কষ্টের টাকায় এইচপি ল্যাপটপ কেনা কতটা সার্থক?

HP Feature Bikroy BN

আপনি কি এইচপি কম্পিউটার ভালোবাসেন? আজকের প্রতিবেদন তাদের জন্য যারা এইচপি ল্যাপটপ, নোটবুক, সর্বোপরি যেকোনো এইচপি ডিভাইসের ভক্ত। এই বছর এইচপি প্রেমীদের জন্য অপেক্ষা করছে দারুণ সব পণ্য। যারাই এইচপির ল্যাপটপ, নোটবুক অথবা পিসি নিয়মিত ব্যবহার করেন এবং নতুন ডিভাইসের অপেক্ষায় আছেন তাদের প্রত্যেকের জন্য বিশ্বখ্যাত এই কোম্পানিটি জন্য উপযোগী কিছু দেবার প্রত্যয়ে অবিরত কাজ করে যাচ্ছে। প্রত্যেক গেমার কিংবা পেশাদার এবং নিত্য-ব্যবহারকারীদের জন্য এ এক সুবর্ণ সুযোগ! এই মুহূর্তে সম্পূর্ণ নতুন ও উত্তেজনাপূর্ণ বেশ কিছু পণ্য মার্কেটপ্লেসে পাওয়া যাচ্ছে।

একদিকে যেমন বাজারে নিঃসন্দেহে অজস্র আকর্ষণীয় সব অপশনের ছড়াছড়ি, তেমনি কোনটা রেখে কোনটা বাছাই করবেন সেটা নিয়ে ভক্তদের হিমসিম খাওয়াটাও খুব স্বাভাবিক। বিভিন্ন হার্ডওয়ার স্পেসিফিকেশনের তুলনা আর একই সাথে লোভনীয় সব মডেলের হাতছানি আপনাকে খুব সহজে হাপিয়ে তুলবে আর সেই সাথে বিভ্রান্তি তো রয়েছেই। আজকের আলোচনায় আপনার এই বিভ্রান্তি কাটাতে এইচপির নতুন সব ল্যাপটপ আর নোটবুকগুলোর বিশেষ কিছু স্পেসিফিকেশন সহজভাবে তুলে ধরার চেষ্টা করছি। কেন এইচপি এসময়ের শীর্ষস্থানীয় কোম্পানিগুলোর মধ্যে বিশেষভাবে আলাদা তার সহজ একটি কারণ হলো এর উন্নতমানের নির্মাণশৈলী এবং পাশাপাশি বিভিন্ন দামের মধ্যে পছন্দের পন্যটি বেছে নেবার সুযোগ।

গেমারদের জন্য সাধ্যের মধ্যে পণ্য

এই বছর নতুন এইচপি ল্যাপটপগুলোয় দীর্ঘদিন টেকসই এইচপি প্যাভিলিওন পাওয়ার লাইনআপ পরিবর্তন করা হচ্ছে। সাধারণ গেমিং ব্যবহারকারীদের নতুন কিছু উপহার দেবার চেষ্টা থেকে নতুন এইচপি ওমেন লাইনআপ নিয়ে আসা হয়েছে, বিশেষভাবে তাদের জন্য যারা বাজেটের মধ্যে আরো ভালো পারফরমেন্স পেতে চান। যেখানে আপনারা পাচ্ছেন বিরতিহীন আর উচ্চ রেজল্যুশনের গেম খেলার অভিজ্ঞতার জন্য উচ্চমানের পারফরমেন্সসমৃদ্ধ হার্ডওয়ার, সেখানে দামটা কিন্তু এখনো সাধ্যের মধ্যেই। অন্যদিকে যারা কোনরকম আপোষ করতে চান না তাদের জন্য রয়েছে ব্যয়বহুল ওমেন এক্স ল্যাপটপ। এইচপির ল্যাপটপগুলোর মধ্যে ওমেন এক্স ল্যাপটপের দাম অনেক বেশি, কিন্তু এগুলো বিশেষভাবে তাদের জন্য যারা নিখুঁত পারফরমেন্স ছাড়া আর কিছু বুঝতে চান না। অতএব বিভ্রান্তি এড়ানোর জন্য এই নতুন ল্যাপটপগুলো বাজারে প্যাভিলিওন গেমিং নামে ছাড়া হয়েছে এবং সেভাবে ব্র্যান্ডিং করা হচ্ছে।

এইচপির এই ল্যাপটপগুলোয় আপনারা ঠিক কী কী পাচ্ছেন তা জানার জন্য চলুন স্পেসিফিকেশনগুলো একনজর দেখে নিই। এইচপি ওমেন ল্যাপটপ আর নোটবুকগুলোর প্রাথমিক স্পেসিফিকেশন নিম্নরুপ :

মূল স্পেসিফিকেশন

স্ক্রিন সাইজ : ১৫.৬ ইঞ্চি
রেসল্যুশন : সম্পূর্ণ এইচডি অথবা ইউএইচডি
প্রসেসর : কোর আই৭-৮৭৫০এইচ পর্যন্ত
গ্রাফিক্স : এএমডি অথবা এনভিডিয়া
মেমোরি : ৮ জিবি
স্টোরেজ : সিংগেল আর ডুয়াল অপশন
সংযোগ : ওয়্যারলেস এসি, ব্লুটুথ
পোর্ট : ইউএসবি-সি, ইউএসবি-এ, এইচডিএমআই, ইথারনেট, এসডি কার্ড
ওজন : প্রায় ৫.১৮ পাউন্ড

ডিজাইন

HP Omen x Bikroy BN

নতুন প্যাভিলিওন গেমিং এইচপি ল্যাপটপগুলোর ডিজাইনে লক্ষনীয় হলো এর দুই পাশেই কুলিং ফ্যান এর ব্যবহার, যার মাধ্যমে বেশি বাতাস চলাচল নিশ্চিত হয় এবং ডিভাইসটি বেশিক্ষন ঠাণ্ডা থাকার দরুন সর্বাধিক পারফরমেন্স পাওয়া যায়। কিছুটা কোনাচে ডিজাইনের জন্যও বাতাস চলাচলে সুবিধা হয়। ডিসপ্লে আগের চেয়ে বড় ও আরো সরু বিজেলসমৃদ্ধ এবং সাথে গ্রিলযুক্ত স্পিকার রয়েছে।

ওমেন এইচপি নোটবুকগুলোয় বিএন্ডও প্লেসহ ডুয়াল স্পিকার এবং এইচপির ওয়াইড ভিশন এইচডি ওয়েবক্যাম বিশেষভাবে লক্ষনীয়।  এর আইল্যান্ড-স্টাইলের কিবোর্ডটি গেমারদের মধ্যে জনপ্রিয়, যাতে নিচে লাইটিং করা কিবোর্ডের অনেকরকম অপশন রয়েছে যেমন- ঘোস্ট হোয়াইট, এসিড গ্রীণ এবং আলট্রাভায়োলেট রঙের লাইট। ফিচার করা পোর্টগুলো হলো- ইথারনেট, ইউএসবি-সি, দু’টি ইউএসবি-এ পোর্ট, একটি এসডি কার্ড স্লট আর একটি মাইক্রোফোন/হেডফোন কম্বিনেশন জ্যাক।

হার্ডওয়ার

হুড এর ভেতর অবিশ্বাস্য শক্তিশালী অষ্টম জেনারেশনের কোর আই৭-৮৭৫০এইচ যা একটি ছয়-কোরের প্রসেসর, সাথে রয়েছে অন্যান্য অপশন যেমন ইনটেলের চার-কোরের ইউ-সিরিজ চিপস এবং চার-কোরের এইচ-সিরিজ সিপিইউ। গ্রাফিক্স এর জন্য এমডি রেডিওন আরএক্স ৫৬০এক্সের আলাদা গ্রাফিক্স চিপ, অথবা ম্যাক্স-কিউ টেকনলোজিসমৃদ্ধ এনভিডিয়া জিফোর্স জিটিএক্স ১০৬০ জিপিইউ এর আপগ্রেড ভার্সন। এই সমস্ত আপনারা পাচ্ছেন জিটিএক্স ১০৫০ টি এবং ডেডিকেটেড ৪জিবি গ্রাফিক্স মেমোরির সাথে।

ডিসপ্লে স্ক্রিনটির রেসল্যুশন ৬০হার্জ অথবা ১৪৪হার্জের জন্য ১৯২০x১০৮০ মেগাপিক্সেল আর সবচেয়ে সেরা অপশনটি হলো ৬০হার্জের জন্য ৩৮৪০x২১৬০ মেগাপিক্সেল রেসল্যুশন। সিস্টেম মেমোরির কনফিগারেশন হিসেবে একটি ৮জিবি ডিডিয়ার৪ স্টিকের সাথে অনেকরকম স্টোরেজ অপশন যেমন সিঙ্গেল এবং ডুয়াল স্টোরেজ, স্টিক আকৃতির সলিড-স্টেট ড্রাইভ, ছোট আকৃতির যান্ত্রিক হার্ডড্রাইভ এবং আরো রয়েছে ইনটেলের অপটেন মেমোরি। গেমাররা এসব অসাধারণ অপশন পেয়ে উচ্ছসিত হবেন আর একই সাথে এইচপি ল্যাপটপ বা নোটবুক থেকে আশানুরূপ সেরা পারফরমেন্স পাবেন।

সবকিছু একসাথে চান এমন নিত্যব্যবহারকারীদের জন্য পণ্য

আমরা যারা প্রতিদিন ঘরে কিংবা ব্যবসায়ক্ষেত্রে ব্যবহারকারী, তাদের জন্যও এবার আশা রয়েছে! গেমার ছাড়াও নতুন এইচপি নোটবুক ও ল্যাপটপ ডিভাইসগুলো এসেছে নিত্যব্যবহারকারীদের জন্যও। নিত্যদিনের সেরা অল-ইন-ওয়ান এইচপি ল্যাপটপ এবার এসেছে নতুন প্যাভিলিওন এক্স৩৬০ টু-ইন-ওয়ান এর সাথে।

মূল স্পেসিফিকেশন

স্ক্রিন সাইজ : ১৪ এবং ১৫.৬ ইঞ্চি
রেসল্যুশন : এইচডি অথবা ইউএইচডি
প্রসেসর : কোর আই৫-৮২৫০ইউ পর্যন্ত
গ্রাফিক্স : সংযুক্ত, পৃথক
মেমোরি : ৮ জিবি পর্যন্ত (একটি স্লট এ)
স্টোরেজ : এসডিডি এবং এইচডিডি অপশন
সংযোগ : ওয়্যারলেস এসি, ব্লুটুথ
ওজন : প্রায় ৪.৫৮ পাউন্ড

পোর্ট : ইউএসবি-সি, ইউএসবি-এ, এইচডিএমআই, ইথারনেট, এসডি কার্ড

ক্যামেরা : ৫ মেগাপিক্সেল আইআর অথবা ওয়ার্ল্ড-ফেসিং

ব্যাটারি : ১১ ঘন্টা পর্যন্ত

পেরিফেরাল : পেন সহ

ডিজাইন

HP Laptops Bikroy BN

নতুন এইচপি প্যাভিলিওন এক্স৩৬০ টু-ইন-ওয়ান নিয়ে এসেছে বিস্ময়কর ৩৬০ডিগ্রি ভাঁজ হওয়ার ক্ষমতাসম্পন্ন সন্ধি, যা চারটি ভিন্ন পজিশনে ব্যবহার করা যায় – ল্যাপটপ, তাঁবু-আকৃতি, স্ট্যান্ড এবং ট্যাবলেট। সামগ্রিকভাবে ডিজাইনটি টাইট ও সরু বিজেলসমৃদ্ধ, যাতে করে প্রায় বর্ডার-বিহীন ডিসপ্লের অনুভব পাওয়া যায়। কিবোর্ডটি টানাভাবে এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্ত পর্যন্ত ডিজাইন করা হয়েছে এবং এর বডির রঙ বিভিন্ন জনপ্রিয় অপশন যেমন- প্রাকৃতিক সিলভার, হাল-ফ্যাশনের ফিকে গোল্ড এবং শীতল স্যাফায়ার ব্লু, পছন্দ আপনার!

৫ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরাটি ১২০ডিগ্রি আলট্রা-ওয়াইড ভিউ লেন্স দিয়ে তৈরি, যা ল্যাপটপটির ঠিক উপরে স্পিকারের মাঝামাঝি জায়গায় অবস্থিত এবং এর ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানারটি ডিভাইসের ডান দিকে অবস্থিত। পোর্ট অপশনের মধ্যে এসডি কার্ড স্লট, ইউএসবি-সি ও ইউএসবি-এ পোর্ট এবং একটি এইচডিএমআই পোর্ট। সামগ্রিকভাবে একটা খোলামেলা ক্লিন লুক তৈরি করা হয়েছে যাতে খালি চোখে সামনে কেবল কীবোর্ড ও টাচপ্যাড টি দেখা যায়।

হার্ডওয়ার

নতুন এইচইপি প্যাভিলিওন এক্স৩৬০ টু-ইন-ওয়ান নিয়ে এসেছে ১৪ইঞ্চি মডেলের সাথে এনভিডিএ গ্রাফিক্স চিপ এবং ১৫.৬ইঞ্চি মডেলের সাথে এএমডি এর জিপিইউ। এতে কোর আই৫-৮২৫০ইউ এবং কোর আই৩-৮১৩০ইউ প্রসেসরের সাথে সংযুক্ত হয়েছে ইনটেলের গ্রাফিক্স। ঘরে, পড়াশুনায়, ব্যবসা-সংক্রান্ত কাজ এবং যেকোনো পেশাদারি কাজে নিত্য ব্যবহারের জন্য এর স্টোরেজ অপশন এবং সামগ্রিক হার্ডওয়ার কনফিগারেশন আশাতীতভাবে উপযুক্ত এবং অনায়াসে ব্যবহারযোগ্য।

এই দু’টি ভার্সনের সাথে ভিন্ন ভিন্ন ব্যাটারী অপশন রয়েছে কেননা ডিভাইসগুলোর আকার ও চার্জের প্রয়োজনীয়তা একে অপরের থেকে অনেকটাই আলাদা। ১৪ইঞ্চি মডেলটিতে ৪১ওয়াট প্রতি ঘন্টা ব্যাটারি রয়েছে যাতে প্রায় ১০ঘন্টা ৩০মিনিট পর্যন্ত বহুমুখী ব্যবহার করা সম্ভব। অপরদিকে, ১৫.৬ইঞ্চি মডেলটিতে রয়েছে ৪৮ওয়াট প্রতি ঘন্টা ব্যাটারি, যা হয়ত সর্বোচ্চ ৯ঘন্টা ১৫মিনিট পর্যন্ত বহুমুখী ব্যবহার নিতে পারে। এদের যেকোনোটির ক্ষেত্রেই ওয়্যারলেস ভাবে টানা ব্যবহার করতে থাকলে ব্যাটারির জীবনীশক্তি ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে একটা সময় কমে ৭ ঘন্টায় নেমে আসতে পারে। এ দু’রকম ব্যাটারিই দ্রুত চার্জিং ক্ষমতার সাহায্যে ১ ঘন্টারও কম সময়ে ৫০% চার্জ হতে সক্ষম।

তো কিভাবে সঠিক সিদ্ধান্ত নিবেন?

ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা থেকে বলছি, একটি ভালো সিদ্ধান্ত প্রকৃতপক্ষে কেবল ঐ সিদ্ধান্তে আপনার আস্থার উপর নির্ভরশীল। একই পণ্য সবার জন্য ভালো হতে পারেনা। একটি নির্দিষ্ট পণ্য কেবলই একটি নির্দিষ্ট দলের মানুষের জন্য উপযোগী। হোক সেটা ল্যাপটপ, নোটবুক কিংবা যেকোন ধরনের পারসোনাল কম্পিউটার, একটি পিসি কখনোই একজন ব্যবহারকারীর সব চাহিদা একসাথে মেটাতে পারে না। এর সাথে কিছু সমন্বয় আর উন্নতি করার পর তা ব্যবহারকারীর মন মত হয়ে উঠতে পারে। আমি নিজে এমন একজন ইউজার যে কখনো হুট করে প্রেমে পড়ি না, বরং ধীরে ধীরে একটা নতুন ডিভাইসের সাথে অভ্যস্ত হয়ে পড়ি। হোক সেটা আমার টিভি, ফোন, কম্পিউটার কিংবা যেকোনো ধরনের ঘরের সামগ্রী, সেটা যদি আমার জন্য ঠিকভাবে পারফর্ম করে তাহলে সেটা আমি যতদিন সম্ভব রেখে দিই। বেশিরভাগ মানুষই তাদের আরাম আর স্বাচ্ছন্দ্যের কথা আগে ভাবেন এবং যেই পণ্যটি তার ভালো লাগে সেটিই ব্যবহার করতে থাকেন।

মার্কেটের অন্যান্য ল্যাপটপ উৎপাদনকারী কোম্পানির মত, এইচপি অন্যতম একটি কোম্পানি। প্রায় সব কোম্পানিরাই গ্রাহকদের সবচেয়ে বেশি দামে কিভাবে কত কম ফিচার দেয়া যায় সেটা চিন্তা করে। কিন্তু মোদ্দা কথা হলো অন্য যেকোনো কোম্পানির মত এইচপিরও ভালো এবং খারাপ দিক রয়েছে, কিন্তু আপনি কতটা খোঁজখবর করে সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন আর কেমন বাজেট আপনার কাছে রয়েছে সেটা সবচেয়ে বেশি কাজে দিবে। বিভিন্ন জনপ্রিয় কোম্পানির ল্যাপটপ আপনি খুঁজে পাবেন Bikroy.com/Marketplace -এ, যা শুধুমাত্র এইচপির ল্যাপটপ, নোটবুক আর পিসিতেই সীমাবদ্ধ নয়। দারুন সব পণ্যের সুবিশাল তালিকা এবং রিভিউ দেখে আপনার পছন্দের পণ্যটি বেছে নিন।

অন্য কোনো অনলাইন শপ বা নির্দিষ্ট কোন মার্কেটপ্লেসে কি কখনো বলতে দেখেছেন যে একটা নির্দিষ্ট এইচপি ল্যাপটপ “নিম্ন বা অনুন্নতমানের”? যদি বলেই থাকে তাহলে শুধুমাত্র তাদের কথার উপর ভরসা না করে, যেকোনো মতামত বিশ্বাস করার আগে নিজেই অনলাইনে ব্রাউজ করে সরাসরি প্রমান খুঁজে নিন Bikroy.com -এ আর নিজেই সিদ্ধান্ত নিন।

উপসংহার

দিনশেষে কিছু কিছু ল্যাপটপ বা নোটবুক মডেল হয়ত অন্যগুলোর চেয়ে ভালো প্রমাণিত হতে পারে কেননা একই উৎপাদনকারী বিভিন্ন ধরনের পণ্য গ্রাহকদের সুবিধার জন্য তৈরি করে থাকেন। কিন্তু যে কোম্পানিই হোক না কেনো, বেশিরভাগ পণ্যই একই বা একই গুণাবলীসম্পন্ন পার্টস অথবা একই সরবরাহকারীর পার্টস বুবহার করে তৈরি হয়। সুতরাং হুড এর ভেতর আপনি আসলে একি জিনিস ভিন্ন ভিন্ন নামে ব্যবহার করছেন। এখানে আমি নির্দিষ্ট কোনো ব্র্যান্ড বা উৎপাদনকারী কোম্পানীর সুপারিশ করবো না, কিন্তু কিছু মডেলের পণ্য বাজারে রয়েছে যা আপনার কষ্টের টাকায় সর্বাধিক পারফরমেন্স দেয়ার ক্ষমতা রাখে।

হয়ত এইচপির ল্যাপটপ আর নোটবুকের ব্যাপারে ভালোমন্দ অনেক কিছুই শুনেছেন, তবে সর্বশেষ সিদ্ধান্ত আপনারই। আমি নিজে একটি এইচপি নোটবুক ব্যবহার করি এবং আমার এটাই পছন্দ! আপনিও আপনার পছন্দের পণ্যটি খুঁজে নিন Bikroy.com-এ!

Comments

comments