এসি কেনার সময় যে বিষয়গুলো খেয়াল রাখতে হবে

Buying an AC

এই পরিবর্তনশীল মৌসুমে তাপমাত্রাটা বাড়াবাড়ি রকমের বেশি। এবছর প্রায় বেশ কয়েকবার গরমের সময়ই বৃষ্টি হয়েছে সত্যি, কিন্তু এর কারণে বাতাসে জলীয় বাষ্পের পরিমাণটাও বেড়েছে আর আমরা অসহ্য ভ্যাপসা গরমে ভুগছি। এসময় একটি এয়ার কন্ডিশনার(এসি) আমাদের এই কষ্টকর অবস্থা থেকে রক্ষা করতে পারে। এটি যেমন আমাদের ঘর ঠাণ্ডা করে তেমনি ঘরের ভেতরের বাতাস থেকে জলীয় বাষ্প বের করে দেয়। এখনই এসি কেনার জন্য মোক্ষম সময়, তবে অনেক রকমের এসির মধ্যে থেকে আপনার ঘরের জন্য কোনটি সবচেয়ে উপযোগী সেটি বেছে নেয়ার জন্য কয়েকটি বিষয় খেয়াল রাখা জরুরি─

ক্যাপাসিটি

AC Capacity

এয়ার কন্ডিশনার কিনতে গেলে সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ যে বিষয়টি বিবেচনা করতে হয় তা হল এর ক্যাপাসিটি। বাংলাদেশে ক্যাপাসিটি মাপা হয় টনে। এক ঘণ্টায় একটি এসি যতটুকু তাপ দূর করতে পারে, তা হলো ১ টন। তাপ মাপা হয় ব্রিটিশ থারমাল ইউনিটে (বিটিইউ) এবং একটি এক টন এসি ঘণ্টায় ১২,০০০ বিটিইউ তাপ অপসারণ করতে পারে। প্রতি বর্গ ফুটের জন্য একটি এসিতে ২০ বিটিইউ থাকা প্রয়োজন। যদিও এই সংখ্যাটি ঘরের জানালার মাপ এবং ছাদের উচ্চতার উপর নির্ভর করে পরিবর্তন হয়।

ব্র্যান্ড

AC brand trust

এয়ার কন্ডিশনারের ক্ষেত্রে ব্র্যান্ডের ভূমিকার গুরুত্ব আপনি যতটুকু মনে করেন আসলে তার চেয়েও বেশি। আপনি যখন একটি এসি কেনার সিদ্ধান্ত নিবেন তখন আপনি অবশ্যই চাইবেন যে আপনার এসিটি অনেকদিন চলুক, এবং যখন আপনার প্রয়োজনের সময় যাতে সেটি নষ্ট হয়ে না যায়। উল্লেখযোগ্য ব্র্যান্ডের মধ্যে General, LG, Panasonic অনেকদিন ভাল সার্ভিস দেয় যদি সঠিকভাবে যত্ন এবং রক্ষণাবেক্ষণ করা হয়। সে কারণে এইসব ব্র্যান্ডের এসির দাম একটু বেশি হলেও এটা বিবেচনা করতে হবে যে অন্যান্য ব্র্যান্ডের চেয়ে এরা ২ গুণ বেশি সময় ধরে সার্ভিস দেয়ার ক্ষমতা রাখে। তাছাড়াও এই ব্র্যান্ডগুলোর এসির রি-সেল ভ্যালুও অন্যান্য ব্র্যান্ডের চেয়ে বেশি। কম দামি অনেক এসি হয়ত আপনার নজর কাড়বে, তবে কেনার আগে এসব বিষয়গুলো ভালভাবে বিবেচনা করা হবে বুদ্ধিমানের কাজ।

ওয়ারেন্টি এবং সার্ভিস

ac-system-warranty

ব্র্যান্ডের গুরুত্বের পাশাপাশি কেনার পর আপনি কি ধরণের সার্ভিস এবং ওয়ারেন্টি পাচ্ছেন সেটাও গুরুত্বপূর্ণ। আপনি একটি ভাল এসি কিনলেন কিন্তু আপনি যদি ভাল সার্ভিস না পান তবে এর চেয়ে একটি টেবিল ফ্যান কেনাই ভাল। তাই কেনার সময় ডিলারের কাছ থেকে জেনে নিন যে তারা কোন আফটার-সেল সার্ভিস দেয় কিনা। এসি কেনার সময় খেয়াল রাখবেন এসির ওয়ারেন্টি কত দিনের। সাধারণত ভাল মানের এসিগুলোর ওয়ারেন্টি অনেকদিনের হয়ে থাকে। যেহেতু অনেকদিন ব্যবহার করার জন্য আপনি এসি কিনবেন সেহেতু অযথা ঝুঁকি নেবার কোন মানে হয়না।

ফিচার

AC-features

প্রতিটি এয়ার কন্ডিশনারের একটি সাধারণ কী-ফাংশন থাকে–আপনার ঘরের তাপমাত্রাকে পরিবর্তন করা। তবে এটিই এসির একমাত্র গুরুত্বপূর্ণ ফিচার নয়। এসির অনেকগুলো ফিচারের উপর খেয়াল করা দরকার, কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ ফিচারের মধ্যে একটি হল এনার্জি রেটিং। এটি দিয়ে ইইআর নাম্বারের সাহায্যে এসি কতটুকু কার্যকর তা পরিমাপ করা হয়। ইইআর নাম্বার যত বেশি হবে, এসি তত বেশি কার্যকরী হবে। এনার্জি স্টার লেবেল দেখে এসির এনার্জি রেটিং কত তা জেনে নিন। আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ ফিচার হল টাইমার। টাইমারের মাধ্যমে একটি এসি টানা কতক্ষন চলবে তা আপনি ঠিক করে দিতে পারবেন এবং এতে করে আপনার প্রচুর ইলেকট্রিসিটি বিল বাঁচবে। ডিরেকশনাল এয়ারভেন্ট-সহ এসি খুঁজুন। এয়ারভেন্ট আপনার ঘরের চারপাশে বাতাস ছড়িয়ে দিতে পারবে যা আপনার ঘরকে দ্রুত ঠাণ্ডা করে তুলবে।

আশা করি, এই টিপ গুলো মাথায় রেখে আপনি যদি এয়ার কন্ডিশনার কিনতে যান তবে কোন সমস্যার সম্মুখীন হবেন না। একটা কথা অবশ্যই মনে রাখবেন এসি কেনার ক্ষেত্রে এর গুণগত মান সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ।

Comments

comments