অনলাইনে কোরবানির গরু কেনার টিপস

Share

মনে হয় এই তো সেদিন আমরা ঈদ উল ফিতর উযাপন করলাম, অথচ ঈদ উল আযহার জন্য প্রস্তুতি নেবার সময় বলতে গেলে এসেই পরলো! ছোটবেলায় বাবার সাথে ঘটা করে গরুর হাটে যাওয়া আর হইচই করে কোরবানির গরু কেনার অনুভূতিগুলো আজও আমাদের স্মৃতিতে তাজা, কিন্তু সময় আজ সত্যিই অনেক বদলে গেছে। প্রতি বছর খোলা আকাশের নিচে গরু কেনার জায়গাগুলো দিন কে দিন যেন আরও অসহনীয় হয়ে উঠছে। আর সেজন্যই প্রতি বছর বেশি সংখ্যক মানুষ অনলাইন থেকে গরু কেনায় আগ্রহী হয়ে উঠছেন। যদিও আজ অবধি অনেকেই এইভাবে কেনাটা ঝুঁকিপূর্ণ মনে করেন এবং বাসা থেকে বের হয়ে নিজ চোখে গরু, ছাগল কিংবা উটগুলো দেখে ও যাচাই বাছাই করে কিনতেই বেশি স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করেন। কিন্তু তারপরও অনলাইনে গরু কেনাটা বেশ ভালো একটি বিকল্প হয়ে উঠেছে। অনলাইনে গরু কেনার স্বস্তি এবং কার্যকারিতা ইতোমধ্যে বেশ কিছুদিন যাবত আমরা দেখে এসেছি, আর তাই আমাদের বিশ্বাস, এই বছর আপনার পরিবারের জন্য পারফেক্ট গরুটি কিনতে আমাদের নিচের টিপস গুলো আপনার কাজে আসবে নিঃসন্দেহে!

খেয়াল রাখার মত কিছু দরকারি বিষয়

অনলাইন হোক কিংবা অন্য যেকোনো উপায়ে, আগাম কিছু করার আগেই কোরবানির গরু কেনার সময় দরকারি বিষয়গুলো জেনে নেয়া ভালো। কোরবানির ক্ষেত্রে গরুর বয়স খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। বয়স্ক গরুর মাংস সাধারণত বেশ শক্ত হয় ও রান্না করাও বেশ কঠিন, আবার বয়স খুব কম হলে হয়ত সেটা কোরবানির জন্য উপযুক্তই হবে না। পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্ত থেকে নানা রকম ব্রিডের গরু এ দেশে আনা হয়। তাই আপনি ঠিক কোন ব্রিডের গরু কিনতে চাচ্ছেন সেটার ব্যাপারেও আগে থেকে নিশ্চিত হয়ে নেয়া ভালো। আর এই ব্যাপারে যদি আপনি অভিজ্ঞ কাউকে সাথে নিয়ে হাটে যান, তাহলে আপনার কাজটা আরো সহজ হয়ে যাবে। আরো একটি গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার হচ্ছে, যে গরুটি আপনি পছন্দ করছেন সেটার সামগ্রিক স্বাস্থ্য কেমন তা যাচাই করে নেয়া। দুর্ভাগ্যের বিষয় হচ্ছে বেশির ভাগ সময়ই কোরবানির গরুগুলোকে নানা রকম স্টেরয়েড ও হরমোন ইনজেকশন দিয়ে মোটা তাজা করা হয়, যাতে করে ক্রেতারা সেগুলোর প্রতি বেশি আকৃষ্ট হন। কিন্তু এই রকম ইনজেকশন দেয়া গরুর মাংস স্বাস্থ্যের উপর বিরূপ প্রভাব ফেলতে পারে। এই ধরণের কেমিক্যাল থেকে ডায়বেটিস, ক্যানসার সহ আরো নানা রকম জটিল রোগের উৎপত্তি হতে পারে। আর ঠিক এই কারণেই কোরবানির জন্য একটি সুস্থ ও কেমিক্যালের প্রভাবমুক্ত গরু কেনার ক্ষেত্রে সময় নিয়ে যাচাই করা উচিত এবং শুধুমাত্র নিশ্চিত হওয়ার পরই একটি গরু কেনা উচিত।

মার্কেট থেকে কি আশা করা যেতে পারে?

সাম্প্রতিক বছরগুলোতে কোরবানির সময় গবাদি পশুর মার্কেট বেশ গতিশীল দেখা যাচ্ছে। গরু কিংবা ছাগলের দাম হুট করেই আকাশছোঁয়া হয়ে যায়, আবার কিছু সময় পরই আবার সেই দাম সাধ্যের মধ্যে নেমে আসে। তাই এ ব্যাপারে কিছুটা রিসার্চ করে নিলে তা সত্যিই আপনার জন্য বেশ উপকারি হয়ে উঠতে পারে। আপনার আত্মীয় স্বজন, বন্ধুবান্ধব কিংবা প্রতিবেশীদের মধ্যে যারা আগেই কাজটি সেরে ফেলেছেন তাদের সাথে আলাপ করে দেখুন, তাহলে মার্কেটের বর্তমান অবস্থা সম্পর্কে বেশ স্পষ্ট একটা ধারণা আপনার হয়ে যাবে। এই কাজটি অনলাইনেও করা সম্ভব। Bikroy – এর মত অনলাইন প্ল্যাটফর্ম গুলো ক্রেতাদের জন্য তুলনা ও যাচাই করার বেশ সহজ ও নির্ভরযোগ্য একটি মাধ্যম হতে পারে। সম্ভাব্য ক্রেতারা সহজেই এসব সাইটের “গবাদি পশু” ক্যাটাগরিতে সার্চ করে দেখতে পারেন এবং সেখানে থাকা বিজ্ঞাপনগুলো দেখে যাচাই বাছাই করতে পারেন। কয়েকটি বিজ্ঞাপনের দাম ও অফার তুলনা করে দেখলেই আপনি বুঝে যাবেন ঠিক কি আশা করা উচিত এবং সেটার জন্য আগাম প্রস্তুতি নিতে পারবেন।

এ ক্ষেত্রে আরও সাহায্য পেতে দেখে নিন গবাদি পশু মার্কেটের বর্তমান অবস্থা ও মার্কেট ট্রেন্ড এর উপরে ভিত্তি করে বানানো আমাদের সাম্প্রতিক প্রকাশিত ইনফোগ্রাফিকটিঃ বাংলাদেশের গবাদি পশুর মার্কেট, ২০১৯ | ইনফোগ্রাফিক 

আমাদের ক্রেতাদের জন্য টিপস

অনলাইনে পশু-পাখি কেনার জন্য সত্যি বলতে কোনো বাঁধাধরা নিয়ম বা গাইডলাইন নেই। ঘরে পালার জন্য হোক কিংবা গবাদি পশু, আপনার রিসার্চ যতটা ভালো হবে, কেনাকাটার ক্ষেত্রে সাফল্য ততই বেশি পাবেন। এই বছর অনলাইনে গরু কেনার ব্যাপারে আপনাকে সাহায্য করার জন্য আমরা কিছু কার্যকরী টিপস নিচে উল্লেখ করছি।

বিক্রেতার সাথে ভালো ভাবে আলাপ করে নিনঃ গরু বিক্রেতার সাথে বিস্তারিত আলাপ করে তার সাথে একটি ভালো বোঝাপড়া তৈরি করে নিন, এবং বোঝার চেষ্টা করুন যে সে আপনাকে একটি ভালো অফার দিচ্ছে কি না। শুধুমাত্র বিশ্বস্ত ও নির্ভরযোগ্য বিক্রেতার কাছ থেকে কিনুন, যেমনটা Bikroy – এর মার্কেটপ্লেসে রয়েছে।

গরুটি নিজ চোখে দেখে নিনঃ আপনি যদি অনলাইন থেকে গরু কেনার সিদ্ধান্ত নিয়ে থাকেন,তাহলে এরপর আপনার প্রথম কাজ হবে গরুটি নিজ চোখে দেখা। বিক্রেতার কাছ থেকে যতগুলো সম্ভব ছবি চেয়ে নিন ও সেগুলো দেখে বোঝার চেষ্টা করুন, কিংবা সম্ভব হলে ভিডিও কল পর্যন্ত করে দেখুন। যদি কোনো বিক্রেতা তার গরু আপনাকে তার সাধ্যমত স্পষ্ট করে না দেখাতে চান, তাহলে তার কাছ থেকে গরু না নেয়াই ভালো। এক্ষেত্রে আপনি অন্য কোনো গরু খুঁজে দেখতে পারেন। আরো ভালো ভাবে দেখতে চাইলে সরাসরি বিক্রেতার সাথে দেখা করতে পারেন এবং বাস্তবে গরুটি যাচাই করে নিতে পারেন।

দাম নিয়ে রিসার্চ করে নিনঃ আমরা ইতোমধ্যেই জেনেছি যে বাস্তবের হাট আর অনলাইন মার্কেটপ্লেসে গবাদি পশুর দামে বেশ তারতম্য রয়েছে। এর পেছনে সম্ভাব্য কারণগুলোর মধ্যে একটি হচ্ছে যে আপনি ঠিক কখন পশুটি কিনছেন বা কেনার সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন। পাকাপাকি ভাবে কোনো দাম ঠিক করার আগে লোকাল হাট ও মার্কেটগুলো থেকে তুলনামূলক রিসার্চ করে নিশ্চিত হয়ে নিতে পারেন যে বিক্রেতা আপনার কাছ থেকে অতিরিক্ত বেশি দাম রাখছেন কি না।

সবশেষে, গরুটি কিনে ফেলুনঃ পারফেক্ট গরুটি পেয়ে গেছেন? তাহলে এখন সময় সেটার দাম পরিশোধ করার! কিন্তু শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত গরুটিকে চেক করে নিন, এবং শুধুমাত্র ১০০% নিশ্চিত হওয়ার পরই সেটার দাম পরিশোধ করুন। এক্ষেত্রে পেমেন্ট দেয়ার সবচেয়ে সেরা অপশন হচ্ছে গরুটি নিজের হাতে পাওয়ার পর ক্যাশ পেমেন্ট করা। আর আপনার যদি নিজের কোন ট্রাক বা ভারবাহী গাড়ি না থাকে, তাহলে নিশ্চয়ই আপনি বিক্রেতার কাছ থেকে ডেলিভারি সুবিধা নিতে চাইবেন। আর সেক্ষেত্রে দরদামের সময় ডেলিভারি চার্জ নিয়েও আলাপ করে নেয়া উচিত।

আরও জানতে আমাদের এই ভিডিও তা দেখুন:

শেষকথা

আমাদের আজকের সব উপকারি টিপস যদি আপনি মনে রাখতে পারেন, তাহলে এই বছর কোরবানিতে অনলাইন থেকে গরু কেনার জন্য আপনি পুরোপুরি প্রস্তুত! আমাদের জীবনের নানা রকম দিকের মতই ইন্টারনেটের কল্যাণে কোরবানির জন্য গরু কেনাটাও আজ আমাদের জন্য অনেক সহজ হয়ে গেছে। Bikroy – এ আমরা দিচ্ছি এক হাজারেরও বেশি গবাদি পশুর বিজ্ঞাপন। তাই আজই আমাদের সাইট থেকে দেখে নিন সেরা সব অফারগুলো আর কোরবানির জন্য সময়মত ঘরে নিয়ে আসুন আপনার পছন্দের গরুটি!

সাবস্ক্রাইব করুন

No spam guarantee.

Comments

comments