আগামী দিনের গাড়ি : এফএফ ৯১

cover-2

ফ্যারাডে ফিউচার সিইএস ২০১৭ অনুষ্ঠানে তাদের এফএফ ৯১ প্রোডাকশন গাড়িটির কিছু ফাংশন প্রদর্শন করেছে যা উপস্থিত দর্শকদের মাঝে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে। যারা ফ্যারাডে ফিউচার কোম্পানির সম্পর্কে জানেন না তারা জেনে নিন এটি লস এঞ্জেলেস, ক্যালিফোর্নিয়া এবং চাইনিজ কনজিউমার ইলেক্ট্রনিক কোম্পানি লি-ইকোর উপর ভিত্তি করে গড়ে ওঠা একটি আমেরিকান ইলেক্ট্রিক গাড়ির কোম্পানি। ফ্যারাডে ফউচার ভোক্তাদের কাছে তাদের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা বেশ পরিষ্কারভাবেই খোলাসা করেছে। তারা ইলেকট্রিক যানবাহন বাজারে এনে বর্তমান অটোমোটিভ বাজারকে সম্পূর্ণ নতুন রূপ দিতে আগ্রহী। শুধু তাইই নয়, তারা তাদের নিশানা সরাসরি তাক করেছে টেসলা এবং অন্যান্য গাড়ি ম্যানুফ্যাকচারিং কোম্পানির দিকে।

reservations

এফএফ ৯১ মাত্র ৩৬ ঘণ্টা সময়ের মধ্যেই ৬৪,১২৪ টি রিজার্ভেশন পেয়েছে যদিও ফ্যারাডে ফিউচার এখন পর্যন্ত এর মূল্য প্রকাশ করেনি। গাড়িটি বাজারে এমন কিছু প্রযুক্তির উন্মেষ ঘটাতে চায় যা ভোক্তাদেরকে টেসলার মত স্বয়ংক্রিয় গাড়ি চালনা এবং আকর্ষণীয় কনসেপ্ট-কার এর অভিজ্ঞতা দিতে পারে।

সংখ্যার ভিত্তিতে এফএফ ৯১ দেখতে একটি অকাট্য জন্তু! এতে রয়েছে একটি ১৩০ কিডব্লিউএইচ ব্যাটারী যা ইপিএ অনুসারে ৩৭৮ মাইল চলতে পারে। গাড়িটির ১০৫০ হর্সপাওয়ার গাড়িটির গতি ০ মাইল/ঘণ্টা বেগ থেকে ৬০ মাইল/ঘন্টা বেগে নিতে সময় নেবে মাত্র ২.৩৯ সেকেন্ড যা গাড়িটি রিলিজ পাবার সময় দ্রুততর (নোট: এখানে দ্রুততর গাড়ি বলা হচ্ছে এক্সিলারেশনের ভিত্তিতে, গতির ভিত্তিতে নয়।) প্রোডাকশন গাড়ি হিসেবে মর্যাদা লাভ করবে। বর্তমানের টাইটেল হোল্ডার টেসলার মডেল পি১০০ডি একই গতি উঠাতে সময় নেয় ২.৬ মিনিট সময়। যদিও আসন্ন সফটওয়্যারটি আপডেট করলে সময় কমে ২.৪ সেকেন্ডে নেমে আসবে। গাড়িটি তাদের ভাষ্যমতে ৫০০ মাইল/ঘণ্টা বেগে চার্জ হবে এবং এটি ২০০ কিলোওয়াট ডিসি চার্জিং সিস্টেম দিয়ে চার্জ করা যাবে। গতানুগুতিক ১৫ কিলোওয়াট এসি হোম চার্জিং সিস্টেম দিয়ে চার্জ করলে সাড়ে চার ঘণ্টায় চার্জ হবে ৫০%।

image

স্বয়ংক্রিয় গাড়ি চালনার ফিচারটি এফএফ ৯১ এর সাথে থাকবে তবে এ বিষয়টি এখনও পরিষ্কার নয় যে কি ধরণের স্বয়ংক্রিয়তা এর মধ্যে অন্তর্গত থাকবে যেহেতু গাড়ি চালনার কিছু আইন রয়েছে। একটি অন্যতম মুখ্য ফিচার হিসেবে গাড়িটির তার আশেপাশের পরিবেশ স্ক্যান করার ক্ষমতা দেখানো হয়েছিলো, দেখানো হয়েছিলো গাড়িটি নিজেই একটি পারকিং স্পট খুঁজে নিয়ে সম্পূর্ণ স্বয়ংক্রিয়ভাবে গাড়ি পার্ক করে রাখছে। এটি করার জন্য এফএফ ৯১ এক সারি ক্যামেরা, সেন্সর এবং খুবই কার্যোপযোগী লিডার সেন্সর ব্যবহার করে থাকে যা কিনা অনেকটা রোলস রয়েস সিলভার লেডির মত গাড়ির হুড থেকে বের হয়।  গাড়িটে যে স্থানে পার্ক করা হয়েছিলো সেখান থেকে ডেকে আনা যায়। এই সব কিছুই স্মার্টফোণের অ্যাপের মাধ্যমে নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব। গাড়িতে এই সব ফিচারগুলো অন্তর্ভুক্ত করার উদ্দেশ্য চালকের সুবিধার কথা চিন্তা করে। চালকের যাতে করে পারকিং স্পট খুঁজে পেতে কোন রকম সমস্যায় পরতে না হয়।

এফএফ ৯১ এর কিছু সংখ্যক ফিচার আছে যার সাথে টেসলার গাড়িগুলোর বেশ মিল রয়েছে, যেমন, সেন্টার টাচ স্ক্রীন, এলটিই এন্টেনা এবং কী-লেস এন্ট্রি। ক্যামেরা লেভারেজ এবং ফেস রিকগনিশন ব্যবহার করে গাড়িতে আরোহণ করার ফিচারটি এফএফ ৯১ গাড়িটি কী-লেস এন্ট্রিকে নিয়ে গেছে একটি ভিন্ন মাত্রায়। গাড়ির সাইড মিররগুলো অ্যারোডাইনামিক এবং অপসারণযোগ্য। ফ্যারাডে ফিউচার গাড়িটিকে এমন ভাবে নকশা করেছে যাতে করে রেগুলেটর দ্বারা অনুমোদিত হলে মিররগুলো আরও অ্যারোডাইনামিক ক্যামেরার জন্য সোয়াপ করা যায়। গাড়ির চাকাগুলোও বেশ কিছু ট্রিক সম্পন্ন করতে সক্ষম। গাড়ির চাকাগুলো ২২ ইঞ্চির এবং এই চাকাগুলো গতিবিজ্ঞান অনুসারে অ্যারোডাইনামিক সর্বোচ্চ গতিতে বৃদ্ধি করার লক্ষ্যে তাদের আকার পরিবর্তন করতে সক্ষম। পেছনের চাকাগুলোও সামনের চাকাগুলোর সাথে কিঞ্চিৎ আকার পরিবর্তন করতে এবং আরও ছোট রেডিয়াসের আকৃতি ধারণ করতে সক্ষম।

ff91-2

যাত্রীর আরামের কথা চিন্তা করে গাড়িটির ইন্টেরিওর নকশা করা হয়েছে। গাড়ির কেবিনটির আকৃতি ১৫০ কিউবিক ফুট, এর সিটগুলো খুবই বিলাসবহুল এবং আপার ব্যাকের সাথে সংযোজন করা সম্ভব, আছে হিটিং এর সাথে লাম্বার এবং লোয়ার লেগ সাপোর্ট, কুলিং এবং এমনকি মাসাজ করার সিটও রয়েছে। প্যানারমিক ছাদ এবং ডিমিং গ্লাসের তৈরি জানালা যাত্রীদের দিচ্ছে গোপনীয়তা রক্ষা করার সুবিধা। মেব্যাখের ৬০ ডিগ্রি থেকে ৪৩.৫ ডিগ্রির ক্লাস রেক্লাইনিং বিচারে গাড়ির সামনের সিটের ফিচার সবচেয়ে সেরা।

ff91-3

এফএফ ৯১ দেখতে পুরোপুরি কোন একটি সাইন্স ফিকশন ছায়াছবির গাড়ির মত এবং গাড়ির অন্তর্নিহিত যেসব প্রযুক্তির কথা কোম্পানি প্রচার করছে তা এখন পর্যন্ত অস্পৃশ্য। ফ্যারাডে ফিউচার বলছে তারা গাড়িটির উৎপাদন কার্যক্রম শুরু করবে ২০১৮ সালে এবং উৎপাদন শেষে খুব দ্রুত গাড়িটি বাজারজাত করা হবে। গাড়িটির মূল্য কেমন হবে তা এখন পর্যন্ত জানা যায়নি, তবে বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন গাড়িটির মূল্য দাড়াতে পারে ১৩০,০০০ ডলার। আমরা বরাবরই কনসেপ্ট কার নিয়ে অলীক সব ভাবনা ভাবতে পছন্দ করি এবং আমরা এটাও হয়ত ভাবি একদিন না একদিন এই ভাবনাগুলো সত্যি হবে এবং এমন কোন গাড়ি বাজারেও আসবে। এফএফ ৯১ গাড়িটি ভিন্ন ধর্মী। এই গাড়িটিকে বর্তমানে আমরা যে অবস্থায় দেখতে পাচ্ছি, ভবিষ্যতে সে অবস্থায়ই হয়ত ভোক্তাদের হাতেও দেখতে পাবো। গাড়িটির অন্তর্নিহিত সকল প্রযুক্তি সাইন্স ফিকশন নয়, এটিই বাস্তব প্রযুক্তি যা এফএফ ৯১ গাড়িতে ব্যবহার করা হচ্ছে। এই গাড়িটি যদি যথা সময়ে বাজারজাত করা সম্ভব হয় তবে আমরা আশা করতে পারি যে পুরো অটোমোটিভ শিল্প এই ফ্যারাডে ফিউচারকে আদর্শ হিসেবে অনুকরণ করবে এবং ধরণের গাড়ি বাজারে আনতে উদ্বুদ্ধ হবে।

faraday-future-ff91-040117-8

ff-91-2

ff91-22

ff-92-1

faraday-future-ff-91-front-three-quarter-02

Comments

comments