প্রকার অভিশাপ। নিজেকে তাই প্রস্তুত করুন সময়ের সাথে সাথে। এগিয়ে যাবার এ এক অন্য রকম যুদ্ধ। নিয়োগকারী হিসাবে চাকরি প্রার্থীদের মধ্যে যে সকল গুণ দেখে নেয়া জরুরি, তা নিয়ে নিয়োগকারীকেও নতুন করে ভাবতে হবে। আর আপনি যদি চাকরি প্রার্থী হয়ে থাকেন, তবে BikroyJOBS পোর্টালের মাধ্যমে খুঁজে পেতে পারেন আপনার পছন্দের চাকরি! 

সকলের জন্য রইলো অনেক শুভকামনা!

Facebook Comments
সাবস্ক্রাইব করুন

No spam guarantee.

আরও দেখুন

অনুরূপ লেখা গুলো

Back to top button
Close
Close