যে পাঁচটি কারণে আপনার CV বা জীবনবৃত্তান্ত হালনাগাদ রাখবেন

আপনার জীবনবৃত্তান্ত হালনাগাদ করার চাইতে অনেক বেশি মজাদার কাজ আপনার রয়ে গেছে একথা ঠিক। তাহলে আপনার জীবনবৃত্তান্ত হালনাগাদ করতে সময় ব্যয় করার দরকারটা কী? এ কাজে সময় ব্যয় করার পক্ষে এমনসব গুরুত্বপূর্ণ কারণ রয়েছে যা হয়ত আপনি কখনও ধারণাও করেননি।

আপনার জীবনবৃত্তান্ত হলো আপনার অর্জনসমূহের দলিল

আপনি যদি আপনার কাজ নিয়ে সন্তুষ্ট থেকে থাকেন তবে হয়ত আপনি অনেক মাস কিংবা অনেক বছর আগে আপনার জীবনবৃত্তান্ত পূরণ করে রেখেছেন। যাহোক, আপনার জীবনবৃত্তান্তটি যত আগে পূরণ করা হয়ে থাকবে, সম্ভবতঃ ইতোমধ্যে আপনি আপনার চাকুরিক্ষেত্রে ততই বেশি অর্জন করে ফেলেছেন এবং খুব সম্ভবতঃ আপনি আপনার কতগুলো অর্জনের কথা ভুলে গিয়েছেন অথবা সেগুলোর গুরুত্ব খাটো করে দেখতে শুরু করেছেন। অথচ সেই ছোট ছোট অর্জনগুলোই উচ্চতর ধাপে ও পদোন্নতির পথে এগিয়ে দেয়। আপনার ছোট ছোট অর্জন থেকে এটাও প্রমাণিত হয় যে, আপনি আপনার পেশাগত জীবন জুড়েই নতুন নতুন দক্ষতা অর্জন করেছেন এবং দরকারী বিভিন্ন ছোটবড় প্রকল্পে নেতৃত্ব দিয়ে এসেছেন অথবা কর্মীদলের একজন হিসেবে কাজ করে এসেছেন। জীবনবৃত্তান্ত হালনাগাদ করলে ঐসব অর্জনের দলিল সংরক্ষিত থাকে এবং সেগুলো অর্জন করার পর তার গুরুত্ব বহাল থাকে।
উদাহরণস্বরূপ, মনে করুন পদ খালি হলো এবং অর্থব্যবস্থাপনা সংক্রান্ত পদে লোক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি দেয়া হলো, কিন্তু বর্তমানে আপনি সেই ধরনের কোনো পদে কাজ করছেন না। কল্পনা করুন যে, আপনি পদটি পেতে চান কারণ আপনাকে একদা হিসাবরক্ষণ সংক্রান্ত কাজ করতে গিয়ে ঐধরনের কাজ করেছিলেন এবং তা উপভোগ করেছিলেন। আপনি যদি আপনার জীবনবৃত্তান্ত নিয়মিতভাবে হালনাগাদ করতেন তাহলে সংশ্লিষ্ট ক্ষেত্রে আপনার অভিজ্ঞতা, অবদান ও অর্জনসমূহ প্রদর্শনের জন্য আপনার জীবনবৃত্তান্তটি সাজিয়ে নেয়ার মত তথ্যাদি আপনি পেতে পারতেন।

আপনার জীবনবৃত্তান্ত হলো আপনার অতীত ও ভবিষ্যতের সেতুবন্ধন।

পেশাগতজীবন গড়ার লক্ষ্য নিয়ে “আনুষ্ঠানিকভাবে” পেশাজীবন শুরু করার আগে আপনি বিভিন্ন ধরনের চাকুরি করে থাকতে পারেন। বড় বড় কোম্পানীর ক্ষেত্রে, বিভিন্ন ধরনের দক্ষতামূলক বিচিত্র সব ক্ষেত্রে বিভিন্ন ধরনের কাজ করাও সম্ভব হয়ে থাকতে পারে। সম্ভবতঃ আপনার এই অভিজ্ঞতার কতগুলোকে আপনার কাছে সুখস্বপ্ন বলে মনে হয়, আর বাকিগুলোকে মনে হয় দুঃস্বপ্নের মত। আপনি যখন আরেকটি দুঃস্বপ্নের মধ্যে পতিত হন অথবা আপনি এমন কোনো কাজ নিয়ে বিরক্ত হয়ে পড়েন যেটিতে কোনো উদ্দীপনা বা চ্যালেঞ্জ নেই তখন আপনার হালনাগাদকৃত জীবনবৃত্তান্তই আপনার স্বপ্নের চাকুরি খুঁজে পাবার জন্য পথের দিশা হতে পারে। আপনি যেসব কাজ উপভোগ করেছিলেন ঐধরনের কাজের ক্ষেত্রগুলো খুঁজে বের করতে আপনার জীবনবৃত্তান্তটি খুঁটিয়ে দেখুন এবং আপনার সাম্প্রতিকতম দুঃস্বপ্নটি থেকে বের হয়ে আসার জন্য আপনার জীবনবৃত্তান্তটি নতুনভাবে সাজিয়ে নিন, যেখানে আপনার স্বপ্নের চাকুরিগুলো থেকে প্রাপ্ত অভিজ্ঞতা এবং ঐসব চাকুরি করাকালীন আপনার অর্জনসমূহের উল্লেখ থাকবে।

গুপ্তধনের আকর হিসেবে আপনার জীবনবৃত্তান্ত

আপনি হয়ত অপেক্ষাকৃত কোনো ছোট কোম্পানীতে চাকুরি করে থাকতে পারেন যেখানে কাজের জন্য তেমন বেশি বিভাগ নেই যাতে করে আপনি নতুন নতুন দক্ষতা অর্জন করতে পারেন কিংবা যেখানে বিভিন্ন কর্মক্ষেত্রের কর্মজীবি নেই যাদের সাথে আপনি পেশাগত সম্পর্ক গড়ে তুলতে পারেন। যাহোক, আপনি যদি কোনো বড় কোম্পানীতে কাজ করেন, তবে ঐ ধরনের অভিজ্ঞতা আপনাকে সাহায্য করতে পারে। কর্মজীবনে কাজের বৈচিত্র্য নিয়মিত চাকুরির ক্ষেত্রে একঘেঁয়েমি দূর করতে সাহায্য করে। আপনার জীবনবৃত্তান্ত আপনাকে আপনার নিয়মিত চাকুরির বাইরে ঐ ধরনের অভিজ্ঞতা ও সুযোগসমৃদ্ধ চাকুরি খুঁজে নিতে সাহায্য করতে পারে।

আপনি যে ধরনের চাকুরি চান সেই ক্ষেত্র সম্পর্কিত অভিজ্ঞতা উল্লেখ করে আপনার জীবনবৃত্তান্তটি সাজান। প্রতিটি আলাদা চাকুরির আবেদনের জন্য আপনার জীবনবৃত্তান্তকে স্বতন্ত্রভাবে সাজিয়ে নিন। উদাহরণস্বরূপ, আপনার যদি ওয়েবডিজাইন অথবা বিপণনের অভিজ্ঞতা থাকে তবে আপনি ক্ষুদ্রব্যবসার জন্য ওয়েবসাইট অথবা ব্যবসা পরিকল্পনা করতে পারেন। আপনি যে ধরনের চাকুরির সন্ধানই করুন না কেন আপনার জীবনবৃত্তান্ততে তা লিখে দিতে ভুলবেন না।

আপনার দক্ষতার প্রতিফলন হিসেবে আপনার জীবনবৃত্তান্ত

সংশ্লিষ্ট ক্ষেত্রে আপনার দক্ষতার প্রকাশ ঘটানোর একটি উপায় হলো পেশাদার ম্যাগাজিন এবং জার্নালে অথবা ভোক্তা-সংশ্লিষ্ট জনপ্রিয় পত্রপত্রিকায় নিবন্ধ প্রকাশ করা। সে যা-ই হোক, আপনাকে একজন দক্ষ প্রদায়ক হিসেবে গ্রহণ করে নেয়ার আগে সম্পাদকগণ আপনার দক্ষতার প্রমাণ চাইবেন। একটি হালনাগাদকৃত জীবনবৃত্তান্তই হতে পারে চাকুরি এবং পার্শ্ব প্রকল্প থেকে আপনার অর্জিত দক্ষতার প্রমাণ।

আপনি একবার দক্ষ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়ে গেলে লোকেরা হয়ত আপনাকে এবং আপনার কাজকে পুরস্কারের জন্য মনোনীত করতে শুরু করবে। পুরস্কার মনোনয়ন কমিটির নিকট দাখিল করার জন্য আপনার জীবনবৃত্তান্তের এক কপি তাদের প্রয়োজন হবে। আবেদনের শেষ দিনকে সামনে রেখে তড়িঘড়ি করে তৈরিকৃত কোনো জীবনবৃত্তান্তর চাইতে বরং একটি হালনাগাদকৃত জীবনবৃত্তান্ততে আপনার অর্জনগুলো পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে ও সুসজ্জিতরূপে প্রতিফলিত হবে।

সাম্প্রতিক শৈলীর প্রতিফলন হিসেবে আপনার জীবনবৃত্তান্ত

আপনার জীবনবৃত্তান্ততে যদি পুরোনো শৈলী ব্যবহৃত হয়ে থাকে তাহলে কিছু কিছু নির্বাচক ও নিয়োগকর্তা এটির দিকে ফিরেও তাকাতে চাইবেন না অথচ কোনো জীবনবৃত্তান্তর জন্য শৈলী কেবল অঙ্গসজ্জা ছাড়া আর কিছুই নয়। উদাহরণস্বরূপ, ইন্টারনেট স্পাইডার ওয়েব ক্রল করে থাকে এবং কাঙ্খিত অভিজ্ঞতা, দক্ষতা এবং ব্যক্তিত্বের ধরন অনুযায়ী কী-ওয়ার্ডে খুঁজে পেতে পোস্টকৃত জীবনবৃত্তান্তগুলো স্ক্যান করে। আপনার জীবনবৃত্তান্ততে যদি নিয়োগদাতা, নির্বাচক এবং জব সাইটসমূহ দ্বারা অনুসন্ধানকৃত কী-ওয়ার্ডগুলো অর্ন্তভুক্ত না থাকে তাহলে আপনি সাক্ষাৎকার, লিংকডইন কন্টাক্ট ইত্যাদির সুযোগ হারাবেন এবং জব সার্চ সাইটগুলোতে আপনার জীবনবৃত্তান্ত রিপোস্টিং হওয়া থেকে বঞ্চিত হবেন।

জীবনবৃত্তান্তের শৈলী হালনাগাদ করার পাশাপাশি এটির তথ্যও আপনাকে হালনাগাদ করতে হবে যখন:

আপনি পদোন্নতি পান।

আপনি সফলভাবে কোনো প্রকল্প সমাপ্ত করেন।

আপনি পেশাসংশ্লিষ্ট নতুন কোনো দক্ষতা বা যোগ্যতা অর্জন করেন।

আপনি আপনার পেশাগত লক্ষ্য পরিবর্তন করতে চান।

আপনি উচ্চতর অবস্থান বা পদোন্নতি অর্জনের চেষ্টা করেন।

আপনার চাকুরি নিয়ে অসন্তুষ্ট থাকেন।

আপনি চিন্তিত থাকেন যে আপনার কোম্পানী কর্মী ছাঁটাই করতে পারে।

আপনি উদ্বিগ্ন থাকেন যে আপনার নিয়োগকর্তা আপনার প্রতি অসন্তুষ্ট হতে পারেন।

আপনি এটিও চাইতে পারেন যে, আপনার জীবনবৃত্তান্ততে কোনো পুরোনো বা অপ্রাসঙ্গিক তথ্য না থাকুক। তাই, আপনি ভবিষ্যতে অনুসন্ধান করতে ইচ্ছুক এমনসব সুযোগকে লক্ষ্য করে তৈরিকৃত নতুন জীবনবৃত্তান্তর জন্য রেফারেন্স হিসেবে আপনার কর্ম অভিজ্ঞতা, শিক্ষা, যোগ্যতা এবং পেশাগত দক্ষতা ও কুশলতার একটি পূর্ণ তালিকা সংরক্ষণ করুন। যাহোক, আপনি এই মূহুর্তে ব্যবহার করতে চান সেইরূপ কোনো জীবনবৃত্তান্তের কথা উঠলে বলতে হয় যে, এ ধরনের জীবনবৃত্তান্ত থেকে আপনার ঐ সব পেশাগত দক্ষতা ও কুশলতার বিষয়গুলো বাদ দিন যেগুলো আপনার সাম্প্রতিক কাঙ্খিত চাকুরির সাথে সংশ্লিষ্ট নয়। এমনকি ১৫ বছরের বেশি পুরাতন কর্ম অভিজ্ঞতাগুলোকেও ছেঁটে দিন যদি না তা আপনার সাম্প্রতিক কাঙ্খিত চাকুরি সংশ্লিষ্ট অভিজ্ঞতা ও দক্ষতা তুলে ধরার জন্য হয়ে থাকে। যে কোনো কারণেই হোক না কেন, আপনার নিয়মিত চাকুরির বাইরে আপনি যদি কোনো নতুন চাকুরি বা প্রকল্পের চাকুরি খুঁজতে চান, তা সে ঢাকার চাকুরির তালিকাই হোক অথবা সমগ্র দেশের চাকুরির তালিকাই হোক না কেন, Bikroy.com এ আপনি আপনার দরকারি সব তথ্য পেয়ে যাবেন।

Comments

comments