বসবাসের জন্য বিশ্বের সবচেয়ে ব্যয়বহুল শহরসমূহ

অনেকেই তাঁদের জীবনে বিশ্বের অন্যান্য শহরে বসবাস করার জন্য বিদেশে যেতে চান। প্রায়ই এসব শহর অভিবাসীদের জন্য বেশ ব্যয়বহুল হয়ে যায়। জাতীয় সীমানা পার হওয়া বেশ ব্যয়বহুল এবং নীচে বিশ্বের ব্যয়বহুল শহরের প্রথম দশটির একটি তালিকা দেওয়া হলো। এসব শহরে এক কাপ কফির দাম আপনার সারা দিনের রোজগারের সমান হতে পারে।

১। লন্ডন, ইংল্যান্ড
লন্ডন বিশ্বের সবচেয়ে ব্যয়বহুল শহর। সাম্প্রতিক বছরগুলোতে, এখানকার সম্পত্তির মূল্য অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে এবং ২০১৪ সালের গ্রীষ্মে তা রেকর্ডের শীর্ষে পৌঁছেছে। বর্তমানে, ইংল্যান্ডের রাজধানীতে একটি বাড়ীর গড় মূল্য ২৭২,০০০ ব্রিটিশ পাউন্ড, যা বাংলাদেশী টাকায় প্রায় ৩৩ মিলিয়ন টাকারও বেশী। তারপরও, এমন ইতিহাস ও ঐতিহ্য সমৃদ্ধ দেশে মানুষ নিজের আবাস গড়ে তুলতে চায়। ওয়েস্ট মিনিস্টার অ্যাবে এবং বাকিংহ্যাম প্যালেস সহ এই শহরে শতশত ঐতিহ্যবাহী স্থাপনা রয়েছে। এটি পৃথিবীর আধুনিক শহরগুলোর একটি এবং এর চারপাশ নানা বর্ণিল পার্কে ঘেরা। ভিক্টোরিয়ান যুগের স্থাপত্যশৈলীর ধারক নটিং হিল থেকে শুরু করে ইস্ট লন্ডনের আধুনিক বাড়িগুলোর মতো লন্ডনে রয়েছে আবাসনের অবারিত সুযোগ, যদিও এসব সম্পত্তির মূল্য দেখলে তাতে বসবাসের চাইতে এগুলোর সৌন্দর্যে মন্ত্রমুগ্ধ হয়েই থাকতে হবে।

২। অসলো, নরওয়ে
নরওয়ের রাজধানী অসলো সাংস্কৃতিকভাবে ততোটা উন্নত নয় যতটা না এর প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের ক্ষেত্রে। শহরের সাবওয়েগুলো এর পর্যটকদের আশেপাশের বন, লেক, এবং হাইকিং ট্রেইলে নিয়ে যাবে। এটি ব্যবসা বাণিজ্যে উন্নত একটি কসমোপলিটন শহর, যার ফলে এটি বিশ্বের ব্যয়বহুল শহরগুলোর অন্যতম। এটি নোবেল শান্তি পুরস্কারের শহর, এবং এখানে শিক্ষার যথেষ্ট মূল্যায়ন করা হয় ও ঘোরার মতো অনেক জাদুঘরও রয়েছে।

৩। জেনেভা, সুইজারল্যান্ড
জেনেভা সুইজারল্যান্ডের দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর যা পশ্চিমা বিশ্বের অধিকাংশের কূটনৈতিক কেন্দ্র। ওয়ার্ল্ড ওয়াইড ওয়েব মূলত এই শহরেরই ইউরোপিয়ান সেন্টার ফর নিউক্লিয়ার রিসার্চ-এ আবিষ্কার হয়েছিল। মিলান ও প্যারিসের মতো এখানে কেনাকাটার অনেক সুযোগ রয়েছে, কিন্তু তা আপনার পকেট খালি করে ফেললে অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না। সুইজারল্যান্ডের যেকোনো রেস্তোরায় স্বাভাবিক একবেলা খাবারের জন্য আপনাকে ২০০০ টাকার উপরে খরচ করতে হবে।

৪। জুরিখ, সুইজারল্যান্ড
সুইজারল্যান্ডে জীবনযাপন ব্যয়বহুল হওয়ার একটি কারণ হচ্ছে এর শক্তিশালী মুদ্রা, সুইস ফ্রাঙ্ক। ২০১৪ সালের শুরুর দিকে এক সুইস ফ্রাঙ্কের মূল্য ছিল বাংলাদেশী ৮০ টাকার উপরে। ছবির মতো বরফে ঢাকা পাহাড় ও মধ্যযুগীয় চার্চ, গিল্ডহল আর টাউনহাউজ নিয়ে গড়ে ওঠা মনোমুগ্ধকর সুইজারল্যান্ড, আর এর সবচেয়ে বড় শহর জুরিখও তার ব্যতিক্রম নয়। এই শহরে অনেক রেস্তোরা, শিল্প সংস্কৃতির বিভিন্ন নিদর্শন রয়েছে যা শহরের ব্যস্ত রাস্তাগুলো দিয়ে হাঁটলেই চোখে পড়বে।

৫। নিউ ইয়র্ক, ইউএসএ
আকাশচুম্বী দালানের এই শহরটি বিশ্বের ব্যয়বহুল শহরগুলোরও একটি। আকাশচুম্বী দালানের পাগল করা দিগন্ত থেকে শুরু করে টাইম স্কয়ারের চোখ ধাঁধানো আলোয় বর্ণিল এই শহর যা কখনো ঘুমায় না, সবসময় জেগে থাকে। ব্রডওয়ের থিয়েটার থেকে আইকনিক স্ট্যাচু অফ লিবার্টি ভ্রমণ, এমন আরও অনেক কিছু করার আছে এখানে। রাস্তার পাশে রয়েছে সারি সারি খাবারের দোকান আর বার এবং সবসময় আনন্দ ফুর্তি করার কিছু না কিছু পেয়ে যাবেন এই শহরে। কিন্তু, এই শহরে আবাসন ব্যয় অনেক বেশী।

৬। লোজান, সুইজারল্যান্ড
লোজান শহরটি যেন ছবির মতো সুন্দর সব বাড়ীর এক সমুদ্র, যেগুলোর দাম আমাদের দেশের দশ গুণ। সমুদ্রের মতো নীল পানির লেকের পাড়ে সবুজ ঘাসে মোড়ানো পাহাড় সমৃদ্ধ এই শহর নান্দনিক সৌন্দর্যের এক অপরুপ লীলাভূমি। এর গথিক ক্যাথেড্রাল, নতুন রূপে পুরনো শহর এবং রাজনৈতিক ও সামাজিক জীবনের বর্ণিল সংস্কৃতির কারণে অধিকাংশ সুইসই এই শহরে বসবাস করতে চাইবে। এখানে দুধের দাম আমাদের দেশের প্রায় দ্বিগুণ হলেও এই শহরটি পর্যটনের জন্য সেরা।

৭। সিঙ্গাপুর, সিঙ্গাপুর
এশিয়ার জনপ্রিয় শহর সিঙ্গাপুর, মল, সাই-ফাই স্থাপত্যশৈলী, এবং বিলিয়ন ডলার মূল্যের বাগানের এক জঙ্গল। শহরটি সবুজের এক বিস্ময়কর স্থান এবং এখানে অনেক বোটানিক্যাল স্পা প্যাকেজ রয়েছে। শহরের সবকিছুই বেশ ইউজার-ফ্রেন্ডলি এবং এই নগরীতে অনেক খাবার-দাবারের ব্যবস্থা রয়েছে। এশিয়ার সবচেয়ে ব্যয়বহুল এই শহরে এক কাপ কফির দাম আমাদের দেশের পাঁচ গুণ।

৮। প্যারিস, ফ্রান্স
ফ্রান্সের কেন্দ্রে অবস্থিত, প্যারিস, নির্দ্বিধায় পৃথিবীর অন্যতম সুন্দর একটি শহর। পার্ক, ঝর্ণা, উন্নত স্থাপত্যশৈলী ও শিল্পে সমৃদ্ধ এই শহর বরাবরই তার পর্যটকদের মুগ্ধ করেছে। প্রায় প্রতি ব্লকেই সুস্বাদু পেতিত ক্যাফে রয়েছে যার গ্লাসের বাইরে থেকে সুন্দর করে সাজানো লোভনীয় সব ডেসার্ট দেখা যায়। কিন্তু, এখানে দুপুরের খাবারের জন্য আপনাকে আমাদের দেশের একদিনের রোজগারের সমান টাকা খরচ করতে হবে এবং এখানকার সম্পত্তির গড় মূল্য প্রতি বর্গফুট ১০০,০০০ ৳ ।

৯। স্যান ফ্রানসিসকো, ক্যালিফোর্নিয়া ইউএসএ
স্যান ফ্রানসিসকো, অ্যামেরিকার জনপ্রিয় শহরগুলোর অন্যতম, এমন একটি শহর যেখানে যে কোনো কিছুই ঘটতে পারে। এই শহর গড়ে ওঠে ক্যালিফোর্নিয়ার সেই গোল্ড রাশের সময়, এবং গগনচুম্বী দালানের ছায়ায় ভিক্টোরিয়ান স্টাইলে গড়ে ওঠা বাড়িঘর নিয়ে আজ এটি একটি কসমোপলিটন শহর। সমুদ্রের ধবল তটরেখা ও পাহাড়ে অনেক আউটডোর অ্যাডভেঞ্চার সহ অনেক কিছুই করার আছে বিপ্লবের এই শহরে। কবিতা পাঠ থেকে বড় বড় প্রযোজনা সহ সমস্ত বিনোদন শিল্পের নিদর্শন আপনার চোখে পড়বে সারা শহর জুড়ে। এই শহরের প্রতীক, গোল্ডেন গেট ব্রীজ, যেন আকাশের মেঘ ছুঁয়ে যায়। কিন্তু, এক জোড়া জিন্সের মূল্য এখানে আমাদের দেশের ৫৫ গুণ।

১০। কোপেনহেগেন, ডেনমার্ক
ভাইকিংদের সুদর্শন কোপেনহেগেন শহর পৃথিবীর শান্ত শহরগুলোর একটি। অন্যান্য শহরের মতো ট্রাফিকের ঝামেলা বা বড় বড় দালানকোঠা নেই এখানে। বরং, অসংখ্য লেনে ছুটে যাওয়া হাজার হাজার বাইসাইকেলের সারি এবং বাতাসে সদ্য বেক করা রুটির গন্ধ এই শহরকে করে তুলেছে অনন্য। শহরের নদীটি অত্যন্ত পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন, এবং এতে সাতার কাটা নিরাপদ। কিন্তু, ডেনমার্কের সবচেয়ে জনবহুল এই শহরটি অত্যন্ত ব্যয়বহুল এবং এখানে অ্যাপার্টমেন্ট ভাড়া আমাদের দেশের প্রধান শহরের দশ গুণ।

Comments

comments